সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৯:৩৪ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
আইডিয়াল কমার্স কলেজ ও আইডিয়াল ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের  শিক্ষকদের পেশাগত দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক  কর্মশালা আদালতের আদেশ অমান্য করে বাড়ি নির্মাণের অভিযোগ শহিদ এএইচএম কামরুজ্জামানের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরা বাংলা মায়ের টানে মুক্তিযুদ্ধে  অংশ নিয়েছিল এদেশের বীর সন্তানরা                                                      বিশ্ব ক্যান্সার দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেস ক্লাবের আবদুস সাত্তার হল রুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এক স্মৃতিময় সন্ধ্যায়  সফেনের স্বপ্নদ্রষ্টা ও আমরা ক’জন বাংলাদেশ প্রবীণ হিতৈষী সংঘ ও জরা বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠান নির্বাচন (2023-2025) ক্যাপ্টেন শামছুল হক-বীর মুক্তিযোদ্ধা ইন্তেজার রহমান প্যানেল-এ ভোট দিন। আব্দুল হালিম পাটওয়ারী ফাউন্ডেশন কর্তৃক ৫ম ও ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মেধা বৃত্তি প্রদান-২০২২ নওগাঁয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এর অভিযানে ৬কেজি গাঁজাসহ আটক-১ নওগাঁয় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় স্কুল ছাত্র নিহত-মা ও ছোট বোন আহত

কালাইয়ে পিঠাপুলি তৈরিতে বাড়ছে পাটালিগুড়ের চাহিদা 

পৌষ-মাঘ মাসের শুরুতেই শীতের আমেজে চারিদিকে পিঠাপুলি বানানোর ধুম পরেছে। সেই সুবাদে বাজারে চাহিদা বেড়েছে পাটালিগুড়ের । প্রতিদিনই ভিড় বাড়ছে ক্রেতাদের বিক্রি ও বেশ ভালো। এর মাঝে সবচেয়ে বেশি চাহিদা কালাই   অঞ্চলের পাটালিগুড়  । এখানকার পাটালি গুড়ের মান ও স্বাদে সবার সেরা, তাই বেশিরভাগ ক্রেতার আস্থা আছে এই অঞ্চলের পাটালিগুড়।

জয়পুরহাটের কালাইয়ে   বাজারের কয়েকজন ক্রেতার সাথে কথা হলে তারা বলেন, শীতের এই সময়টাতে প্রতিটি বাড়িতে  হরেক রকমের পিঠপুলি বানানো হয় এবং মিষ্টি হিসেবে পাটালিগুড় প্রধান উপকর। এসব পিঠাপুলির ক্ষেত্রে প্রযোজ্য, তাই প্রতি বছর বাজারে এসে ভালো মানের পাটালিগুড় কিনতে আসি ।  কালাই উপজেলার
বাজারের পাটালিগুড় ব্যবসায়ী  ইউসুফ  আলী বলেন, সারা বছর আখের গুড় বিক্রি করলেও শীতের এই কয়েক মাস খেজুরের পাটালিগুর বিক্রি করি এবং এটার বেশ চাহিদাও রয়েছে। প্রকারভেদে দাম ১২০ থেকে ৫৫০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়।

আরেক ব্যবসায়ী  ওসমান গুনি বলেন, আমি প্রতিদিন ৬০ থেকে ৯০ কেজি পর্যন্ত বিক্রি করি। তবে এখন প্রচুর ভেজাল মানের পাটালিগুড় আছে এসবের মাঝে অনেক সময় দাম নিয়ে আমরা দ্বিধাদ্বন্দে পড়তে হয়। অনেকসময় ক্রেতার সাথে বাক-বাকবিতন্ডায় লিপ্ত হতে হয়।
তিনি বলেন, আমরা চাই সবসময় ক্রেতাকে ভালো পণ্য দিতে। শীত যত বাড়বে বিক্রি ও তত বাড়বে। এজন্য আমরাও ভালো মানের পাটালিগুড় সংগ্রহে রাখতে চাই।


বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved