রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৩৯ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।

দিনাজপুরে কৃষি জমির ধান কেটে ফসল নষ্ট করার প্রতিবাদে জাবেদ কে কুপিয়ে গুরুতর জখম

দিনাজপুর সদরের মুরাদপুর এলাকার জাবেদের কৃষি জমির ধান কেটে ফসল নষ্ট করার প্রতিবাদে জাবেদকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করলো মোঃ রফিকুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি। দিনাজপুর সদর উপজেলার ৭নং উথরাইল ইউনিয়নের মুরাদপুর নুন শাহার চৌধুরীপাড়া গ্রামের মৃত মমিন খন্দকারের ছেলে জাবেদ আলী,তাহাকে ধারলো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে বাহাতের কিনি আঙ্গুল ঝুলিয়ে দেয়। এবং সাথে বাপায়ের উরুতে একের পর এক অস্ত্রের আঘাতে ক্ষত বিক্ষত করে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে।
একোই ইউনিয়নের মোঃ রফিকুল ইসলাম নামের এক দুষ্কৃতিকারী। যা অত‍্যন্ত খুবই দুঃখজনক ও অমানবিক কাজ করেছে রফিকুল ইসলাম বলে মন্তব্য করেন স্থানীয় এলাকাবাসী।বৃহস্পতিবার(২২সেপ্টম্বর) সকাল১০টা৩০মিনিটে দিনাজপুর সদর উপজেলার ৭নং উথরাইল ইউনিয়নের গোদাগাড়ী নুনাইচ নামক স্থানে এই ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয়দের সহযোগিতায় জাবেদ এর স্ত্রী সন্তান জাবেদ বড় ভাই তাৎক্ষণিক অ্যাম্বুলেন্সে করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক‍্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান বর্তমানে শারীরিক যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে।দিনাজপুর কোতয়ালী থানায় দায়েরকৃত এজাহার সুত্রে জায় যায় দিনাজপুর সদর উপজেলার ৭নং উথরাইল ইউনিয়নের সোলেমানের ছেলে মোঃ রফিকুল ইসলাম একজন অসৎ প্রকৃতির মাদকাসক্ত রাজমিস্ত্রী।
সে অহেতুক জাবেদ আলীর ক্রয়কৃত একটি আবাদী জমির মালিকানা দাবী করে দীর্ঘদিন থেকে বিবাদ সৃষ্টির চেষ্টা করে আসছিলো।কিন্ত জেরিন মটরস ও ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কসপের স্বত্তাধিকারী মোঃ জাবেদ আলী বলেন আমার ক্রয়কৃত জমির ধান কেনো কাটবে। ইতি পূর্বেও ধান ক্ষেতে গিয়ে রফিকুল ইসলাম গরু চরিয়ে ধান নষ্ট করেছে তবুও মুখ বুঝে সহ‍্য করেছি।
কিন্তু বৃহস্পতিবার পুনরায় রফিকুল ইসলাম জমিতে গিয়ে ধান কাটার সময় জাবেদের স্ত্রী দেখতে পায়। তাৎক্ষণিক জাবেদকে খবর দেয়। তাৎক্ষণিক জাবেদের কর্মস্থল থেকে তার জমির দিকে রওনা দেয় রফিকুল ইসলামের বাড়ির সামনে যেতেই জাবেদ আলী মৌলিক প্রতিবাদে সঙ্গে সঙ্গে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে রফিকুল ইসলাম ও তার স্ত্রী রাহে জান্নাত ও আবুল হোসেন। বর্তমানে মোঃ জাবেদ আলী এম আব্দুর রহিম মেডিক‍্যাল কলেজ হাসপাতালের অর্থপেডিক সার্জারী ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন। এ ঘটনায় জাবেদের পরিবার কান্নার স্বরে বলেন প্রশাসনের কাছ থেকে ন্যায় বিচারের দাবি করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved