১০:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

ময়মনসিংহের ফুলপুরের কৃতিসন্তান জনাব মোঃ আজহারুল আমিন যুগ্ম সচিব পদে পদোন্নতি!

রফিকুল ইসলাম সিনিয়র স্টাফ রির্পোটার এন্ড ডিভিশনাল চীফ ময়মনসিংহ...

ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর উপজেলার ৭নং রহিমগঞ্জ ইউনিয়নে নিজআশাবট গ্রামে এক মুসলিম সম্রান্ত
পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। তার পিতা- মরহুম আব্দুল হালিম মাস্টার, মাতা- মরহুমা আমেনা বেগম।
তিনি নিজআশাবট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পঞ্চম শ্রেণীতে স্কালারশীফ পেয়ে উর্ত্তিণ হন। তিনি
রহিমগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে প্রথম বিভাগে এসএসসি, ঢাকা সিটি কলেজ এইচএসসি পাস করেন।
প্রাচ্যের অক্সর্ফোড নামে খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজ কল্যাণ বিভাগে অর্নাস ফাস্ট ক্লাস ও
মাস্টার্স ফাস্ট ক্লাস পেয়ে উর্ত্তিণ হন। একই মায়ের উদরে জন্ম নেওয়া আরেক সন্তান রেজাউল মাকসুদ
জাহেদী ও আজহারুল আমিন ১৩তম বিসিএস পাস করেন।মোঃ আজহারুল আমিন বাংলাদেশ সিভিল
সার্ভিস কমিশন (বিসিএস তথ্য) ও তার সহোদর ছোট ভাই রেজাউল মাকসুদ জাহেদী সাহেব এডমিন
ক্যাডারে বিসিএস উর্ত্তিণ হন। ফুলপুরের সর্বস্তরের জনতা এই দুই ভাইকে নিয়ে গর্ববোধ করেন। তারা
প্রায়ই বলে থাকেন এদের বাব দাদা পিতার পিতামহ খুব মানবিক দানশীল ও ধর্নাট্য পরিবারের লোক
ছিলেন। তাদের বাড়িটি সমগ্র ফুলপুর উপজেলায় জব্বার মড়লের বাড়ি নামে জনগন জানে এবং চেনে।
মোঃ আজহারুল আমিন বর্তমানে কর্মরত আছেন পরিচালক আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট ও তার
সহোদর ছোট ভাই রেজাউল মাকসুদ জাহেদী গণপ্রজান্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুগ্ম সচিব/সাবেক
মহাপরিচালক আইসিটি অধিদপ্তর। রেজাউল মাকসুদ জাহেদী বর্তমানে কর্মরত আছেন, গণপ্রজান্ত্রী
বাংলাদেশ সরকারের পানি উন্নয়ন সংস্থার মহাপরিচালক (ডিজি)। তিনি সদা হাসি উজ্জল, কর্তব্য
পরায়ন, অত্যন্ত সাদা মনের মানুষ, মানবিক ও আওয়ামী পরিবারের সন্তান। জনাব আজহারুল
আমিনকে ফুলপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব এম. সাজ্জাদুল হাসান,
সহকারী কমিশনার (ভূমি) অমিত রায় কল্লোল, ফুলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব আব্দুল আল
মামুন এই প্রতিবেদকের সাথে পৃথক পৃথক ভাবে অভিনন্দন জানিয়েছেন। তাছাড়া ফুলপুরের রাজনৈতিক
সাংস্কৃতিক সংগঠন ফুলপুর প্রেস ক্লাবের নেতৃবৃন্দ, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি সাংবাদিক রফিকুল
ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক নূর মোহাম্মদ তারাকি বাবুল বিশেষভাবে অভিনন্দন জানিয়েছেন এবং
তাদের দু ভাইয়ের সুস্থ্যতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করেছেন। ফুলপুরের সর্বস্তরের মানুষ আশা করেন এরা
যেহেতু দু ভাই আওয়ামী পরিবারের সন্তান সেহেতু গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সিনিয়র সচিব
পদে চাকুরী করে সততা নিষ্ঠার সাথে তারা তাদের অর্পিত দায়িত্ব পালন করবেন।

ট্যাগস :
আপডেট : ০৪:৫৩:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
৪৪১ বার পড়া হয়েছে

ময়মনসিংহের ফুলপুরের কৃতিসন্তান জনাব মোঃ আজহারুল আমিন যুগ্ম সচিব পদে পদোন্নতি!

আপডেট : ০৪:৫৩:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর উপজেলার ৭নং রহিমগঞ্জ ইউনিয়নে নিজআশাবট গ্রামে এক মুসলিম সম্রান্ত
পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। তার পিতা- মরহুম আব্দুল হালিম মাস্টার, মাতা- মরহুমা আমেনা বেগম।
তিনি নিজআশাবট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পঞ্চম শ্রেণীতে স্কালারশীফ পেয়ে উর্ত্তিণ হন। তিনি
রহিমগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে প্রথম বিভাগে এসএসসি, ঢাকা সিটি কলেজ এইচএসসি পাস করেন।
প্রাচ্যের অক্সর্ফোড নামে খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজ কল্যাণ বিভাগে অর্নাস ফাস্ট ক্লাস ও
মাস্টার্স ফাস্ট ক্লাস পেয়ে উর্ত্তিণ হন। একই মায়ের উদরে জন্ম নেওয়া আরেক সন্তান রেজাউল মাকসুদ
জাহেদী ও আজহারুল আমিন ১৩তম বিসিএস পাস করেন।মোঃ আজহারুল আমিন বাংলাদেশ সিভিল
সার্ভিস কমিশন (বিসিএস তথ্য) ও তার সহোদর ছোট ভাই রেজাউল মাকসুদ জাহেদী সাহেব এডমিন
ক্যাডারে বিসিএস উর্ত্তিণ হন। ফুলপুরের সর্বস্তরের জনতা এই দুই ভাইকে নিয়ে গর্ববোধ করেন। তারা
প্রায়ই বলে থাকেন এদের বাব দাদা পিতার পিতামহ খুব মানবিক দানশীল ও ধর্নাট্য পরিবারের লোক
ছিলেন। তাদের বাড়িটি সমগ্র ফুলপুর উপজেলায় জব্বার মড়লের বাড়ি নামে জনগন জানে এবং চেনে।
মোঃ আজহারুল আমিন বর্তমানে কর্মরত আছেন পরিচালক আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট ও তার
সহোদর ছোট ভাই রেজাউল মাকসুদ জাহেদী গণপ্রজান্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুগ্ম সচিব/সাবেক
মহাপরিচালক আইসিটি অধিদপ্তর। রেজাউল মাকসুদ জাহেদী বর্তমানে কর্মরত আছেন, গণপ্রজান্ত্রী
বাংলাদেশ সরকারের পানি উন্নয়ন সংস্থার মহাপরিচালক (ডিজি)। তিনি সদা হাসি উজ্জল, কর্তব্য
পরায়ন, অত্যন্ত সাদা মনের মানুষ, মানবিক ও আওয়ামী পরিবারের সন্তান। জনাব আজহারুল
আমিনকে ফুলপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব এম. সাজ্জাদুল হাসান,
সহকারী কমিশনার (ভূমি) অমিত রায় কল্লোল, ফুলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব আব্দুল আল
মামুন এই প্রতিবেদকের সাথে পৃথক পৃথক ভাবে অভিনন্দন জানিয়েছেন। তাছাড়া ফুলপুরের রাজনৈতিক
সাংস্কৃতিক সংগঠন ফুলপুর প্রেস ক্লাবের নেতৃবৃন্দ, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি সাংবাদিক রফিকুল
ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক নূর মোহাম্মদ তারাকি বাবুল বিশেষভাবে অভিনন্দন জানিয়েছেন এবং
তাদের দু ভাইয়ের সুস্থ্যতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করেছেন। ফুলপুরের সর্বস্তরের মানুষ আশা করেন এরা
যেহেতু দু ভাই আওয়ামী পরিবারের সন্তান সেহেতু গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সিনিয়র সচিব
পদে চাকুরী করে সততা নিষ্ঠার সাথে তারা তাদের অর্পিত দায়িত্ব পালন করবেন।