০৭:২৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৫০ নং ওয়ার্ডের গণটিকা কার্যক্রম উদ্বোধন

প্রতিনিধির নাম

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্গত ৫০নং ওয়ার্ডে জয়নাল মার্কেট সংলগ্ন খান মার্কেটের আওলাদ হোসেন খানের কার্যালয়ে শুরু হয়েছে গণ টিকা। ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি’র গণটিকা কর্মসূচি উদ্বোধন করেন ৫০নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জনাব আলহাজ্ব ডি. এম. শামীম। তিনি এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে আজ সাধারণ অসহায় মানুষের পাশে আমরা আসতে সক্ষম হয়েছি। কেউ টিকার আওতার বাইরে থাকবে না সবাই টিকা পাবেন। জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিশন  ২০৪১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে তিনি তার স্বাস্থ্যসেবাকে সুরক্ষা করতে করোনার বৈশ্বিক মহামারীতে মানুষ যখন অসহায় তখনই জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যেক নাগরিককে টিকার মাধ্যমে তার কর্মসংস্থানে যাওয়ার জন্য সহায়তা দিচ্ছে।৫০নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জনাব আলহাজ্ব ডি এম শামীম বলেন আমি জননেত্রী শেখ হাসিনা আপাকে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যতদিন ক্ষমতায় থাকবে ততদিন মানুষ স্বাস্থ্যসেবা থেকে কেউ বঞ্চিত হবে না। আমরা তাঁরই নির্দেশে প্রত্যেকটি পাড়ায়-মহল্লায় ঘরে ঘরে গিয়ে আমরা সচেতনতা বৃদ্ধিতে কাজ করে যাচ্ছি। গণ টিকার কেন্দ্র সহযোগী আওলাদ খান সুপার মার্কেটের স্বত্বাধিকারী ও আওয়ামীলীগের স্থানীয় নেতা আওলাদ হোসেন খান বলেন জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিষণ ৪১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আমরা আওয়ামী লীগের কর্মী হয়ে কাজ করে যাচ্ছি এবং মানুষকে সচেতনতা বৃদ্ধি করে যাচ্ছি এবং গণটিকা কার্যক্রম আজ আমার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আমি নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে সুশৃংখল ভাবে মানুষকে সেবা দিতে পেরে আমি গর্বিত এবং ৫০ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জনাব আলহাজ্ব ডি. এম. শামীম কে ধন্যবাদ জানাচ্ছি তিনি আমাদের এলাকায় জনসাধারণের মাঝে ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি বা জন্ম নিবন্ধন বা মোবাইল নাম্বার দিয়ে টিকা দিতে পারে এমন একটি কার্যক্রম শুরু  করেছে তার জন্য তাকে জয়নাল  মার্কেটের এলাকা বাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি এবং আমাদের এই জয়নাল মার্কেট এলাকার জনসাধারণ  যারা এখনো করোনা টিকার আওতার বাইরে আছেন তারা চলে আসেন। আমি এলাকা বাসীকে ধন্যবাদ জানাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী  জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং জনপ্রিয় কাউন্সিলর জনাব আলহাজ্ব ডি. এম. শামীম  এর ডাকে সাড়াদানকারী স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য যারা টিকা গ্রহণ করছেন তিনি তাদেরকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

ট্যাগস :
আপডেট : ০৩:৫৪:২৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২২
১৬৯ বার পড়া হয়েছে

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৫০ নং ওয়ার্ডের গণটিকা কার্যক্রম উদ্বোধন

আপডেট : ০৩:৫৪:২৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২২

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্গত ৫০নং ওয়ার্ডে জয়নাল মার্কেট সংলগ্ন খান মার্কেটের আওলাদ হোসেন খানের কার্যালয়ে শুরু হয়েছে গণ টিকা। ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি’র গণটিকা কর্মসূচি উদ্বোধন করেন ৫০নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জনাব আলহাজ্ব ডি. এম. শামীম। তিনি এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে আজ সাধারণ অসহায় মানুষের পাশে আমরা আসতে সক্ষম হয়েছি। কেউ টিকার আওতার বাইরে থাকবে না সবাই টিকা পাবেন। জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিশন  ২০৪১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে তিনি তার স্বাস্থ্যসেবাকে সুরক্ষা করতে করোনার বৈশ্বিক মহামারীতে মানুষ যখন অসহায় তখনই জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যেক নাগরিককে টিকার মাধ্যমে তার কর্মসংস্থানে যাওয়ার জন্য সহায়তা দিচ্ছে।৫০নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জনাব আলহাজ্ব ডি এম শামীম বলেন আমি জননেত্রী শেখ হাসিনা আপাকে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যতদিন ক্ষমতায় থাকবে ততদিন মানুষ স্বাস্থ্যসেবা থেকে কেউ বঞ্চিত হবে না। আমরা তাঁরই নির্দেশে প্রত্যেকটি পাড়ায়-মহল্লায় ঘরে ঘরে গিয়ে আমরা সচেতনতা বৃদ্ধিতে কাজ করে যাচ্ছি। গণ টিকার কেন্দ্র সহযোগী আওলাদ খান সুপার মার্কেটের স্বত্বাধিকারী ও আওয়ামীলীগের স্থানীয় নেতা আওলাদ হোসেন খান বলেন জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিষণ ৪১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আমরা আওয়ামী লীগের কর্মী হয়ে কাজ করে যাচ্ছি এবং মানুষকে সচেতনতা বৃদ্ধি করে যাচ্ছি এবং গণটিকা কার্যক্রম আজ আমার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আমি নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে সুশৃংখল ভাবে মানুষকে সেবা দিতে পেরে আমি গর্বিত এবং ৫০ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জনাব আলহাজ্ব ডি. এম. শামীম কে ধন্যবাদ জানাচ্ছি তিনি আমাদের এলাকায় জনসাধারণের মাঝে ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি বা জন্ম নিবন্ধন বা মোবাইল নাম্বার দিয়ে টিকা দিতে পারে এমন একটি কার্যক্রম শুরু  করেছে তার জন্য তাকে জয়নাল  মার্কেটের এলাকা বাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি এবং আমাদের এই জয়নাল মার্কেট এলাকার জনসাধারণ  যারা এখনো করোনা টিকার আওতার বাইরে আছেন তারা চলে আসেন। আমি এলাকা বাসীকে ধন্যবাদ জানাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী  জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং জনপ্রিয় কাউন্সিলর জনাব আলহাজ্ব ডি. এম. শামীম  এর ডাকে সাড়াদানকারী স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য যারা টিকা গ্রহণ করছেন তিনি তাদেরকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।