১২:১০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

নীলফামারীতে দেশীগাভী জন্মদিল দুইটি বাছুর, পরিবার ভীষণ খুশি

প্রতিনিধির নাম
নীলফামারীতে দেশী গাভী দুইটি বাছুর জন্ম দেওয়ায় পরিবার ব্যাপক খুশি।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় নীলফামারীর সদর পলাশবাড়ী ইউনিয়ন তরনিবাড়ী গ্রামের চওড়া স্কুল এন্ড কলেজ (ডিমোনেস্টের) অরবিন্দু চন্দ্র রায়ের ছেলে অর্নব। তাদের পরিবারে বইছে এখন ক্ষুশির বন্যা। ইতি পূর্বে তার দাদুর এক গাভী প্রতি বছর একটি করে বাছুর জন্ম দিত। দাদু ক্ষিতিশ চন্দ্র রায় অর্নব এর অন্নপ্রাশনের দিনে অর্নবকে তার দাদু গাভীটি সম্প্রদান করে। সেই থেকে অর্নব এর পরিবার পরম যত্নে গাভীটিকে লালন পালন করে আসিতেছিল।দেশী সার দিয়ে গাভীটিকে প্রজনন করায়। গত ৬ ই ফেব্রুয়ারী রবিবার দিবাগত রাতে,সাদা রংগের দুইটি বাচ্চি গরু জন্ম দেয়,গাভী ও বাছুর এখন সমুর্ন সুস্থ আছে। বিশ বৎসর ধরে অর্নবদের
পরিবার গাভীটি লালন পালন করে আসছে। গাভীটি প্রতিদিন তিন কেজি করে দুধ দিত। এবারে দুইটি বাছুর জন্ম দেয়ায়,দুধ বিক্রয় করতে পারছে না তারা। এই গাভী থেকে এক হতে দুবার বাছুর নেয়া যেতে পারে বয়স ২২ বছরের মত, জানান অর্নবের দাদু। বাছুর ও  গাভীটিকে দেখতে প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক উৎসুক জনতা তাদের বাড়িতে ভির করছে। গাভীর খাওয়া থেকে শুরু করে, লালন,পালন, প্রজনন সহ মানুষ বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করছে। নীলফামারী সদর প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম এর সাথে এ বিষয়ে কথা হলে তিনি জানান জেনেটিক কারনে একটি গাভী এক,দুই, তিনটা পর্যন্ত বাছুর জন্মদিতে পাড়ে। তবে ব্যপক হারে নয়।
ট্যাগস :
আপডেট : ০৫:৩৭:৩৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২২
১৫৩ বার পড়া হয়েছে

নীলফামারীতে দেশীগাভী জন্মদিল দুইটি বাছুর, পরিবার ভীষণ খুশি

আপডেট : ০৫:৩৭:৩৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২২
নীলফামারীতে দেশী গাভী দুইটি বাছুর জন্ম দেওয়ায় পরিবার ব্যাপক খুশি।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায় নীলফামারীর সদর পলাশবাড়ী ইউনিয়ন তরনিবাড়ী গ্রামের চওড়া স্কুল এন্ড কলেজ (ডিমোনেস্টের) অরবিন্দু চন্দ্র রায়ের ছেলে অর্নব। তাদের পরিবারে বইছে এখন ক্ষুশির বন্যা। ইতি পূর্বে তার দাদুর এক গাভী প্রতি বছর একটি করে বাছুর জন্ম দিত। দাদু ক্ষিতিশ চন্দ্র রায় অর্নব এর অন্নপ্রাশনের দিনে অর্নবকে তার দাদু গাভীটি সম্প্রদান করে। সেই থেকে অর্নব এর পরিবার পরম যত্নে গাভীটিকে লালন পালন করে আসিতেছিল।দেশী সার দিয়ে গাভীটিকে প্রজনন করায়। গত ৬ ই ফেব্রুয়ারী রবিবার দিবাগত রাতে,সাদা রংগের দুইটি বাচ্চি গরু জন্ম দেয়,গাভী ও বাছুর এখন সমুর্ন সুস্থ আছে। বিশ বৎসর ধরে অর্নবদের
পরিবার গাভীটি লালন পালন করে আসছে। গাভীটি প্রতিদিন তিন কেজি করে দুধ দিত। এবারে দুইটি বাছুর জন্ম দেয়ায়,দুধ বিক্রয় করতে পারছে না তারা। এই গাভী থেকে এক হতে দুবার বাছুর নেয়া যেতে পারে বয়স ২২ বছরের মত, জানান অর্নবের দাদু। বাছুর ও  গাভীটিকে দেখতে প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক উৎসুক জনতা তাদের বাড়িতে ভির করছে। গাভীর খাওয়া থেকে শুরু করে, লালন,পালন, প্রজনন সহ মানুষ বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করছে। নীলফামারী সদর প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম এর সাথে এ বিষয়ে কথা হলে তিনি জানান জেনেটিক কারনে একটি গাভী এক,দুই, তিনটা পর্যন্ত বাছুর জন্মদিতে পাড়ে। তবে ব্যপক হারে নয়।