১২:২১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এ আয়োজিত হলো পিঠা উৎসব-২০২৪

মোকারম হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধি
গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী সব পিঠার সমাহার নিয়ে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশে আয়োজিত হলো পিঠা উৎসব-২০২৪, রাজধানী উত্তরায় বিশ্ববিদ্যালয়টির স্থায়ী ক্যাম্পাস প্রাঙ্গনে গত ১৫ এবং ১৬ই ফেব্রুয়ারি আয়োজিত হয় এই পিঠা উৎসব।
১৫ই ফেব্রুয়ারি উৎসবটির উদ্বোধনী দিনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জিএসএম জাফরুল্লাহ, সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নান চৌধুরী, স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের ট্রেজারার মোর্শেদা চৌধুরী। ১৬ই ফেব্রুয়ারি উৎসবটির সমাপনী দিনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের কমিশনার ড. মুশফিক মান্নান চৌধুরী, সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ডক্টর এম নুরুল ইসলাম।
২০০৮ সাল থেকে নিয়মিত ভাবে হয়ে আসা উৎসবে বাহারি নাম ও দেশীয় সাজসজ্জার হরেক রকমের পিঠাপুলি ছিল উৎসবের প্রতিটি স্টলে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা পিঠা নিয়ে স্টলগুলোতে হাজির হন। বিভিন্ন বিভাগ ভিত্তিক বাহারী নামের স্টল নিয়ে উপস্থিত হন শিক্ষার্থীরা, বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা নিজেরা পিঠা তৈরি করে উপস্থাপন করেন যার মধ্যে অগ্রাধিকার পায় দেশীয় পিঠাগুলো, উপস্থিত হওয়া শিক্ষার্থীদের মাঝে উৎফুল্ল মনোভাব লক্ষ্য করা যায়, প্রতিটি বিভাগের শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষকরাও উপস্থিত ছিলেন।
পিঠা উৎসব ২০২৪ আয়োজন করে ভার্সিটি অফ বাংলাদেশ কালচারাল ক্লাব। উৎসবটি আয়োজনের ফলে সকল শিক্ষার্থীদের মাঝে উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজমান সহ আনন্দঘন পরিবেশ ছিলো, শিক্ষক এবং বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীদের এক মিলন মেলা তৈরি হয়, খুবই সুন্দর সময় কাটিয়েছেন বলে জানিয়েছেন অংশগ্রহণকারীরা। আইন বিভাগের শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে পরিচালিত “হৈচৈ পিঠা ঘর” নামক স্টলটিতে ৭০ এর অধিক জাতের পিঠা নিয়ে তারা উপস্থিত হয়।বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা উপস্থিত থেকে শিক্ষার্থীদের সার্বক্ষণিক নির্দেশনা ও উৎসাহ প্রদান করছেন। প্রতিটি স্টলে শিক্ষার্থীরা নিজেদের বিভাগের নামে স্লোগান দিয়ে নিজেদের উপস্থিতি জানান দিয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকবৃন্দ সহ প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের মাঝেও উৎসবটিকে সফল করার প্রচেষ্টা লক্ষ্য করা যায়।
উল্লেখ্য, এবারের পিঠা উৎসব এ ১ম স্থান অর্জন করে ম্যাকাট্রোনিক্স বিভাগ, ২য় স্থান অর্জন করে আর্কিটেকচার বিভাগ, যৌথ ভাবে তৃতীয় স্থান অর্জন করে সিভিল বিভাগ ও ইংরেজী বিভাগ।
ট্যাগস :
আপডেট : ০৪:৫০:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
৩৩২ বার পড়া হয়েছে

ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এ আয়োজিত হলো পিঠা উৎসব-২০২৪

আপডেট : ০৪:৫০:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী সব পিঠার সমাহার নিয়ে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশে আয়োজিত হলো পিঠা উৎসব-২০২৪, রাজধানী উত্তরায় বিশ্ববিদ্যালয়টির স্থায়ী ক্যাম্পাস প্রাঙ্গনে গত ১৫ এবং ১৬ই ফেব্রুয়ারি আয়োজিত হয় এই পিঠা উৎসব।
১৫ই ফেব্রুয়ারি উৎসবটির উদ্বোধনী দিনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জিএসএম জাফরুল্লাহ, সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নান চৌধুরী, স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের ট্রেজারার মোর্শেদা চৌধুরী। ১৬ই ফেব্রুয়ারি উৎসবটির সমাপনী দিনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের কমিশনার ড. মুশফিক মান্নান চৌধুরী, সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ডক্টর এম নুরুল ইসলাম।
২০০৮ সাল থেকে নিয়মিত ভাবে হয়ে আসা উৎসবে বাহারি নাম ও দেশীয় সাজসজ্জার হরেক রকমের পিঠাপুলি ছিল উৎসবের প্রতিটি স্টলে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা পিঠা নিয়ে স্টলগুলোতে হাজির হন। বিভিন্ন বিভাগ ভিত্তিক বাহারী নামের স্টল নিয়ে উপস্থিত হন শিক্ষার্থীরা, বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা নিজেরা পিঠা তৈরি করে উপস্থাপন করেন যার মধ্যে অগ্রাধিকার পায় দেশীয় পিঠাগুলো, উপস্থিত হওয়া শিক্ষার্থীদের মাঝে উৎফুল্ল মনোভাব লক্ষ্য করা যায়, প্রতিটি বিভাগের শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষকরাও উপস্থিত ছিলেন।
পিঠা উৎসব ২০২৪ আয়োজন করে ভার্সিটি অফ বাংলাদেশ কালচারাল ক্লাব। উৎসবটি আয়োজনের ফলে সকল শিক্ষার্থীদের মাঝে উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজমান সহ আনন্দঘন পরিবেশ ছিলো, শিক্ষক এবং বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীদের এক মিলন মেলা তৈরি হয়, খুবই সুন্দর সময় কাটিয়েছেন বলে জানিয়েছেন অংশগ্রহণকারীরা। আইন বিভাগের শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে পরিচালিত “হৈচৈ পিঠা ঘর” নামক স্টলটিতে ৭০ এর অধিক জাতের পিঠা নিয়ে তারা উপস্থিত হয়।বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা উপস্থিত থেকে শিক্ষার্থীদের সার্বক্ষণিক নির্দেশনা ও উৎসাহ প্রদান করছেন। প্রতিটি স্টলে শিক্ষার্থীরা নিজেদের বিভাগের নামে স্লোগান দিয়ে নিজেদের উপস্থিতি জানান দিয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকবৃন্দ সহ প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের মাঝেও উৎসবটিকে সফল করার প্রচেষ্টা লক্ষ্য করা যায়।
উল্লেখ্য, এবারের পিঠা উৎসব এ ১ম স্থান অর্জন করে ম্যাকাট্রোনিক্স বিভাগ, ২য় স্থান অর্জন করে আর্কিটেকচার বিভাগ, যৌথ ভাবে তৃতীয় স্থান অর্জন করে সিভিল বিভাগ ও ইংরেজী বিভাগ।