১১:৫২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

নবীনগরে চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টা, থানায় অভিযোগ

নবীনগর উপজেলা প্রতিনিধি

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার পশ্চিম ইউনিয়নের লাপাং গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
গত বৃহস্পতিবার ভিকটিমের মা অভিযুক্ত তিন সন্তানের জনক খোকন মিয়া (৪৫) বিরুদ্ধে নবীনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, উপজেলার পশ্চিম ইউনিয়নের লাপাং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী স্কুল চলাকালীন অবস্থায় গত ১৫ই অক্টোবর দুপুরে ওই শিশু বিস্কুট কেনার জন্য দোকানে গেলে কৌশলে দোকানের ভিতরে নিয়ে দরজা আটকিয়ে পলিথিন দিয়ে দুহাত বেঁধে ফেলে। এই সময় শিশুটি কান্নার আওয়াজ শুনে একই গ্রামের নাসিমা ও কল্পনা বেগম দোকানে ঢোকার চেষ্টা করিলে দরজা খুলে দৌড়ে পালিয়ে যায়।
শিশুটির বাবা মনির হোসেন বলেন, আমি গরিব মানুষ চাষবাস করি, খোকন ক্ষমতাবান হওয়ায় বিভিন্ন অপকর্ম করছে। সে এর আগেও এরকম বহুৎ ঘটনা ঘটিয়েছিল।
এই বিষয়ে খোকন মিয়ার মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত খোকন মিয়ার বড় ভাই সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফিরোজ মিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তাদের সাথে জায়গা সংক্রান্ত জটিলতা রয়েছে, তবে আমার ছোট ভাই অপরাধী হলে অবশ্যই তার আইনিভাবে বিচার হওয়া উচিত।
এ বিষয়ে পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান নূরে আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে, এই বিষয়ে শিশুর মা বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব আলম বলেন, নবীনগর পশ্চিম ইউনিয়নের লাপাং গ্রামে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে থানায় মামলা হয়েছে। দ্রুত তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

ট্যাগস :
আপডেট : ০৯:৫২:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ অক্টোবর ২০২৩
৯৮ বার পড়া হয়েছে

নবীনগরে চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টা, থানায় অভিযোগ

আপডেট : ০৯:৫২:১১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ অক্টোবর ২০২৩

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার পশ্চিম ইউনিয়নের লাপাং গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
গত বৃহস্পতিবার ভিকটিমের মা অভিযুক্ত তিন সন্তানের জনক খোকন মিয়া (৪৫) বিরুদ্ধে নবীনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, উপজেলার পশ্চিম ইউনিয়নের লাপাং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী স্কুল চলাকালীন অবস্থায় গত ১৫ই অক্টোবর দুপুরে ওই শিশু বিস্কুট কেনার জন্য দোকানে গেলে কৌশলে দোকানের ভিতরে নিয়ে দরজা আটকিয়ে পলিথিন দিয়ে দুহাত বেঁধে ফেলে। এই সময় শিশুটি কান্নার আওয়াজ শুনে একই গ্রামের নাসিমা ও কল্পনা বেগম দোকানে ঢোকার চেষ্টা করিলে দরজা খুলে দৌড়ে পালিয়ে যায়।
শিশুটির বাবা মনির হোসেন বলেন, আমি গরিব মানুষ চাষবাস করি, খোকন ক্ষমতাবান হওয়ায় বিভিন্ন অপকর্ম করছে। সে এর আগেও এরকম বহুৎ ঘটনা ঘটিয়েছিল।
এই বিষয়ে খোকন মিয়ার মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত খোকন মিয়ার বড় ভাই সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফিরোজ মিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, তাদের সাথে জায়গা সংক্রান্ত জটিলতা রয়েছে, তবে আমার ছোট ভাই অপরাধী হলে অবশ্যই তার আইনিভাবে বিচার হওয়া উচিত।
এ বিষয়ে পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান নূরে আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে, এই বিষয়ে শিশুর মা বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব আলম বলেন, নবীনগর পশ্চিম ইউনিয়নের লাপাং গ্রামে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে থানায় মামলা হয়েছে। দ্রুত তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।