১১:৩৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিজ্ঞপ্তি

সিএমপি – দুঃস্থদের নিয়ে দুই দিনব্যাপী বিদ্যানন্দের উদ্যোগে ১৪ টাকায় পূজার বাজার

রিপন চৌধুরী, বিশেষ প্রতিনিধি

 

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ ও বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে দুইদিন ব্যাপী শারদ আনন্দ উৎসব শুরু হয়েছে। চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়াস্থ রাজবাড়ি কনভেনশন হলে প্রতি বছরের ন্যায় চলতি বছরও আয়োজন করা হয়েছে দুঃস্থদের নিয়ে এই শারদ আনন্দ উৎসব। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে দশটায় চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার কৃষ্ণপদ রায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। এসময় সিএমপি দক্ষিণের উপ পুলিশ কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান ও বিদ্যানন্দের বোর্ড মেম্বার জামাল উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন।
সিএমপি কমিশনার বলেন, বিদ্যানন্দের জনকল্যাণমূলক কাজে সিএমপি সবসময় সাথে আছে। পুলিশ যেহেতু জনগণের জন্য কাজ করে, তাই জনকল্যাণমূলক কাজে বিদ্যানন্দকে ভবিষ্যতে সবধরনের সহায়তা করবে সিএমপি।
আয়োজনের মধ্যে আছে দুঃস্থ মানুষের জন্য মাত্র সাত টাকায় চাল, ডাল, তেল, চিনি, আটা, মাছ মাংস সহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য কেনার ব্যবস্থা। সাত টাকায় নতুন শাড়ী, লুঙ্গি, পাঞ্চাবী, বাচ্চাদের পোষাক কেনার ব্যবস্থা। আছে মিষ্টি ও বিশেষ খাবার আয়োজন। উৎসবে নগরীর বিভিন্ন এলাকার প্রায় ৩০০০ দুঃস্থ মানুষ অংশ নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে। সাত টাকার মধ্যে প্রতীকী মূল্যে চাল, ডাল, তেল, লবণ, আটা, নারকেল, চিনি, গুড়, মাছ, মুরগী, সবজি, বাচ্চাদের শিক্ষা সামগ্রী সহ প্রায় ২৬ টি আইটেম কেনার সুযোগ পায় একেকটি পরিবার। পাশাপাশি সাত টাকার মাঝে পরিবারের জন্য শাড়ি, লুঙ্গি, পাঞ্চাবী কিংবা বাচ্চাদের জামাকাপড় কেনার সুযোগ দেওয়া হয়। সব মিলিয়ে প্রতিটি পরিবার সাধারণ বাজার মূল্যে প্রায় দেড় হাজার টাকা সমমূল্যের পণ্য পায়। বিদ্যানন্দের পক্ষ থেকে জানানো হয়, দুঃস্থদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে নগরীর বিভিন্ন বস্তি এলাকায় সার্ভে করে সুবিধাবঞ্চিত পরিবারগুলোকে টোকেন প্রদান করা হয়েছে। এই টোকেন দেখিয়ে পরিবারগুলো এই আয়োজনে অংশ নিতে পারবে। সনাতন ধর্মালম্বীদের পাশাপাশি এই আয়োজন অন্যান্য ধর্মের সুবিধাবঞ্চিত পরিবারও অংশ নিতে পারবে। ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা, বরিশালের পর চট্টগ্রামে আজ দুই দিনব্যাপী এই আয়োজন শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, করোনাকালীন সময়ে কেউ যখন ভয়ে ঘর থেকে বের হচ্ছেনা তখন জীবনবাজি রেখে করোনা মহামারী মোকাবেলায় সম্মুখসমরে যুদ্ধ করে সাধারণ মানুষের ভালবাসা অর্জন করে নেয় এই প্রতিষ্ঠান। সমাজসেবায় তাদের অসামান্য সব অবদানের জন্য ২০২৩ সালে সরকার তাদের একুশে পদকে ভূষিত করে। এছাড়াও ২০২২ সালে সমাজকল্যান মন্ত্রনালয় কতৃক জাতীয় মানবকল্যান পদক ও ২০২১ সালে বৃটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ কতৃক “কমনওয়েলথ পয়েন্টস অফ লাইট” পদকে ভূষিত হয় এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা।

