০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

কেরানীগঞ্জে ১৩ দিন ধরে নিখোঁজ স্বর্ণ ব্যবসায়ী

প্রতিনিধির নাম
ঢাকার কেরানীগঞ্জে পাওনা টাকা আনতে গিয়ে এক স্বর্ণ ব্যবসায়ী ১৩ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজ ব্যবসায়ীর নাম অনুপ বাউল (৩৪)। তার বাবার নাম মৃত কানাই বাউল। বাড়ি দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার তেঘুরিয়া ইউনিয়নের পাইনা ভৈরব নগর গ্রামে। এ বিষয়ে র‍্যাব-১০ বরাবর অভিযোগ ও থানায় জিডি করা হয়েছে।
নিখোঁজ অনুপ বাউলের ছোট ভাই বিপ্লব বাউল জানান, অনুপ বাউল গত ৩ জানুয়ারি স্ত্রী-সন্তানকে সাথে নিয়ে মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান থানার ভাড়ালিয়া গ্রামে শ্বশুর শক্তিপদ মণ্ডলের বাড়িতে বেড়াতে যান। অনুপ বাউলের ব্যবসায়ীক পার্টনারের নাম নয়ন। তার বাড়ি কেরানীগঞ্জ মডেল থানার কলাতিয়া ইউনিয়নের জৈনপুরে। তিনি অনুপকে দুই লাখ টাকা দিতে চেয়ে মোবাইলে কল করেন। কল পেয়ে ৪ জানুয়ারি সকাল ৯টায় নয়নের কাছে যাওয়ার জন্য শ্বশুরবাড়ি থেকে বের হন অনুপ।
বিপ্লব বাউল বলেন, ওইদিন বিকেল ৩টায় নয়ন তার মোবাইল থেকে কল করে আমাকে জানান অনুপ ফোন রিসিভ করছে না। পরে আমি ভাইকে কল দেই। কিন্তু ভাই আর রিসিভ করেননি। পরে বিকেল ৫টার পর থেকে অনুপ বাউলের মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।
বিপ্লব বলেন, এই ঘটনায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় জিডি করতে গেলে পুলিশ প্রথমে তা গ্রহণ করেনি। পরে তিনি সিরাজদিখান থানায় একটি জিডি করেন। এই ঘটনায় তিনি রাজধানীর ধলপুর র‍্যাব-১০ এর কার্যালয়ে একটি অভিযোগও দায়ের করেছেন।
নিখোঁজ অনুপ বাউলের রাজধানীর তাঁতী বাজারে একটি সোনার দোকান রয়েছে। এই দোকানের ব্যবসায়ীক পার্টনার হচ্ছে নয়ন। ১৩ দিনেও অনুপ বাউলের সন্ধান না পেয়ে পরিবারে নেমে এসেছে চরম হতাশা৷
ট্যাগস :
আপডেট : ০৪:৪৪:৪২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২
১৭০ বার পড়া হয়েছে

কেরানীগঞ্জে ১৩ দিন ধরে নিখোঁজ স্বর্ণ ব্যবসায়ী

আপডেট : ০৪:৪৪:৪২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২
ঢাকার কেরানীগঞ্জে পাওনা টাকা আনতে গিয়ে এক স্বর্ণ ব্যবসায়ী ১৩ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজ ব্যবসায়ীর নাম অনুপ বাউল (৩৪)। তার বাবার নাম মৃত কানাই বাউল। বাড়ি দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার তেঘুরিয়া ইউনিয়নের পাইনা ভৈরব নগর গ্রামে। এ বিষয়ে র‍্যাব-১০ বরাবর অভিযোগ ও থানায় জিডি করা হয়েছে।
নিখোঁজ অনুপ বাউলের ছোট ভাই বিপ্লব বাউল জানান, অনুপ বাউল গত ৩ জানুয়ারি স্ত্রী-সন্তানকে সাথে নিয়ে মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান থানার ভাড়ালিয়া গ্রামে শ্বশুর শক্তিপদ মণ্ডলের বাড়িতে বেড়াতে যান। অনুপ বাউলের ব্যবসায়ীক পার্টনারের নাম নয়ন। তার বাড়ি কেরানীগঞ্জ মডেল থানার কলাতিয়া ইউনিয়নের জৈনপুরে। তিনি অনুপকে দুই লাখ টাকা দিতে চেয়ে মোবাইলে কল করেন। কল পেয়ে ৪ জানুয়ারি সকাল ৯টায় নয়নের কাছে যাওয়ার জন্য শ্বশুরবাড়ি থেকে বের হন অনুপ।
বিপ্লব বাউল বলেন, ওইদিন বিকেল ৩টায় নয়ন তার মোবাইল থেকে কল করে আমাকে জানান অনুপ ফোন রিসিভ করছে না। পরে আমি ভাইকে কল দেই। কিন্তু ভাই আর রিসিভ করেননি। পরে বিকেল ৫টার পর থেকে অনুপ বাউলের মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।
বিপ্লব বলেন, এই ঘটনায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় জিডি করতে গেলে পুলিশ প্রথমে তা গ্রহণ করেনি। পরে তিনি সিরাজদিখান থানায় একটি জিডি করেন। এই ঘটনায় তিনি রাজধানীর ধলপুর র‍্যাব-১০ এর কার্যালয়ে একটি অভিযোগও দায়ের করেছেন।
নিখোঁজ অনুপ বাউলের রাজধানীর তাঁতী বাজারে একটি সোনার দোকান রয়েছে। এই দোকানের ব্যবসায়ীক পার্টনার হচ্ছে নয়ন। ১৩ দিনেও অনুপ বাউলের সন্ধান না পেয়ে পরিবারে নেমে এসেছে চরম হতাশা৷