০৯:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

কিশোরগঞ্জ-২ হতে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেলেন আব্দুল কাহার আকন্দ

মোকারম হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধি

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কর্তৃক জাতীয় সংসদের ১৬৩ নং আসন,কিশোরগঞ্জ-২ (কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া) থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন আব্দুল কাহার আকন্দ ।
আজ রবিবার গণভবনে সকল মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মতবিনিময় সভা করেন। বিকাল ৪টা দলের সাধারণ সম্পাদক মনোনীতদের নাম ঘোষণা করেন।দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০২৪ সালের ৭ই জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

প্রথম বারের মতো তিনি নৌকার প্রতীক পেলেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগ থেকে আব্দুল কাহার আকন্দকে মনোনয়ন দেওয়ায় কটিয়াদী পাকুন্দিয়াতে আওয়ামী লীগ যুবলীগ স্বেচ্ছাসেবক লীগ ছাত্রলীগ সহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠন ও বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক আনন্দঘন পরিবেশ তৈরি হয়। উল্লেখ্য উক্ত আসনে সংসদ সদস্য ছিলেন পুলিশের সাবেক আইজিপি নূর মোহাম্মদ।
আব্দুল কাহার আকন্দ বিপিএম(বার), পিপিএম(বার) কটিয়াদী উপজেলার সহশ্রাম-ধূলদিয়া ইউনিয়নের পূর্ব-পুরুড়া গ্রামের সন্তান। তিনি পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে ২১ অগাস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার অধিকতর তদন্তের দায়িত্বও পালন করেছেন।

এর আগে আব্দুল কাহার আকন্দ পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) পুলিশ সুপার (এসপি) হিসেবে চুক্তিতে নিয়োজিত ছিলেন।আব্দুল কাহার আকন্দ বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেছেন। পিলখানায় বিডিআর বিদ্রোহের ঘটনায় দায়ের করা মামলারও তদন্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।এছাড়াও আওয়ামী লীঘ সরকারের আমলে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মামলার তদন্তের দায়িত্বে ছিলেন এই কর্মকর্তা। কিন্তু বিএনপি জোট সরকার তাকে চাকরিচ্যুত করে। আইনি লড়াই শেষে সাত বছর পর ২০০৯ সালের ২৮ জানুয়ারি তিনি চাকরি ফিরে পান। তার একদিন পর অবসরে যান আকন্দ। পরে ওই বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি দুই বছরের চুক্তিতে নিযোগ পেলে আরো কয়েক দফায় চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো হয়।

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে আবুল কাহার আকন্দকে নৌকা প্রতীকে বিজয়ী করার জন্য এবং উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে পঞ্চম বারের মতো শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত করতেই কাজ করে যাবেন বলে ব্যাক্ত করেন এলাকার নেতাকর্মীরা।

ট্যাগস :
আপডেট : ০৪:৪৬:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২৩
১৯৩ বার পড়া হয়েছে

কিশোরগঞ্জ-২ হতে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেলেন আব্দুল কাহার আকন্দ

আপডেট : ০৪:৪৬:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২৩

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কর্তৃক জাতীয় সংসদের ১৬৩ নং আসন,কিশোরগঞ্জ-২ (কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া) থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন আব্দুল কাহার আকন্দ ।
আজ রবিবার গণভবনে সকল মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মতবিনিময় সভা করেন। বিকাল ৪টা দলের সাধারণ সম্পাদক মনোনীতদের নাম ঘোষণা করেন।দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০২৪ সালের ৭ই জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

প্রথম বারের মতো তিনি নৌকার প্রতীক পেলেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগ থেকে আব্দুল কাহার আকন্দকে মনোনয়ন দেওয়ায় কটিয়াদী পাকুন্দিয়াতে আওয়ামী লীগ যুবলীগ স্বেচ্ছাসেবক লীগ ছাত্রলীগ সহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠন ও বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক আনন্দঘন পরিবেশ তৈরি হয়। উল্লেখ্য উক্ত আসনে সংসদ সদস্য ছিলেন পুলিশের সাবেক আইজিপি নূর মোহাম্মদ।
আব্দুল কাহার আকন্দ বিপিএম(বার), পিপিএম(বার) কটিয়াদী উপজেলার সহশ্রাম-ধূলদিয়া ইউনিয়নের পূর্ব-পুরুড়া গ্রামের সন্তান। তিনি পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে ২১ অগাস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার অধিকতর তদন্তের দায়িত্বও পালন করেছেন।

এর আগে আব্দুল কাহার আকন্দ পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) পুলিশ সুপার (এসপি) হিসেবে চুক্তিতে নিয়োজিত ছিলেন।আব্দুল কাহার আকন্দ বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেছেন। পিলখানায় বিডিআর বিদ্রোহের ঘটনায় দায়ের করা মামলারও তদন্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।এছাড়াও আওয়ামী লীঘ সরকারের আমলে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মামলার তদন্তের দায়িত্বে ছিলেন এই কর্মকর্তা। কিন্তু বিএনপি জোট সরকার তাকে চাকরিচ্যুত করে। আইনি লড়াই শেষে সাত বছর পর ২০০৯ সালের ২৮ জানুয়ারি তিনি চাকরি ফিরে পান। তার একদিন পর অবসরে যান আকন্দ। পরে ওই বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি দুই বছরের চুক্তিতে নিযোগ পেলে আরো কয়েক দফায় চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো হয়।

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে আবুল কাহার আকন্দকে নৌকা প্রতীকে বিজয়ী করার জন্য এবং উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে পঞ্চম বারের মতো শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত করতেই কাজ করে যাবেন বলে ব্যাক্ত করেন এলাকার নেতাকর্মীরা।