রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:১৪ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।

রামগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে বসতঘর পুড়ে ছাঁই

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জের ৬নং লামচর ইউনিয়নভুক্ত ১নং ওয়ার্ডের কাশিমনগর গ্রামের নতুন বাড়িতে (সাবেক বাইল্লার বাড়ি) অগ্নিকাণ্ডে বসতঘর পুড়ে সম্পূর্ণ ছাঁই হয়ে গেছে। সবকিছু হারিয়ে শোকের মাতম চলছে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে।
ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার (২০ অক্টোবর) দুপুর পৌনে ১টার দিকে করপাড়ার আজিমপুর ও লামচর ইউপির সীমান্তবর্তী কাশিমনগর গ্রামের নতুন বাড়ির (সাবেক বাইল্লার বাড়ি) প্রবাসী মোঃ দেলোয়ার হোসেনের বসতঘরে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রবাসী মোঃ দেলোয়ার হোসেনের ওই বসত ঘরে স্ত্রী এবং তিন সন্তান সিফাত, লামিয়া এবং  শামীম ওই বসত ঘরে বসবাস করতো। প্রবাসীর স্ত্রী ছোট দুই সন্তানকে ঘরে রেখে জরুরি কাজে রামগঞ্জে যায়। হঠাৎ করে তাদের ওই ঘরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিক ঘরে থাকা তার ছেলে মোঃ সিফাত হোসেন (১৫) ও তার ছোট বোন লামিয়া (৮) আগুন দেখে তারা দৌড়ে ঘরের বাহিরে আসে এবং চিৎকার কান্নাকাটি শুরু করে।
খবর পেয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী, মোহাম্মদীয়া বাজার তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ এবং রামগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিভাতে সক্ষম হয়। ততক্ষণে বসতঘরটি সম্পূর্ণরূপে ভস্মিভূত হয়ে যায়। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা মোহাম্মদ খোরশেদ জানান, ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ও অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত পরবর্তীতে তদন্ত করে নিশ্চিত হওয়া যাবে। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বৈদ‍্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে।
প্রবাসী দেলোয়ারের স্ত্রী জানান: আমাদের ওই ঘরে মধ‍্যে ফ্রিজ, খাট, আলমিরা, টেলিভিশন, সিলিং ফ‍্যান , হাঁস-মুরগি কবুতর সহ যাবতীয় জিনিসপত্র ছাঁই হয়ে যায়। এতে আমাদের প্রায় ১০ থেকে ১২ লক্ষ টাকার পরিমান ক্ষয়ক্ষতি হয়।
এরই মধ‍্যে লামচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফয়েজ উল‍্যাহ পাটোয়ারী জিসান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে উদ্ধার কাজে সহযোগিতা করেন। পাশাপাশি তাকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস‍্যদের নতুনভাবে থাকার জন‍্য সাময়িকভাবে থাকার ও খাওয়ার ব‍্যবস্থার পদক্ষেপ নিতে দেখা গেছে। এব‍্যাপারে সকলের সহযোগিতা কামণা করেন তিনি।
রামগঞ্জ থানাধীন মোহাম্মদীয়া বাজার তদন্ত কেন্দ্রের এসআই আবু ইউসুফ জানান, খবর পাওয়া মাত্রই সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। অগ্নিকাণ্ডের সময় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটির প্রবাসীর স্ত্রী বাড়িতে ছিলেন না। তার ছেলে মোঃ সিফাত হোসেন (১৫) বাড়িতে ছিলো। এর মধ‍্যে ঘরের ফ্রিজ, খাট, আলমিরা, টেলিভিশন, সিলিং ফ‍্যান সহ যাবতীয় জিনিসপত্র ছাঁই হয়ে যায়।
ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে একই ইউনিয়নের ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির রিজভী, যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক হোসেন, উত্তর কালিকাপুর তিন নম্বর ওয়ার্ড ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন ভূঁইয়া, পশ্চিম কাশিনগর এক নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শাহজাহান কবির বাচ্চু ইউপি , উপস্থিত হয়ে সান্তনা দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved