মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:০২ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
বিএলএফ চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলা কমিটির উদ্যোগে শ্রমিকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত শ্রীমঙ্গলে এমসিডা আলোয়- আলো কিশোর কিশোরী বালিকা ফুটবল টুর্নামেন্ট -২০২৩ খ্রিঃ তুরস্কে ভূমিকম্পে নিহত ১১৮, ধ্বংসস্তূপে আটকে আছেন বহু মানুষ আমার মন্তব্য ছিল ফখরুলকে নিয়ে, হিরো আলম নয়: কাদের রিয়ালের হার, শীর্ষস্থানের পয়েন্ট বাড়াল বার্সেলোনা ইবিতে ছাত্রলীগের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত  আইডিয়াল কমার্স কলেজ ও আইডিয়াল ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের  শিক্ষকদের পেশাগত দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক  কর্মশালা আদালতের আদেশ অমান্য করে বাড়ি নির্মাণের অভিযোগ শহিদ এএইচএম কামরুজ্জামানের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ’র নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যরা বাংলা মায়ের টানে মুক্তিযুদ্ধে  অংশ নিয়েছিল এদেশের বীর সন্তানরা                                                     

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের শূন্যরেখায় আরসা-আরএসও’র গোলাগুলিতে নিহত ১,গুলিবিদ্ধ ১

পার্বত্য বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু সীমান্তের কোনারপাড়ার নিকটবর্তী শূণ্যরেখায় অবস্থিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গোলাগুলিতে ১জন নিহত হয় এবং অপর একজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে।

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল থেকে শূন্যরেখায় রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে গোলাগুলির এ ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রোমেন শর্মা’র সাথে কথা হলে তিনি জানান,সকাল থেকে তুমব্রু সীমান্তের শূণ্যরেখায় থেমে থেমে গোলাগুলির খবর স্থানীয়দের মাধ্যমে জেনেছেন। ঘটনাটি যেহেতু শূন্যরেখায় সেখানে আন্তর্জাতিক রীতি মতে বিজিবিসহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ করার এখতিয়ার নেই। তারপরও সীমান্তের এই পরিস্থিতি নিয়ে বিজিবি সতর্ক অবস্থানে রয়েছে এবং প্রশাসন এ ব্যাপারে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রাখছে।” ক্যাম্পে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই বিষয়ে তিনি এখনও কিছু জানেন না।

জানা যায়,দুপুরের দিকে শূন্যরেখার রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে দুজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় কুতুপালং আশ্রয় শিবির সংলগ্ন এমএসএফ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। উখিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, হাসপাতালে নিয়ে আসা একজনকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন এবং অপরজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নিহত রোহিঙ্গার নাম হামিদ উল্লাহ (২৭) এবং আহত হল মহিদ উল্লাহ (২৫)।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর আজিজ বলেন, সকাল থেকে অব্যাহত গোলাগুলির শব্দ শুনা যাচ্ছে। কিন্তু সেখানে কী হচ্ছে বলা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে স্থানীয়রা চরম আতঙ্কে রয়েছে কখন কী ঘটে।

কোনার পাড়ার স্থানীয় সরোয়ার জানান,গতকাল মঙ্গলবার বাজারে আরএসও’র তিনজন ব্যক্তি বাজার করতে আসলে তাদেরকে আটক করে আলী কিন তথা আরসা। আরএসও আলী কিন বা আরসাকে মেসেজ করে তাদের যাতে ছেড়ে দেয় কিন্তু আলী কিন তাদের ছেড়ে না দেওয়াই আজ ভোর রাত হতেই গোলাগুলি শুরু হয়।

স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে জানা যায়, বিকালে ৪ ঘটিকায় শূন্য রেখায় অবস্থিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয় আরএসও।
আরও জানা যায়, গোলাগুলির সময় সীমান্ত এলাকায় অবস্থিত কোনার পাড়া আবদুল মোনাফের বাড়িতে গুলির আঘাত লাগে।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার ৩৪ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম চৌধুরীকে মোবাইল ফোনে কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেন নি।


বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved