১১:৫১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

ঢাকায় ছিনতাই প্রতিরোধে ডিএমপির টাস্কফোর্স গঠন

 আবু আবদুল্লাহ রোহিত,ঢাকা

 ঢাকা মহানগরীর সাম্প্রতিক অপরাধ কার্যক্রম পর্যালোচনায় দেখা যায় যে, বিভিন্ন থানা এলাকার ছিনতাই সংক্রান্ত অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে। ছিনতাইয়ে জড়িতদের আদালতে সোপর্দ করার পর জামিনে মুক্তি পেয়ে পুনরায় একই অপরাধে জড়িত হয় তারা। ঢাকা মহানগরীকে ছিনতাইমুক্ত করে নগরবাসীর নিরাপদ ও নির্বিঘ্নে চলাচল নিশ্চিতকরণ এবং অপরাধ ভীতি দূর করতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে। ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে গত ৭ অক্টোবর ১৯ সদস্যবিশিষ্ট এই টাস্কফোর্স গঠন করা হয়। ছিনতাইয়ের মতো অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করে সম্মানিত নগরবাসীদের নিরাপদ রাখতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ বদ্ধপরিকর। ছিনতাইকারীরা কখন, কোথায়, কোন প্রক্রিয়ায় ছিনতাই করে সে সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ, প্রতিরোধ ও ছিনতাই সংঘটিত হলে ছিনতাইকারীকে আইনের আওতায় আনা এই টাস্কফোর্সের উদ্দেশ্য। ডিএমপি সদর দপ্তরের উপ-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম বিভাগ) শচীন চাকমাকে সভাপতি করে ১৯ সদস্যবিশিষ্ট টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে। টাস্কফোর্সের অন্য সদস্যরা হলেন ডিএমপি হেডকোয়ার্টার্সের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম-১) একজন, ডিএমপির আটটি অপরাধ বিভাগের আটজন অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, গোয়েন্দা পুলিশের আটজন অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার এবং অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার/সহকারী পুলিশ কমিশনার (প্রসিকিউশন) একজন। ডিএমপির ৩৬তম পুলিশ কমিশনার হিসেবে গত ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ খ্রি. যোগদান করেন হাবিবুর রহমান, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার)। এরপর সোমবার (২ অক্টোবর ২০২৩ খ্রি.) মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগে ‘কমিশনার’স মিট দ্য প্রেস’ প্রোগ্রামে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে ঢাকা মহানগরীতে ছিনতাই প্রতিরোধে একটি টাস্কফোর্স গঠন করার কথা জানিয়েছিলেন তিনি। ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস্ বিভাগের উপকমিশনার ফারুক হোসেন জানান, ছিনতাইয়ের মতো অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করে নগরবাসীকে নিরাপদ রাখতে মহানগর পুলিশ বদ্ধপরিকর। তিনি আরও জানান, ছিনতাইকারীরা কখন, কোথায়, কোন প্রক্রিয়ায় ছিনতাই করে এ সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ, প্রতিরোধ এবং ছিনতাই হলে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা এই টাস্কফোর্সের উদ্দেশ্য।

ট্যাগস :
আপডেট : ১১:৪৯:০১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১১ অক্টোবর ২০২৩
১৫৭ বার পড়া হয়েছে

ঢাকায় ছিনতাই প্রতিরোধে ডিএমপির টাস্কফোর্স গঠন

আপডেট : ১১:৪৯:০১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১১ অক্টোবর ২০২৩

 ঢাকা মহানগরীর সাম্প্রতিক অপরাধ কার্যক্রম পর্যালোচনায় দেখা যায় যে, বিভিন্ন থানা এলাকার ছিনতাই সংক্রান্ত অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে। ছিনতাইয়ে জড়িতদের আদালতে সোপর্দ করার পর জামিনে মুক্তি পেয়ে পুনরায় একই অপরাধে জড়িত হয় তারা। ঢাকা মহানগরীকে ছিনতাইমুক্ত করে নগরবাসীর নিরাপদ ও নির্বিঘ্নে চলাচল নিশ্চিতকরণ এবং অপরাধ ভীতি দূর করতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে। ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার) স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে গত ৭ অক্টোবর ১৯ সদস্যবিশিষ্ট এই টাস্কফোর্স গঠন করা হয়। ছিনতাইয়ের মতো অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করে সম্মানিত নগরবাসীদের নিরাপদ রাখতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ বদ্ধপরিকর। ছিনতাইকারীরা কখন, কোথায়, কোন প্রক্রিয়ায় ছিনতাই করে সে সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ, প্রতিরোধ ও ছিনতাই সংঘটিত হলে ছিনতাইকারীকে আইনের আওতায় আনা এই টাস্কফোর্সের উদ্দেশ্য। ডিএমপি সদর দপ্তরের উপ-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম বিভাগ) শচীন চাকমাকে সভাপতি করে ১৯ সদস্যবিশিষ্ট টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে। টাস্কফোর্সের অন্য সদস্যরা হলেন ডিএমপি হেডকোয়ার্টার্সের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম-১) একজন, ডিএমপির আটটি অপরাধ বিভাগের আটজন অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, গোয়েন্দা পুলিশের আটজন অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার এবং অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার/সহকারী পুলিশ কমিশনার (প্রসিকিউশন) একজন। ডিএমপির ৩৬তম পুলিশ কমিশনার হিসেবে গত ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ খ্রি. যোগদান করেন হাবিবুর রহমান, বিপিএম (বার), পিপিএম (বার)। এরপর সোমবার (২ অক্টোবর ২০২৩ খ্রি.) মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগে ‘কমিশনার’স মিট দ্য প্রেস’ প্রোগ্রামে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে ঢাকা মহানগরীতে ছিনতাই প্রতিরোধে একটি টাস্কফোর্স গঠন করার কথা জানিয়েছিলেন তিনি। ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস্ বিভাগের উপকমিশনার ফারুক হোসেন জানান, ছিনতাইয়ের মতো অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করে নগরবাসীকে নিরাপদ রাখতে মহানগর পুলিশ বদ্ধপরিকর। তিনি আরও জানান, ছিনতাইকারীরা কখন, কোথায়, কোন প্রক্রিয়ায় ছিনতাই করে এ সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ, প্রতিরোধ এবং ছিনতাই হলে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা এই টাস্কফোর্সের উদ্দেশ্য।