১১:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

বালিয়াকান্দিতে গরীবের স্বনামধন্য ডাক্তার তোজাম্মেল হোসেন

প্রতিনিধির নাম
ডাঃ তোজাম্মেল হোসেন রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলা সদরের একজন স্বনামধন্য গরীবের  ডাক্তার হিসাবে পরিচিত লাভ করেছেন। যিনি তার ব্যতিক্রমী  অনুশীলন ও দরিদ্রদের মাঝে সাশ্রয়ী স্বাস্থ্যসেবা চালু করার জন্য পরিচিত। চিকিৎসা ক্ষেত্রে তার অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা ডাঃ সম্প্রদায়ের মাঝে, তার নামটি করে তুলেছে বিশ্বস্ত । আমরা বেশ কয়েকবার তার চেম্বারে  গিয়েছি এবং তার রোগীদের সাথে একান্তে কথা বলেছি।  সবারই পছন্দের তালিকায় পাওয়া গেলো ডাঃ তোজাম্মেল হোসেন । তার কথা বলার চমৎকার ব্যবহারের কারনেই তার এই অবস্থান।  সবার ভরসার যায়গায় যে তিনি চলে গিয়েছেন সেটা প্রাথমিকভাবেই আমাদের নজরে এলো।  তার প্রতিভা এবং মনোযোগী দৃষ্টিভঙ্গির কারণে,  একজন আস্থাভাজন ডাক্তার হয়ে উঠেছেন।
 তিনি দরিদ্র এবং দরিদ্রদের সেবা করার জন্য নিবেদিত। যারা চিকিৎসা সেবা বহন করতে পারে না তাদের নামমাত্র এমনকি সম্পূর্ণ বিনামূল্যেও সেবা প্রদান করেন তিনি। এমনি কথা আমরা তার চেম্বারে আসা ও অনেক গরীব রোগীদের মাধ্যমে জানতে পারি যে, প্রতিদিনই তিনি যা রোগী দেখেন তার অর্ধেকেরও বেশী বিনামূল্যে।   চিকিৎসা ক্ষেত্রে ডাঃ তোজাম্মেল হোসেনের অবদান সত্যিই প্রশংসনীয়। দরিদ্রদের সাশ্রয়ী মূল্যের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের জন্য তার প্রতিশ্রুতি, তার সদয় হৃদয় এবং নিঃস্বার্থ মনোভাবের প্রতিফলন। বালিয়াকান্দির জনগণ সৌভাগ্যবান যে তাদের সমাজে এমন একজন দক্ষ ও সহানুভূতিশীল ডাক্তার রয়েছে।
তিনি জানান, ১৯৭৫ সালে এস এস সি পাশ করার পর ফরিদপুর মেডিক্যাল এ্যাসিষ্টেন্ট (ডিএমও) প্রথম ব্যাজের ছাত্র ছিলাম। সেখান থেকে ভালো রেজাল্ট নিয়ে ১৯৭৯ সালে উপ-সহকারী কমিউনিটি  মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে বালিয়াকান্দি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদান করি। একটানা ৩৬ বছর সরকারি চাকুরী করার পর ২০১৫ সালের দিকে অবসর গ্রহণ করেন। তিনি বর্তমানে বালিয়াকান্দি টেম্পু স্ট্যান্ড মসজিদ সংলগ্ন নিজ বাসভবন  চেম্বারে সকাল ৮ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত রোগী দেখছেন। তিনি ব্যাক্তি জীবনে  দুই পুত্র সন্তানের জনক, তার জৈষ্ঠ্য পুত্র আশিকুর রহমান বিএসসি ইঞ্জিনিয়ার এবং কনিষ্ঠ পুত্র মাহবুবুর রহমান বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে ক্যাপ্টেন পদে মিলিটারি একাডেমি চট্টগ্রামে  কর্মরত রয়েছেন।
ট্যাগস :
আপডেট : ০৪:৪৫:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মার্চ ২০২৩
১০৯ বার পড়া হয়েছে

