মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:৫১ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
বিএলএফ চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলা কমিটির উদ্যোগে শ্রমিকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত শ্রীমঙ্গলে এমসিডা আলোয়- আলো কিশোর কিশোরী বালিকা ফুটবল টুর্নামেন্ট -২০২৩ খ্রিঃ তুরস্কে ভূমিকম্পে নিহত ১১৮, ধ্বংসস্তূপে আটকে আছেন বহু মানুষ আমার মন্তব্য ছিল ফখরুলকে নিয়ে, হিরো আলম নয়: কাদের রিয়ালের হার, শীর্ষস্থানের পয়েন্ট বাড়াল বার্সেলোনা ইবিতে ছাত্রলীগের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত  আইডিয়াল কমার্স কলেজ ও আইডিয়াল ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের  শিক্ষকদের পেশাগত দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক  কর্মশালা আদালতের আদেশ অমান্য করে বাড়ি নির্মাণের অভিযোগ শহিদ এএইচএম কামরুজ্জামানের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরা বাংলা মায়ের টানে মুক্তিযুদ্ধে  অংশ নিয়েছিল এদেশের বীর সন্তানরা                                                     

নাটোরে ইমো হ্যাকিং প্রতারক চক্রের ৭ সদস্য গ্রেফতার

নাটোরের লালপুরে ইমো হ্যাক করে বিকাশের মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ায় সংঘবদ্ধ ‘ইমো হ্যাকিং’ চক্রের ৭ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে নাটোর র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।
বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) রাতে লালপুর উপজেলার বিলমাড়িয়া বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।
শুক্রবার(২৫ নভেম্বর) সকালে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান নাটোর র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন। গ্রেফতারকৃতরা হলেন-মৃত শামসেদ মন্ডলের ছেলে মো. বেলাল মন্ডল (২৯), মোঃ শাহাবুল ইসলামের ছেলে মোঃ মেহেদী হাসান (২৪), মোঃ মঞ্জুর রহমানের ছেলে মোঃ মোহন সরকার (১৯), মোঃ মাজদার প্রামানিকর ছেলে মোঃ শিমুল আলী (১৯), মোঃ নূর আলম সরকারের ছেলে মোঃ শাহ পরান সরকার (১৯), মোঃ ইয়াসিন আলীর ছেলে মোঃ রবি (২২) এবং মোঃ রিফাজ মন্ডলের ছেলে মোঃ রুবেল মন্ডল (৩২)।
র‌্যাব জানায়, অভিযোগের ভিত্তিতে লালুপরে মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইমো হ্যাক করে বিকাশের মাধ্যমে প্রতারণা পূর্বক অর্থ হাতিয়ে নেওয়ায় হ্যাকিং চক্রের ৭ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ৯টি মোবাইল,১৫টি সিমকার্ড, ২টি বোতল ফেন্সিডিল, নগদ ১৫ হাজার ৪০০ টাকা জব্দ করা হয়।
র‌্যাবের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন জানান, ভূক্তভোগী মোঃ মনিরুল ইসলাম (৩৮) এর চাচাতো ভাই মোঃ ওয়াসিম সৌদি প্রবাসী। ভূক্তভোগীর ইমো আইডিতে শ্রমিকের বিল দেওয়ার এজন্য একটি মেসেজ আসে এবং একটি বিকাশ নম্বর দেয়। ভূক্তভোগী মোঃ মনিরুল ইসলাম মেসেজের প্রেক্ষিতে সরল বিশ্বাসে বিকাশ নম্বরে প্রথম ২১ হাজর ৫০০টাকা পাঠায়। পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে তার চাচাতো ভাইয়ের ইমো আইডি হতে বেশ কিছু বিকাশ নম্বর পাঠিয়ে টাকা দিতে বলে।
ভূক্তভোগী মোঃ মনিরুল ইসলাম সরল বিশ্বাসে বিকাশ নম্বর গুলোতে মোট ১ লাখ ২০ হাজার ৮৬০টাকা পাঠায়। এর আগেও মোঃ মনিরুল ইসলাম তার চাচাতো ভাইয়ের কথামত বিকাশে টাকা প্রেরণ করেছিল। পরবর্তীতে কিছু সময় পর ভূক্তভোগীর চাচাতো ভাই মনিরুলকে ফোন করে জানায় যে, তার ব্যবহৃত ইমো একাউন্টটি হ্যাক হয়েছে। তখন ভূক্তভোগী মোঃ মনিরুল ইসলাম বলে তুমি শ্রমিকের বিল দেওয়ার জন্য যে বিকাশ নম্বরগুলো পাঠিয়ে ছিলে সে গুলোতে আমি ১ লাখ ২০ হাজার ৮৬০টাকা পাঠিয়ে দিয়েছি। তখন ভূক্তভোগী মোঃ মনিরুল ইসলাম বুঝতে পেরে সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র তার চাচাত ভাইয়ের ইমো একাউন্ট হ্যাক করে প্রেরিত বিকাশ নম্বরগুলো দিয়ে তার সাথে প্রতারণা করে বিকাশের মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে।
পরে ভূক্তভোগী মোঃ মনিরুল ইসলাম বড়াইগ্রাম বনপাড়া বাইপাস মোড়ে র‌্যাবের টহল দলের নিকট ইমো হ্যাংক করে প্রতারনার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার বিষয়টি জানান। পরে তথ্য প্রযুক্তি ও বিশেষ গোয়েন্দা ভিত্তিতে লালপুর থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ভূক্তভোগীর চাচাতো ভাইয়ের ইমো হ্যাক করে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার সেই সংঘবদ্ধ ইমো হ্যাকিং চক্রের ৭ সদস্যকে গ্রেফতার করে।  দেশের বিভিন্ন প্রান্তের “ইমো” ব্যবহারকারীদের ইমো হ্যাক করে বিকাশের মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নিতেন।
পরে ভূক্তভোগী বাদী হয়ে লালপুর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।


বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved