০৫:৪২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

নেহালপুর বাসুদেব যোগাশ্রমে পাঁচশত অনাথ শিশুদের আলোর পথ দেখাচ্ছে বিপ্লব চৈতন্য ব্রহ্মচারী

রতন বড়ুয়া, চট্টগ্রাম

বাসুদেব অনাথ আশ্রম ও বাসুদেব যোগাশ্রমের শ্রীমৎ বিপ্লব চৈতন্য ব্রহ্মচারী মহারাজের ৫২ তম শুভ আবির্ভাব উপলক্ষে ২ও ৩ নভেম্বর বৃহস্পতি ও শুক্রবার শ্রীশ্রী বাসুদেব যোগাশ্রম ও শ্রীশ্রী বাসুদেব অনাথ আশ্রম প্রাঙ্গণে দু’দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে সমাপনী দিনে ছিল ব্রাহ্মমুহূর্তে মঙ্গলারতি, গুরু বন্দনা, হরিনাম সংকীর্তন, ধ্যান, শ্রীশ্রী চণ্ডীপাঠ, মাতৃ বন্দনা, সমাধিস্নান, গুরু পূজা, সাধু ভাণ্ডার, অন্নপ্রসাদ আস্বাদন, গুরুস্নান, সাধু সম্মেলন, সন্ন্যাসীদের মাল্যদান ও শ্রদ্ধার্ঘ্য দান, বস্ত্র বিতরণ, বিশ্বশান্তি শ্রীশ্রী গীতাযজ্ঞ, মহতী ধর্মসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
মহতি ধর্মসভায় সভাপতিত্ব করেন শ্রীশ্রী বাসুদেব যোগাশ্রম ও শ্রীশ্রী বাসুদেব অনাথ আশ্রমের পরম পূজ্যপাদ অধ্যক্ষ শ্রীমৎ বিপ্লব চৈতন্য ব্রহ্মচারী মহারাজ। অনুষ্ঠানের শুরুতে গীতা পাঠ করেন এডভোকেট সৌমিত্র ভট্টাচার্য জয়। মহান আশীর্বাদক ছিলেন ভারত হতে আগত উত্তরাখণ্ড ঋষিকেশের যোগ-বেদান্তচার্য শ্রীমৎ স্বামী নিত্যানন্দ গিরি মহারাজ। প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম – ৫ হাটহাজারী আসনের সাংসদ ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এম পি। সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম ১০ হালিশহর আসনের সাংসদ আলহাজ্ব মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বাচ্চু এমপি। প্রধান ধর্মীয় বক্তা ছিলেন হাটহাজারী শ্রীশ্রী পুণ্ডরীক ধামের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ চিন্ময় কৃষ্ণ দাস ব্রহ্মচারী। মুখ্য আলোচক ছিলেন অদুল- অনিতা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান দানবীর অদুল কান্তি চৌধুরী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আশ্রমের একনিষ্ঠ ভক্ত শ্যামল কান্তি দে । বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতারের বাচিক শিল্পী রণধীর দে ও শান্তা সেন গুপ্তার যৌথ সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ খাদ্য অধিদপ্তর ঢাকার সংরক্ষণাগার শেখর চন্দ্র মল্লিক, সমাজহিতৈষী প্রণব সাহা বাবলু, ভারত হতে আগত উত্তরাখন্ড হরিদ্বার ওমকার আশ্রমের মহারাজ শ্রীমৎ স্বামী নির্বানানন্দ সরস্বতী, চট্টগ্রাম বোয়ালখালী গোমগন্ডী যোগাশ্রমের উপাধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী ছত্রেশ্বরানন্দ সরস্বতী মহারাজ, হাটহাজারীর এসি ল্যাণ্ড আবু রায়হান, বাস মালিক সমিতির সভাপতি মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী, বাসুদেব স্কুল এণ্ড কলেজের ভূমি দাতা পলি বিশ্বাস, ইউপি মহিলা সদস্যা ইশরাত সাহেরা প্রমূখ।
বক্তারা বলেন – মানবতার ধর্মই অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো, মানব সেবাই সৃষ্টিকর্তার সেবা করা হয়।
নেহালপুর বাসুদেব যোগাশ্রমে পাঁচশত অনাথ শিশুদের আলোর পথ দেখাচ্ছে শ্রীমৎ স্বামী বিপ্লব চৈতন্য ব্রহ্মচারী।
দু’দিনব্যাপী সংগীতাঞ্জলী অনুষ্ঠান চট্টগ্রাম জেলা জজ আদালতে আইনজীবী এড. সৌমিত্র ভট্টাচার্য জয় সঞ্চালনায় সংগীত পরিবেশনায় করেন ঢাকা হতে আগত টিভি ও বেতারের বিশিষ্ট বাউল কণ্ঠ শিল্পী সাগর বাউল, পাহাড়ী নৃত্য পরিবেশনায় ছিলেন খাগড়াছড়ি পাবর্ত্য জেলা হতে আগত য়াড়ং শিল্পী গোষ্ঠী, পাহাড়ি নৃত্য পরিচালনায় ছিলেন নৃত্যশিল্পী ধিনা ত্রিপুরা। ভজন সংগীত পরিবেশন করেন অমিত সেন গুপ্ত, গীতিনৃত্য নাট্য “দেবদেবীর আরাধনা” পরিবেশনায় সুরাঙ্গন বিদ্যাপীঠ পরিচালনায় হিল্লোল দাশ সুমন, একক সংগীত পরিবেশন করেন গ্রাম বাংলার জনপ্রিয় কণ্ঠ শিল্পী বাবলি সরকার, পাল্টা কীর্তন পরিবেশন করেন বিষ্ণুপদ ও সঞ্চয় গাণ্ডী দাশ, বাসুদেব অনাথ আশ্রমের ছাত্রদের দলীয় তবলা বাদন পরিবেশনা হয়, পরিচালনায় ঝুমকা তবলা প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ পার্থ দাশ রিপন। উক্ত অনুষ্ঠানে দেশ বিদেশের বিভিন্ন মঠ ও মিশনের সাধু-সন্ন্যাসী, ব্রহ্মচারী, ঋষি মহাত্মা-মহারাজবৃন্দ, রাষ্ট্রীয় অতিথি ও ধর্মীয় আলোচকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। দু’দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে বহু দূর- দূরান্ত হতে অনেক ভক্তের সমাগম ঘটে ।

