০৮:০৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

এবার শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে মোশারফ করিম, ফজলুর রহমান বাবু ও বিজরীসহ এক ঝাঁক তারকা

প্রতিনিধির নাম

শব্দগুলি শব্দদূষণে পরিণত হয়ে যায় যখন সেটা আমাদের শুনবার মাত্রা অতিক্রম করে। উচ্চ শব্দে গাড়ির হর্ন, মাইক, সাউন্ডবক্স, নির্মাণসামগ্রী, কলকারখানার ভিতরে শব্দ এরকম বিভিন্ন উৎস থেকে প্রতিনিয়ত শব্দদূষণ হচ্ছে। দিনকে দিন বেড়েই চলেছে শব্দদূষণের মাত্রা। শব্দদূষণ গর্ভস্থ শিশু থেকে শুরু করে সকল বয়সী মানুষের বিবিধ স্বাস্থ্য ঝুঁকির কারণ। শুধু মানুষের নয় প্রাণীকূলেরও ক্ষতি হয় শব্দদূষণের ফলে। সরকার শব্দদূষণ প্রতিরোধে বিধিমালা প্রনয়ন করেছে। শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে পরিবেশ অধিদপ্তর একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। ঐ প্রকল্পের আওতায় শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে এবার এগিয়ে এলেন মোশারফ করিম, আরেফিন শুভ, ফজলুর রহমান বাবু, বিজরী বরকতুল্লাহ, এভারেষ্ট জয়ী নিশাত মজুমদার, ক্রিকেটার মেহেদী মিরাজ এবং জাতীয় মহিলা ফুটবল দলের খেলোয়ার সাবিনা।

তারা শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে নির্মিত টিভিসিতে অংশগ্রহণ করে জনগণকে সচেতন করেছেন। এরই মধ্যে বিভিন্ন পত্রিকায় গণবিজ্ঞপ্তিতে মোশারফ করিম শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সোচ্চার হয়েছেন। সারা ঢাকা শহরে পাঁচশতাধিক ফেষ্টুনে উল্লেখিত তারকারা শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সবাইকে অনুরোধ করছেন। খুব শীঘ্রই টিভিসি গুলো বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচারিত হবে।

এছাড়াও হালের জনপ্রিয় মিউজিক কম্পোজার প্রীতমের সুরে এবং জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী মমতাজ এর কন্ঠে শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণের থিমসং বিভিন্ন চ্যানেলে এক মিনিটের কাটভার্সন প্রচারিত হচ্ছে। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে তাঁরা এই দায়িত্ব পালনে এগিয়ে এসেছেন। এই মহানুভবতার জন্য প্রকল্পের পক্ষ থেকে এই তারকাদের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে সবাইকে শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সচেতন হওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

ট্যাগস :
আপডেট : ০২:৩১:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ জুলাই ২০২৩
১৩৯ বার পড়া হয়েছে

এবার শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে মোশারফ করিম, ফজলুর রহমান বাবু ও বিজরীসহ এক ঝাঁক তারকা

আপডেট : ০২:৩১:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ জুলাই ২০২৩

শব্দগুলি শব্দদূষণে পরিণত হয়ে যায় যখন সেটা আমাদের শুনবার মাত্রা অতিক্রম করে। উচ্চ শব্দে গাড়ির হর্ন, মাইক, সাউন্ডবক্স, নির্মাণসামগ্রী, কলকারখানার ভিতরে শব্দ এরকম বিভিন্ন উৎস থেকে প্রতিনিয়ত শব্দদূষণ হচ্ছে। দিনকে দিন বেড়েই চলেছে শব্দদূষণের মাত্রা। শব্দদূষণ গর্ভস্থ শিশু থেকে শুরু করে সকল বয়সী মানুষের বিবিধ স্বাস্থ্য ঝুঁকির কারণ। শুধু মানুষের নয় প্রাণীকূলেরও ক্ষতি হয় শব্দদূষণের ফলে। সরকার শব্দদূষণ প্রতিরোধে বিধিমালা প্রনয়ন করেছে। শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে পরিবেশ অধিদপ্তর একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। ঐ প্রকল্পের আওতায় শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে এবার এগিয়ে এলেন মোশারফ করিম, আরেফিন শুভ, ফজলুর রহমান বাবু, বিজরী বরকতুল্লাহ, এভারেষ্ট জয়ী নিশাত মজুমদার, ক্রিকেটার মেহেদী মিরাজ এবং জাতীয় মহিলা ফুটবল দলের খেলোয়ার সাবিনা।

তারা শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে নির্মিত টিভিসিতে অংশগ্রহণ করে জনগণকে সচেতন করেছেন। এরই মধ্যে বিভিন্ন পত্রিকায় গণবিজ্ঞপ্তিতে মোশারফ করিম শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সোচ্চার হয়েছেন। সারা ঢাকা শহরে পাঁচশতাধিক ফেষ্টুনে উল্লেখিত তারকারা শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সবাইকে অনুরোধ করছেন। খুব শীঘ্রই টিভিসি গুলো বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচারিত হবে।

এছাড়াও হালের জনপ্রিয় মিউজিক কম্পোজার প্রীতমের সুরে এবং জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী মমতাজ এর কন্ঠে শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণের থিমসং বিভিন্ন চ্যানেলে এক মিনিটের কাটভার্সন প্রচারিত হচ্ছে। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে তাঁরা এই দায়িত্ব পালনে এগিয়ে এসেছেন। এই মহানুভবতার জন্য প্রকল্পের পক্ষ থেকে এই তারকাদের সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে সবাইকে শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে সচেতন হওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে।