১২:২৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

তাড়াশে সমলয় পদ্ধতিতে ধান চাষ কার্যক্রম উদ্বোধন

মোঃ হাসান আলী ( সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি )
আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্বল্প সময়ে অধিক ফসল উৎপাদনের লক্ষ্যে
সিরাজগঞ্জ তাড়াশ উপজেলার ২০২৩-২৪ অর্থবছরে রবি মৌসুমে কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় সমলয় চাষাবাদ প্রদর্শনীতে রাইস ট্রান্সপ্লান্টের মাধ্যমে বোরো (হাইব্রিড) ধানের চারা রোপণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে।
গতকাল শনিবার বেলা ১১ টার দিকে তাড়াশ উপজেলা কৃষি অফিসের আয়োজনে সগুনা ইউনিয়নের দিঘীসগুনা গ্রামে সমলয় চাষাবাদ পদ্ধতিতে ধানের চারা রোপনের উ‌দ্বোধন ক‌রেন সিরাজগঞ্জ-৩ আস‌নের সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল আ‌জিজ।
কৃষকদের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, বর্তমান কৃষক বান্ধব সরকার কৃষকদের কৃষি খাতে ব্যাপক ভর্তুকি দিচ্ছেন। কৃষি যন্ত্রপাতিতে ভর্তুকি, বীজ, সার সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভর্তুকি দিয়ে আসছেন। ধান সহ বিভিন্ন ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে সমলয় ভিত্তিতে চাষাবাদের কার্যক্রম গ্রহণ করেছেন। মানুষ বাড়লেও বাড়ছে না জমি, তাই স্বল্প জমিতে অধিক ফসল উৎপাদন করে নিরাপদ ও পুষ্টি খাদ্য চাহিদা পুরণ করতে হবে। তিনি আরও বলেন, রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে এক সাথে প্রদর্শনী ব্লকের  কৃষকদের যেমন সময় সাশ্রয় হবে অন্যদিকে কৃষকের উৎপাদন খরচও কম হবে এবং কৃষকেরা লাভবান হবেন। তাছাড়া বর্তমান সরকারের সময়োচিত পদক্ষেপের জন্য কৃষকগণ চাষাবাদে অনুপ্রানিত হচ্ছে বলে তিনি অভিমত ব্যাক্ত করেন। তিনি আরো বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের সোনার বাংলাদেশ গড়তে হলে, কৃষিই একমাত্র মাধ্যম। যে খানে গ্রাম বাংলার খেটে খাওয়া মেহনতী মানুষ ও কৃষক কৃষানী সকল প্রকার খাদ্য উৎপাদনে যে সাফাল্য জনক ভূমিকা রেখে চলছে তার সব কৃতজ্ঞতা বাংলার কৃষকদের। তিনি দেশের অধিক সংখ্যক জন মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা ও বার মাস কৃষি পণ্য উৎপাদনে দেশ আজ পৃথিবীর কাছে সমাদৃত।
এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী  অফিসার মোঃ খালিদ হাসান।  স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উপজেলা কৃষি অফিসার
আবদুল্লাহ আল মামুন। তিনি বলেন , রাইস প্লান্টার পদ্ধতি শ্রম,সময়,অর্থ সাশ্রয়ের একটি আধুনিক পদ্ধতি। যা কৃষিকে যান্ত্রিকিরণের একটি সময়োপযুগী মাধ্যম। এতে ফসলের মাঠের আন্ত:পরিচর্যা,চারার গুনগত মান ঠিক থাকে। ফলন বৃদ্ধি হয়। সরকার ভর্তুকির মাধ্যমে কৃষকদের ধানের চারা রোপনের জন্য রাইস প্লান্টার যন্ত্র ও ধান কাটার জন্য কম্বাইন হারভেস্টার মেশিনসহ কৃষির আধুনিক কৃষি যন্ত্র সরবরাহ করছেন। এলাকাতে প্রায় ৫০ একর জমিতে সমলয় পদ্ধতিতে হাইব্রিড তেজ গোল্ড  জাতে ধান চাষাবাদ করা হচ্ছে। অতিরিক্ত কৃষি অফিসার মোঃ আব্দুল মমিন এর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি তাড়াশ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মোঃ মনিরুজ্জামান, তাড়াশ পৌরসভার মেয়র মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, উপজেলা ভাইচ চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার হোসেন খান সগুনা  ইউপি চেয়ারম্যান মোঃজুলফিকার আলী ভুট্টো সগুনা ইউনিয়নের কুন্দইল ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি অফিসার তাজুল ইসলাম।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মাগুড়া বিনোদ ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মেহেদী হাসান ম্যাগনেট,তাড়াশ উপজেলার সকল উপসহকারী কৃষি অফিসার গন , এবং উপস্থিত ছিলেন গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ সমলয়ের আওতায় সকল এবং কৃষক, কৃষাণী সকল।
ট্যাগস :
আপডেট : ০৭:৪৩:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
১১৩ বার পড়া হয়েছে

তাড়াশে সমলয় পদ্ধতিতে ধান চাষ কার্যক্রম উদ্বোধন

আপডেট : ০৭:৪৩:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্বল্প সময়ে অধিক ফসল উৎপাদনের লক্ষ্যে
সিরাজগঞ্জ তাড়াশ উপজেলার ২০২৩-২৪ অর্থবছরে রবি মৌসুমে কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় সমলয় চাষাবাদ প্রদর্শনীতে রাইস ট্রান্সপ্লান্টের মাধ্যমে বোরো (হাইব্রিড) ধানের চারা রোপণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে।
গতকাল শনিবার বেলা ১১ টার দিকে তাড়াশ উপজেলা কৃষি অফিসের আয়োজনে সগুনা ইউনিয়নের দিঘীসগুনা গ্রামে সমলয় চাষাবাদ পদ্ধতিতে ধানের চারা রোপনের উ‌দ্বোধন ক‌রেন সিরাজগঞ্জ-৩ আস‌নের সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল আ‌জিজ।
কৃষকদের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, বর্তমান কৃষক বান্ধব সরকার কৃষকদের কৃষি খাতে ব্যাপক ভর্তুকি দিচ্ছেন। কৃষি যন্ত্রপাতিতে ভর্তুকি, বীজ, সার সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভর্তুকি দিয়ে আসছেন। ধান সহ বিভিন্ন ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে সমলয় ভিত্তিতে চাষাবাদের কার্যক্রম গ্রহণ করেছেন। মানুষ বাড়লেও বাড়ছে না জমি, তাই স্বল্প জমিতে অধিক ফসল উৎপাদন করে নিরাপদ ও পুষ্টি খাদ্য চাহিদা পুরণ করতে হবে। তিনি আরও বলেন, রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে এক সাথে প্রদর্শনী ব্লকের  কৃষকদের যেমন সময় সাশ্রয় হবে অন্যদিকে কৃষকের উৎপাদন খরচও কম হবে এবং কৃষকেরা লাভবান হবেন। তাছাড়া বর্তমান সরকারের সময়োচিত পদক্ষেপের জন্য কৃষকগণ চাষাবাদে অনুপ্রানিত হচ্ছে বলে তিনি অভিমত ব্যাক্ত করেন। তিনি আরো বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের সোনার বাংলাদেশ গড়তে হলে, কৃষিই একমাত্র মাধ্যম। যে খানে গ্রাম বাংলার খেটে খাওয়া মেহনতী মানুষ ও কৃষক কৃষানী সকল প্রকার খাদ্য উৎপাদনে যে সাফাল্য জনক ভূমিকা রেখে চলছে তার সব কৃতজ্ঞতা বাংলার কৃষকদের। তিনি দেশের অধিক সংখ্যক জন মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা ও বার মাস কৃষি পণ্য উৎপাদনে দেশ আজ পৃথিবীর কাছে সমাদৃত।
এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী  অফিসার মোঃ খালিদ হাসান।  স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উপজেলা কৃষি অফিসার
আবদুল্লাহ আল মামুন। তিনি বলেন , রাইস প্লান্টার পদ্ধতি শ্রম,সময়,অর্থ সাশ্রয়ের একটি আধুনিক পদ্ধতি। যা কৃষিকে যান্ত্রিকিরণের একটি সময়োপযুগী মাধ্যম। এতে ফসলের মাঠের আন্ত:পরিচর্যা,চারার গুনগত মান ঠিক থাকে। ফলন বৃদ্ধি হয়। সরকার ভর্তুকির মাধ্যমে কৃষকদের ধানের চারা রোপনের জন্য রাইস প্লান্টার যন্ত্র ও ধান কাটার জন্য কম্বাইন হারভেস্টার মেশিনসহ কৃষির আধুনিক কৃষি যন্ত্র সরবরাহ করছেন। এলাকাতে প্রায় ৫০ একর জমিতে সমলয় পদ্ধতিতে হাইব্রিড তেজ গোল্ড  জাতে ধান চাষাবাদ করা হচ্ছে। অতিরিক্ত কৃষি অফিসার মোঃ আব্দুল মমিন এর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি তাড়াশ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মোঃ মনিরুজ্জামান, তাড়াশ পৌরসভার মেয়র মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, উপজেলা ভাইচ চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার হোসেন খান সগুনা  ইউপি চেয়ারম্যান মোঃজুলফিকার আলী ভুট্টো সগুনা ইউনিয়নের কুন্দইল ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি অফিসার তাজুল ইসলাম।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মাগুড়া বিনোদ ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মেহেদী হাসান ম্যাগনেট,তাড়াশ উপজেলার সকল উপসহকারী কৃষি অফিসার গন , এবং উপস্থিত ছিলেন গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ সমলয়ের আওতায় সকল এবং কৃষক, কৃষাণী সকল।