ট্যাগস :
আপডেট : ০৭:১২:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩
২১২ বার পড়া হয়েছে

নেহালপুর বাসুদেব যোগাশ্রমে পাঁচশত অনাথ শিশুদের আলোর পথ দেখাচ্ছে বিপ্লব চৈতন্য ব্রহ্মচারী

আপডেট : ০৭:১২:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩

বাসুদেব অনাথ আশ্রম ও বাসুদেব যোগাশ্রমের শ্রীমৎ বিপ্লব চৈতন্য ব্রহ্মচারী মহারাজের ৫২ তম শুভ আবির্ভাব উপলক্ষে ২ও ৩ নভেম্বর বৃহস্পতি ও শুক্রবার শ্রীশ্রী বাসুদেব যোগাশ্রম ও শ্রীশ্রী বাসুদেব অনাথ আশ্রম প্রাঙ্গণে দু’দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে সমাপনী দিনে ছিল ব্রাহ্মমুহূর্তে মঙ্গলারতি, গুরু বন্দনা, হরিনাম সংকীর্তন, ধ্যান, শ্রীশ্রী চণ্ডীপাঠ, মাতৃ বন্দনা, সমাধিস্নান, গুরু পূজা, সাধু ভাণ্ডার, অন্নপ্রসাদ আস্বাদন, গুরুস্নান, সাধু সম্মেলন, সন্ন্যাসীদের মাল্যদান ও শ্রদ্ধার্ঘ্য দান, বস্ত্র বিতরণ, বিশ্বশান্তি শ্রীশ্রী গীতাযজ্ঞ, মহতী ধর্মসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
মহতি ধর্মসভায় সভাপতিত্ব করেন শ্রীশ্রী বাসুদেব যোগাশ্রম ও শ্রীশ্রী বাসুদেব অনাথ আশ্রমের পরম পূজ্যপাদ অধ্যক্ষ শ্রীমৎ বিপ্লব চৈতন্য ব্রহ্মচারী মহারাজ। অনুষ্ঠানের শুরুতে গীতা পাঠ করেন এডভোকেট সৌমিত্র ভট্টাচার্য জয়। মহান আশীর্বাদক ছিলেন ভারত হতে আগত উত্তরাখণ্ড ঋষিকেশের যোগ-বেদান্তচার্য শ্রীমৎ স্বামী নিত্যানন্দ গিরি মহারাজ। প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম – ৫ হাটহাজারী আসনের সাংসদ ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এম পি। সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম ১০ হালিশহর আসনের সাংসদ আলহাজ্ব মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বাচ্চু এমপি। প্রধান ধর্মীয় বক্তা ছিলেন হাটহাজারী শ্রীশ্রী পুণ্ডরীক ধামের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ চিন্ময় কৃষ্ণ দাস ব্রহ্মচারী। মুখ্য আলোচক ছিলেন অদুল- অনিতা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান দানবীর অদুল কান্তি চৌধুরী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আশ্রমের একনিষ্ঠ ভক্ত শ্যামল কান্তি দে । বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতারের বাচিক শিল্পী রণধীর দে ও শান্তা সেন গুপ্তার যৌথ সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ খাদ্য অধিদপ্তর ঢাকার সংরক্ষণাগার শেখর চন্দ্র মল্লিক, সমাজহিতৈষী প্রণব সাহা বাবলু, ভারত হতে আগত উত্তরাখন্ড হরিদ্বার ওমকার আশ্রমের মহারাজ শ্রীমৎ স্বামী নির্বানানন্দ সরস্বতী, চট্টগ্রাম বোয়ালখালী গোমগন্ডী যোগাশ্রমের উপাধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী ছত্রেশ্বরানন্দ সরস্বতী মহারাজ, হাটহাজারীর এসি ল্যাণ্ড আবু রায়হান, বাস মালিক সমিতির সভাপতি মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী, বাসুদেব স্কুল এণ্ড কলেজের ভূমি দাতা পলি বিশ্বাস, ইউপি মহিলা সদস্যা ইশরাত সাহেরা প্রমূখ।
বক্তারা বলেন – মানবতার ধর্মই অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো, মানব সেবাই সৃষ্টিকর্তার সেবা করা হয়।
নেহালপুর বাসুদেব যোগাশ্রমে পাঁচশত অনাথ শিশুদের আলোর পথ দেখাচ্ছে শ্রীমৎ স্বামী বিপ্লব চৈতন্য ব্রহ্মচারী।
দু’দিনব্যাপী সংগীতাঞ্জলী অনুষ্ঠান চট্টগ্রাম জেলা জজ আদালতে আইনজীবী এড. সৌমিত্র ভট্টাচার্য জয় সঞ্চালনায় সংগীত পরিবেশনায় করেন ঢাকা হতে আগত টিভি ও বেতারের বিশিষ্ট বাউল কণ্ঠ শিল্পী সাগর বাউল, পাহাড়ী নৃত্য পরিবেশনায় ছিলেন খাগড়াছড়ি পাবর্ত্য জেলা হতে আগত য়াড়ং শিল্পী গোষ্ঠী, পাহাড়ি নৃত্য পরিচালনায় ছিলেন নৃত্যশিল্পী ধিনা ত্রিপুরা। ভজন সংগীত পরিবেশন করেন অমিত সেন গুপ্ত, গীতিনৃত্য নাট্য “দেবদেবীর আরাধনা” পরিবেশনায় সুরাঙ্গন বিদ্যাপীঠ পরিচালনায় হিল্লোল দাশ সুমন, একক সংগীত পরিবেশন করেন গ্রাম বাংলার জনপ্রিয় কণ্ঠ শিল্পী বাবলি সরকার, পাল্টা কীর্তন পরিবেশন করেন বিষ্ণুপদ ও সঞ্চয় গাণ্ডী দাশ, বাসুদেব অনাথ আশ্রমের ছাত্রদের দলীয় তবলা বাদন পরিবেশনা হয়, পরিচালনায় ঝুমকা তবলা প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ পার্থ দাশ রিপন। উক্ত অনুষ্ঠানে দেশ বিদেশের বিভিন্ন মঠ ও মিশনের সাধু-সন্ন্যাসী, ব্রহ্মচারী, ঋষি মহাত্মা-মহারাজবৃন্দ, রাষ্ট্রীয় অতিথি ও ধর্মীয় আলোচকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। দু’দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে বহু দূর- দূরান্ত হতে অনেক ভক্তের সমাগম ঘটে ।