ট্যাগস :
আপডেট : ০৬:৩০:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০২৩
১৩১ বার পড়া হয়েছে

সিএমপি – দুঃস্থদের নিয়ে দুই দিনব্যাপী বিদ্যানন্দের উদ্যোগে ১৪ টাকায় পূজার বাজার

আপডেট : ০৬:৩০:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০২৩

 

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ ও বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে দুইদিন ব্যাপী শারদ আনন্দ উৎসব শুরু হয়েছে। চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়াস্থ রাজবাড়ি কনভেনশন হলে প্রতি বছরের ন্যায় চলতি বছরও আয়োজন করা হয়েছে দুঃস্থদের নিয়ে এই শারদ আনন্দ উৎসব। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে দশটায় চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার কৃষ্ণপদ রায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। এসময় সিএমপি দক্ষিণের উপ পুলিশ কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান ও বিদ্যানন্দের বোর্ড মেম্বার জামাল উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন।
সিএমপি কমিশনার বলেন, বিদ্যানন্দের জনকল্যাণমূলক কাজে সিএমপি সবসময় সাথে আছে। পুলিশ যেহেতু জনগণের জন্য কাজ করে, তাই জনকল্যাণমূলক কাজে বিদ্যানন্দকে ভবিষ্যতে সবধরনের সহায়তা করবে সিএমপি।
আয়োজনের মধ্যে আছে দুঃস্থ মানুষের জন্য মাত্র সাত টাকায় চাল, ডাল, তেল, চিনি, আটা, মাছ মাংস সহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য কেনার ব্যবস্থা। সাত টাকায় নতুন শাড়ী, লুঙ্গি, পাঞ্চাবী, বাচ্চাদের পোষাক কেনার ব্যবস্থা। আছে মিষ্টি ও বিশেষ খাবার আয়োজন। উৎসবে নগরীর বিভিন্ন এলাকার প্রায় ৩০০০ দুঃস্থ মানুষ অংশ নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে। সাত টাকার মধ্যে প্রতীকী মূল্যে চাল, ডাল, তেল, লবণ, আটা, নারকেল, চিনি, গুড়, মাছ, মুরগী, সবজি, বাচ্চাদের শিক্ষা সামগ্রী সহ প্রায় ২৬ টি আইটেম কেনার সুযোগ পায় একেকটি পরিবার। পাশাপাশি সাত টাকার মাঝে পরিবারের জন্য শাড়ি, লুঙ্গি, পাঞ্চাবী কিংবা বাচ্চাদের জামাকাপড় কেনার সুযোগ দেওয়া হয়। সব মিলিয়ে প্রতিটি পরিবার সাধারণ বাজার মূল্যে প্রায় দেড় হাজার টাকা সমমূল্যের পণ্য পায়। বিদ্যানন্দের পক্ষ থেকে জানানো হয়, দুঃস্থদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে নগরীর বিভিন্ন বস্তি এলাকায় সার্ভে করে সুবিধাবঞ্চিত পরিবারগুলোকে টোকেন প্রদান করা হয়েছে। এই টোকেন দেখিয়ে পরিবারগুলো এই আয়োজনে অংশ নিতে পারবে। সনাতন ধর্মালম্বীদের পাশাপাশি এই আয়োজন অন্যান্য ধর্মের সুবিধাবঞ্চিত পরিবারও অংশ নিতে পারবে। ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা, বরিশালের পর চট্টগ্রামে আজ দুই দিনব্যাপী এই আয়োজন শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, করোনাকালীন সময়ে কেউ যখন ভয়ে ঘর থেকে বের হচ্ছেনা তখন জীবনবাজি রেখে করোনা মহামারী মোকাবেলায় সম্মুখসমরে যুদ্ধ করে সাধারণ মানুষের ভালবাসা অর্জন করে নেয় এই প্রতিষ্ঠান। সমাজসেবায় তাদের অসামান্য সব অবদানের জন্য ২০২৩ সালে সরকার তাদের একুশে পদকে ভূষিত করে। এছাড়াও ২০২২ সালে সমাজকল্যান মন্ত্রনালয় কতৃক জাতীয় মানবকল্যান পদক ও ২০২১ সালে বৃটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ কতৃক “কমনওয়েলথ পয়েন্টস অফ লাইট” পদকে ভূষিত হয় এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা।