সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০১:১৩ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় -২ উপনির্বাচনের এমপি প্রার্থী দুইদিন ধরে নিখোঁজ  নওগাঁয় অটো-চার্জার চাপায় এক শিশুর মৃত্যু কালাইয়ে নানা আয়োজন বিশ্ব কুষ্ঠ  দিবস পালিত তুমব্রু সীমান্তের বাস্তুচ্যূত রোহিঙ্গাদের ডাটা এন্ট্রি কার্যক্রম শুরু বর্তমান সরকার শিক্ষাকে আধুনিক ও ডিজিটালাইজেশন করেছে-শিল্পমন্ত্রী বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস এসোসিয়েশন এর উদ্যোগে নোয়াখালী জেলা পুলিশের আয়োজনে সোনাইমুড়ী থানা প্রাঙ্গণে অসহায় শীতার্তদের মাঝে শীত বস্ত্র বিতরণ শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে বিলুপ্ত প্রজাতির প্রাণি মেছো বাঘ উদ্ধার মানিকগঞ্জের সিংগাইরে একাধিকবার সংবাদ প্রকাশিত হলেও বন্ধ হয়নি মাটি বিক্রি   নিউজ প্রকাশ করায় ভোলায় ফের ব্যবসায়ীকে হত্যার হুমকি ড. মো. সাদী-উজ-জামান দেশের হাউজিং সেক্টরে উদ্ভাবনী চিন্তা ও অনন্য এক শুদ্ধতার কন্ঠস্বর

দ্রব‍্যমূল‍্যের লাগামহীন বৃদ্ধিতে অসহায় বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ

শীতকালীন সবজিতে বাজার ভরপুর তবু কেনা দায়। সিত্রাং – এর প্রভাব এখনও অনেক চাষি কেটে উঠতে পারেননি। পুনরায় চাষ করে মুনাফা দুরে থাক পুঁজি উঠাতে হিমশিম অবস্থা। লাউ ৫০-১০০টাকা, লাউ শাক ৩০-৪০টাকা, কুমড়া কেজি প্রতি ৪০-৬০টাকা, কুমড়ার শাক ৩০-৪০টাকা, টমেটো ৮০-১০০টাকা, বেগুন ৩০-৪০ টাকা, শিম ৫০- ৬০ টাকা, আলু ২০-২৫ টাকা, নতুন আলু শতাধিক টাকা, মুলা ৩০-৩৫টাকা, পেঁয়াজ  ৪০- ৪৫ টাকা, রসুন ছোট বড় মাঝারি বিভিন্ন সাইজের ভিন্ন ভিন্ন দর, সব রকম শাক সবজির দর মধ‍্যবিত্ত পরিবারের সীমানার বাহিরে।
যারা মাসিক বেতনে কাজ করেন মাস শেষে বাজারের দরের কারণে হাতে কোন টাকা থাকে না আর যারা দিনে এনে দিনে খায় তাদের অবস্থা অত্যন্ত শোচনীয়। মাছের বাজারেও আগুন নদীর মাছের দাম বেশি। চাষের মাছের মধ‍্যে রুই কাতল ২৬০-৩২০ টাকা, পাঙ্গাস ১৫০-২০০ টাকা,  ছোট বড় চিংড়ি ৬০০ টাকার অধিক। ব্রয়লার ১৭০-১৮০টাকা, কক মুরগির দর ২৬০-২৮০টাকা, ডিমের হালি ৪০ টাকা, গরুর মাংশ (হাঁড়সহ হাঁড়বাদে) কেজি প্রতি ৮০০- ১০০০টাকা। বেকের বাজার, সিলোনীয়া আর দাগনভূঞা বাজার ঘুরে দেখা যায় সাধারণ মানুষের মাঝে বাজার দর নিয়ে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।
বেসরকারি চাকুরিজীবি মহসিন বলেন, ঘরে চাহিদা মতো কেনাকাটা করা যাচ্ছে না কাটাচেরা করেও মাস শেষে হাতে কোন টাকা থাকছে না। রিকশা চালক দুলাল বলেন, মাংশের কথা বাদই দিলাম মাসে দুই এক দিন মাছ আর পুরো মাস শাকসবজি খেতেও কষ্ট হচ্ছে। বাজার মনিটরিং এ কিছু সুফল  আসতে পারে বলে ক্রেতা সাধারণ ধারণা দেন।


বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved