০৮:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

নাটোর ৪ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী কে এম জাকির

নাটোর জেলা প্রতিনিধি:
৬১ নাটোরে ৪ বড়াইগ্রাম ও গুরদাসপুরে দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচন কে কেন্দ্র করে প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন তিন তিনবার নির্বাচিত মেয়র কে এম জাকির হোসেন।তিনি আগামী  দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে নাটোর ৪ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী।
গত সোমবার,আওয়ামী লীগ , যুবলীগ,ছাত্রলীগ  এবং  স্বেচ্ছাসেবক লীগ যোগসাজশে সকাল ১১ টা থেকে নাটোরের বড়াইগ্রামের  ৪ হাজার এর ও বেশি মোটরসাইকেল নিয়ে  বিশাল শো ডাউন  ও পথসভা শুরু করেন।  বনপাড়া পৌরসভা হতে রাজ্জাক মোড়, নয়াবাজার, কাঁচি কাঁটা, চাচঁকৈড়  বাজার, গুরুদাসপুর উপজেলা, নাজিরপুর বাজার,মহারাজপুর,চাপিলা,শাহিবাজার ওআহম্মেদপুর   হয়ে  এই মোটরসাইকেল শোডাউন ও পথসভা শেষ করেন।কে এম  জাকির বলেন জামাত-বিএনপির অবরোধ জ্বালাও পুরাও এর প্রতিবাদে  আওয়ামী লীগ মাঠে আছে থাকবেন প্রয়োজনে যদি আমার জীবন চলে যায় এই অবরোধকে প্রতিরোধ করেই ছাড়বো। তিনি আরো বলেন গত ২৮ অক্টোবর পুলিশ কনস্টেবল পারভেজকে বিএনপি জামাত নৃশংস ভাবে  হত্যা করেছে। আমরা এই বিএনপির জামাত এর অবরোধ প্রতিরোধ করার জন্য এই মোটর সাইকেল ও পথসভার আয়োজন করেছি। তিনি আরো বলেন আমার পরিবার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জন্য আমাকে উৎসর্গ করে দিয়েছেন। আমি দলের জন্য রাজনৈতিক জীবনে অনেক নির্যাতনের শিকার হয়েছি।আমার বাবাকে আওয়ামী লীগের জন্য প্রাণ দিতে হয়েছে।আমি আমার বাবার কবরে একমুটো মাটি দিতে পারি নাই। তিনি আরো বলেন আমি নির্যাতিত গুরুদাসপুর ও বড়াইগ্রামের আওয়ামী লীগের সকল ত্যাগী নেতা কর্মী পাশে আছি থাকবো।আমি আগামী নাটোর ৪ আসনের বড়াইগ্রাম ও গুরুদাসপুর মনোনয়ন পেলে বিপুল ভোটে জয়ী হবো।স্থানীয় উপজেলা আওয়ামী লীগের অনেক নেতা কর্মীরা বলেছেন কেএম জাকির  বিরোধীদলীয় অনেক  মামলায় জেল খেটেছিলেন। বাবাকে হারিয়েছেন এমন একজন ত্যাগী নেতাকে আমরা গুরুদাসপুর বড়াই গ্রামের এমপি হিসেবে দেখতে চাই।এবং আমরা আপামর জনতা কেএম জাকিরকে যদি মনোনয়ন দেন আমরা  তাকে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে  মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কে নাটোর ৪ আসন উপহার দিবো।
ট্যাগস :
আপডেট : ১১:৩৪:১০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩
৯২ বার পড়া হয়েছে

নাটোর ৪ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী কে এম জাকির

আপডেট : ১১:৩৪:১০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩
৬১ নাটোরে ৪ বড়াইগ্রাম ও গুরদাসপুরে দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচন কে কেন্দ্র করে প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন তিন তিনবার নির্বাচিত মেয়র কে এম জাকির হোসেন।তিনি আগামী  দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে নাটোর ৪ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী।
গত সোমবার,আওয়ামী লীগ , যুবলীগ,ছাত্রলীগ  এবং  স্বেচ্ছাসেবক লীগ যোগসাজশে সকাল ১১ টা থেকে নাটোরের বড়াইগ্রামের  ৪ হাজার এর ও বেশি মোটরসাইকেল নিয়ে  বিশাল শো ডাউন  ও পথসভা শুরু করেন।  বনপাড়া পৌরসভা হতে রাজ্জাক মোড়, নয়াবাজার, কাঁচি কাঁটা, চাচঁকৈড়  বাজার, গুরুদাসপুর উপজেলা, নাজিরপুর বাজার,মহারাজপুর,চাপিলা,শাহিবাজার ওআহম্মেদপুর   হয়ে  এই মোটরসাইকেল শোডাউন ও পথসভা শেষ করেন।কে এম  জাকির বলেন জামাত-বিএনপির অবরোধ জ্বালাও পুরাও এর প্রতিবাদে  আওয়ামী লীগ মাঠে আছে থাকবেন প্রয়োজনে যদি আমার জীবন চলে যায় এই অবরোধকে প্রতিরোধ করেই ছাড়বো। তিনি আরো বলেন গত ২৮ অক্টোবর পুলিশ কনস্টেবল পারভেজকে বিএনপি জামাত নৃশংস ভাবে  হত্যা করেছে। আমরা এই বিএনপির জামাত এর অবরোধ প্রতিরোধ করার জন্য এই মোটর সাইকেল ও পথসভার আয়োজন করেছি। তিনি আরো বলেন আমার পরিবার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জন্য আমাকে উৎসর্গ করে দিয়েছেন। আমি দলের জন্য রাজনৈতিক জীবনে অনেক নির্যাতনের শিকার হয়েছি।আমার বাবাকে আওয়ামী লীগের জন্য প্রাণ দিতে হয়েছে।আমি আমার বাবার কবরে একমুটো মাটি দিতে পারি নাই। তিনি আরো বলেন আমি নির্যাতিত গুরুদাসপুর ও বড়াইগ্রামের আওয়ামী লীগের সকল ত্যাগী নেতা কর্মী পাশে আছি থাকবো।আমি আগামী নাটোর ৪ আসনের বড়াইগ্রাম ও গুরুদাসপুর মনোনয়ন পেলে বিপুল ভোটে জয়ী হবো।স্থানীয় উপজেলা আওয়ামী লীগের অনেক নেতা কর্মীরা বলেছেন কেএম জাকির  বিরোধীদলীয় অনেক  মামলায় জেল খেটেছিলেন। বাবাকে হারিয়েছেন এমন একজন ত্যাগী নেতাকে আমরা গুরুদাসপুর বড়াই গ্রামের এমপি হিসেবে দেখতে চাই।এবং আমরা আপামর জনতা কেএম জাকিরকে যদি মনোনয়ন দেন আমরা  তাকে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে  মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কে নাটোর ৪ আসন উপহার দিবো।