০৮:৫০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

ফুলপুরে জমজমাট কোচিং বাণিজ্য পরিদর্শনের কেউ নেই

প্রতিনিধির নাম

ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার ফুলপুর পৌর এলাকার৩ নং ওয়ার্ড সাহাপুর মৌজার মোসলেম উদ্দিনের ছেলে আরিফুল ইসলাম আরিফ মরণঘাতী করোনার সংক্রমনের সময় বিধি নিষেধ অমান্য করে দেদারসে প্রায় শতাধিক স্কুল ছাত্র ছাত্রী নিয়ে জমজমাট কৌচিং বাণিজ্য করে যাচ্ছে। তিনি দীর্ঘদিন যাবত সাহাপুর বাজারে আলোর দিশারী একটি কিন্ডার গার্টেন স্কুল পরিচালনা করে আসছে। সরকার দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ধাপে ধাপে অদ্যবধি পর্যন্ত শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করেছেন।কিন্তু এই আরিফ সরকারি নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে বেআইনিভাবে শতশত ছাত্র ছাত্রীদের একত্রিত করে কোচিং বাণিজ্য করে যাচ্ছে। উল্লেখ্য গত বছরের করোণা ভাইরাসের সংক্রমণের সময় ভাইটকান্দী সহলা মোড়ে  একটি কোচিং  ক্লাস পরিচালনা করার সময় নির্বাহী  ম্যাজিঃ গঠিত মোবাইল কোট তাকে আটক করে  জেল হাজতে প্রেরণ করে।তাছাড়া সাহাপুর বাজারে মোসলেম উদ্দিনের ভবনটি  ফুলপুর পৌরসভার কোন অনুমোদন নেই। দু শতক জমির উপর ভবণটির নিজ তলায় সার বিষ সহ বিভিন্ন কীটনাশকের দোকান রয়েছে যা কোমলমতি শিশুদের জন্য  মারাত্মক ক্ষতিকর।  সাহাপুর বাজারে  অসংখ্য লোকজন বলেন, এ ভবনটি  যেহেতু  কোন পৌরসভার  বিল্ডিং কোড মানা হয়নি যে কোন সময় ভবণটি ধসে পরে প্রান নাশের মারাত্মক ঝুঁকি রয়েছে। সরকারের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয় এই অবৈধ বন্ধ ঘোষণা করবে বলে ফুলপুরের অভিজ্ঞ মহল মনে করেন।

ট্যাগস :
আপডেট : ০৩:০৮:৫৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২
৪৪১ বার পড়া হয়েছে

ফুলপুরে জমজমাট কোচিং বাণিজ্য পরিদর্শনের কেউ নেই

আপডেট : ০৩:০৮:৫৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২

ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার ফুলপুর পৌর এলাকার৩ নং ওয়ার্ড সাহাপুর মৌজার মোসলেম উদ্দিনের ছেলে আরিফুল ইসলাম আরিফ মরণঘাতী করোনার সংক্রমনের সময় বিধি নিষেধ অমান্য করে দেদারসে প্রায় শতাধিক স্কুল ছাত্র ছাত্রী নিয়ে জমজমাট কৌচিং বাণিজ্য করে যাচ্ছে। তিনি দীর্ঘদিন যাবত সাহাপুর বাজারে আলোর দিশারী একটি কিন্ডার গার্টেন স্কুল পরিচালনা করে আসছে। সরকার দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ধাপে ধাপে অদ্যবধি পর্যন্ত শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করেছেন।কিন্তু এই আরিফ সরকারি নির্দেশনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে বেআইনিভাবে শতশত ছাত্র ছাত্রীদের একত্রিত করে কোচিং বাণিজ্য করে যাচ্ছে। উল্লেখ্য গত বছরের করোণা ভাইরাসের সংক্রমণের সময় ভাইটকান্দী সহলা মোড়ে  একটি কোচিং  ক্লাস পরিচালনা করার সময় নির্বাহী  ম্যাজিঃ গঠিত মোবাইল কোট তাকে আটক করে  জেল হাজতে প্রেরণ করে।তাছাড়া সাহাপুর বাজারে মোসলেম উদ্দিনের ভবনটি  ফুলপুর পৌরসভার কোন অনুমোদন নেই। দু শতক জমির উপর ভবণটির নিজ তলায় সার বিষ সহ বিভিন্ন কীটনাশকের দোকান রয়েছে যা কোমলমতি শিশুদের জন্য  মারাত্মক ক্ষতিকর।  সাহাপুর বাজারে  অসংখ্য লোকজন বলেন, এ ভবনটি  যেহেতু  কোন পৌরসভার  বিল্ডিং কোড মানা হয়নি যে কোন সময় ভবণটি ধসে পরে প্রান নাশের মারাত্মক ঝুঁকি রয়েছে। সরকারের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয় এই অবৈধ বন্ধ ঘোষণা করবে বলে ফুলপুরের অভিজ্ঞ মহল মনে করেন।