বালিয়াকান্দিতে গরীবের স্বনামধন্য ডাক্তার তোজাম্মেল হোসেন

আপডেট : ০৪:৪৫:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মার্চ ২০২৩
ডাঃ তোজাম্মেল হোসেন রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলা সদরের একজন স্বনামধন্য গরীবের  ডাক্তার হিসাবে পরিচিত লাভ করেছেন। যিনি তার ব্যতিক্রমী  অনুশীলন ও দরিদ্রদের মাঝে সাশ্রয়ী স্বাস্থ্যসেবা চালু করার জন্য পরিচিত। চিকিৎসা ক্ষেত্রে তার অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা ডাঃ সম্প্রদায়ের মাঝে, তার নামটি করে তুলেছে বিশ্বস্ত । আমরা বেশ কয়েকবার তার চেম্বারে  গিয়েছি এবং তার রোগীদের সাথে একান্তে কথা বলেছি।  সবারই পছন্দের তালিকায় পাওয়া গেলো ডাঃ তোজাম্মেল হোসেন । তার কথা বলার চমৎকার ব্যবহারের কারনেই তার এই অবস্থান।  সবার ভরসার যায়গায় যে তিনি চলে গিয়েছেন সেটা প্রাথমিকভাবেই আমাদের নজরে এলো।  তার প্রতিভা এবং মনোযোগী দৃষ্টিভঙ্গির কারণে,  একজন আস্থাভাজন ডাক্তার হয়ে উঠেছেন।
 তিনি দরিদ্র এবং দরিদ্রদের সেবা করার জন্য নিবেদিত। যারা চিকিৎসা সেবা বহন করতে পারে না তাদের নামমাত্র এমনকি সম্পূর্ণ বিনামূল্যেও সেবা প্রদান করেন তিনি। এমনি কথা আমরা তার চেম্বারে আসা ও অনেক গরীব রোগীদের মাধ্যমে জানতে পারি যে, প্রতিদিনই তিনি যা রোগী দেখেন তার অর্ধেকেরও বেশী বিনামূল্যে।   চিকিৎসা ক্ষেত্রে ডাঃ তোজাম্মেল হোসেনের অবদান সত্যিই প্রশংসনীয়। দরিদ্রদের সাশ্রয়ী মূল্যের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের জন্য তার প্রতিশ্রুতি, তার সদয় হৃদয় এবং নিঃস্বার্থ মনোভাবের প্রতিফলন। বালিয়াকান্দির জনগণ সৌভাগ্যবান যে তাদের সমাজে এমন একজন দক্ষ ও সহানুভূতিশীল ডাক্তার রয়েছে।
তিনি জানান, ১৯৭৫ সালে এস এস সি পাশ করার পর ফরিদপুর মেডিক্যাল এ্যাসিষ্টেন্ট (ডিএমও) প্রথম ব্যাজের ছাত্র ছিলাম। সেখান থেকে ভালো রেজাল্ট নিয়ে ১৯৭৯ সালে উপ-সহকারী কমিউনিটি  মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে বালিয়াকান্দি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদান করি। একটানা ৩৬ বছর সরকারি চাকুরী করার পর ২০১৫ সালের দিকে অবসর গ্রহণ করেন। তিনি বর্তমানে বালিয়াকান্দি টেম্পু স্ট্যান্ড মসজিদ সংলগ্ন নিজ বাসভবন  চেম্বারে সকাল ৮ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত রোগী দেখছেন। তিনি ব্যাক্তি জীবনে  দুই পুত্র সন্তানের জনক, তার জৈষ্ঠ্য পুত্র আশিকুর রহমান বিএসসি ইঞ্জিনিয়ার এবং কনিষ্ঠ পুত্র মাহবুবুর রহমান বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে ক্যাপ্টেন পদে মিলিটারি একাডেমি চট্টগ্রামে  কর্মরত রয়েছেন।