সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:০৩ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
ছাতকে ৩ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে  মাদ্রাসা ছাত্র সায়েজ আমিন  টঙ্গীতে সফিউদ্দিন সরকার একাডেমি এন্ড কলেজ এর ওরিয়েন্টেশন ও  নবীনবরণ অনুষ্ঠিত ঢাকার ধামরাইয়ে আমছিমুর গ্রামে মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের দাবি শেরপুরে মঞ্চস্থ হলো নাটক ‘একাত্তরের বীরকন্যা’ জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে পরিত্যক্ত ৩টি শুটারগান উদ্ধার করেছে র‍্যাব ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় -২ উপনির্বাচনের এমপি প্রার্থী দুইদিন ধরে নিখোঁজ  নওগাঁয় অটো-চার্জার চাপায় এক শিশুর মৃত্যু কালাইয়ে নানা আয়োজন বিশ্ব কুষ্ঠ  দিবস পালিত তুমব্রু সীমান্তের বাস্তুচ্যূত রোহিঙ্গাদের ডাটা এন্ট্রি কার্যক্রম শুরু বর্তমান সরকার শিক্ষাকে আধুনিক ও ডিজিটালাইজেশন করেছে-শিল্পমন্ত্রী

পঞ্চগড়ে জমির বিরোধে মারপিট, ঘরে আগুন, ভাংচুর

পঞ্চগড়ে জমির বিরোধে মারপিট, ঘরে আগুন, ভাংচুর করার অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন মিজানুর রহমান। তিনি পঞ্চগড় সদর উপজেলার পানিমাছ পুকুরি  এলাকার মৃত ফয়জুল হকের ছেলে। মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে বিজ্ঞ আমলি আদালত-১ পঞ্চগড় সদরে একই এলাকার মৃত খাজিমদ্দিনের ছেলে জিয়াউর রহমানসহ ১১ জনকে বিবাদী করে এ মামলা দায়ের করেন।
মামলা থেকে জানা যায়,গত ১৪ জনুয়ারি শনিবার দুপুরে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে আসামিরাসহ আরো ২০-৩০ জন প্রত্যেকে হাতে বাঁশের লাঠি ধারালো অস্ত্র, পেট্রোল সহ বাদী ও সাক্ষীর বাড়ি ঘরে আগুন জালিয়ে ভিটা ছাড়া করার উদ্দেশ্যে ঘটনা স্থলে যায় এবং বাদী ও সাক্ষীদের বেধড়ক মারপিট করে,নারীদের শ্লীলতাহানি ঘটায় এবং গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র, আড়াই শতাধিক সুপারি গাছ উপরে নষ্ট করে ফেলে। এমনকি গর্ভবতী একজনকে হত্যার উদ্দেশ্যে তলপেটে লাথি দেয়, ঘরের ট্রাঙ্কের তালা ভেঙ্গে জমির মূল্যবান কাগজপত্র নিয়ে যায় যা জোরদার কর্তৃক দেওয়া এবং যার বর্তমান সহিমুড়ি নকল পাওয়া দুষ্কর বিষয়। আসামিরা জারিকেনে পেট্রোল নিয়ে টিনের তৈরি দুটি ঘরে ছিটাইয়া দেয় এবং পরে গ্যাস লাইট বাহির করে ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয়। আগুন বাড়তে থাকলে আগুন নিয়ন্ত্রণে স্থানীয়রা চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়।পরে পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিসে যোগাযোগ করা হলে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে আসে। এর আগে ঘরের মালামাল পুড়ে যায়।
ভুক্তভোগী রোজিনা,মেরিনা,আলপনা,মমেনা জানান,শনিবার ঘটনার দিন রশিদুল,জিয়াউরসহ একাধিক ব্যক্তি আইন অমান্য করে পুলিশের উপস্থিতিতে ঘরে ভাংচুর করে জিনিসপত্র নিয়ে যায়।এদিকে জমি দখল করে নেয় তারা। আমাদেরকে গণহারে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।পরের দিন আমরা আদালত থেকে জামিনে মুক্ত হই।
আসামি পক্ষের রফিকুল ইসলাম এ বিষয় কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।তবে জমি নিজেদের বলে দাবী করেন।
বাদী পক্ষের আইনজীবী আশরাফুল ইসলাম মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন,মামলাটি আদালত আমলে নিয়ে তদন্তের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন।


বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved