বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৫:৩৬ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
ছাতকের পরিস্থিতি ভয়াবহ,সারা‌দে‌শে সঙ্গে সড়ক যোগা‌যোগ বন্ধ পিরোজপুরে বাস চাপায় কলেজ ছাত্র নিহত ১৭ মে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা,গণতন্ত্রের অগ্নিবীণা ও উন্নয়ন-প্রগতির প্রত্যাবর্তনঃ তথ্যমন্ত্রী নাজিরপুর অঞ্চলের কৃষকের স্বপ্ন প্রতি বছর তলিয়ে যায় পানির নিচে কালিহাতীতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন রাজশাহী জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের ভোট স্থগিত প্রফেসর ডাক্তার উত্তম কুমার বড়ুয়াকে সংবর্ধিত করলো মিলন-পুর্নিমা ফাউন্ডেশন ঈদগাঁওর ৫ ইউনিয়নে আওয়ামী রাজনৈতিক অঙ্গনে চাঙ্গাভাব: উচ্ছাস তৃনমূলে চট্টগ্রামের হিজরা সুমন মানবিক কাজে আত্ম তৃপ্তি পান সরিষাবাড়ীতে দুই শিশু শিক্ষার্থী হারানোকে কেন্দ্র করে মাদ্রাসায় হামলা ভাঙচুর ও শিক্ষককে লাঞ্ছিত

গাজীপুরে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে পোস্ট অফিস

গাজীপুর মহানগরীর চান্দনা চৌরাস্তায়  পরিত্যক্ত ও ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে পোস্ট অফিসের দৈনিন্দন কাজ।এমনি চিত্র চান্দনা চৌরাস্তা পোস্ট অফিসের।  পোস্ট অফিসটি স্থাপনের দীর্ঘ কয়েক যুগ পেরিয়ে গেলেও আজও মেলেনি  নিজস্ব কোন ভবন।অনেকটা বাধ্য হয়েই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হচ্ছে  বাসন ইউনিয়ন পরিষদের  পুরাতন পরিত্যক্ত ও ঝুঁকিপূর্ণ একতলা ভবনের একটি কক্ষে। ভবনের সামনের অংশে ময়লা আবর্জনার কারণে বুঝার উপায় নেই ভবনটির ভিতরে একটি পোস্ট অফিস রয়েছে। এছাড়া মহাসড়ক নতুনকরে সংস্কার ও উচু হওয়াতে ভবনটি অনেকটা নিচু হয়ে পড়েছে। যারফলে বর্ষাকালে অল্প বৃষ্টিতেই পানিতে তলিয়ে গিয়ে  ভবনের ভিতরে জলবদ্ধতার  সৃষ্টি হয়। এমনি পরিস্থিতিতে বছরের পর বছর জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হচ্ছে এখানকার পোস্ট অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের।
দায়িত্বরত পোস্ট মাষ্টার ফারজানা আক্তার বললেন,প্রায় তিনবছর হলো এই পোস্ট অফিসে তিনি দায়িত্ব পালন করছেন।
নিজস্ব কোন ভবন না থাকায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে   ইউনিয়ন পরিষদের পরিত্যক্ত জরাজীর্ণ ভবনের একটি কক্ষে কাজ করতে হচ্ছে। তিনি আরও বলেন এখানে কোন সিকিউরিটি নেই, অফিস কক্ষের  পুরনো দরজা জানালাও গুণ দরে নরবরে হয়ে পড়েছে।
অনেক মূল্যবান কাগজ অরক্ষিত অবস্থায় রেখে যেতে হয়। উপায়ন্তর না দেখে নিজেই বাড়ী থেকে একটি স্টিলের আলমারি এনে প্রয়োজনিও কাগজপত্র রাখতে হচ্ছে।এছাড়া এখানে কোন টয়লেট নেই প্রয়োজনে যেতে হয় বাহিরে কোন মার্কেটের টয়লেটে। এছাড়াও  একজন পোস্ট মেন, একজন রানার ও পোস্ট মাষ্টার  তিনজনে কাজ করতে হচ্ছে একটি মাত্র কক্ষে। ভবনটি মেরামত ও নতুন স্থায়ী ভবন নির্মাণ করার জন্য একাধিকবার ডাক বিভাগের উর্ধতন কর্মকর্তাকে লিখিতভাবে জানানো হলেও কোন সারা মেলেনি। তিনি আরও বলেন ভবনটির সামনের অবস্থা নোংরা থাকায় রাতের আধারে বাসযাত্রী ও সাধারণ মানুষ প্রাকৃতিক কাজ সারার কারণে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়ে পড়েছে এমন পরিস্থিতিতে এখানে কাজ করা কঠিন হয়ে পড়েছে। এমনি পরিস্থিতিতে  উর্ধতন কর্তৃপক্ষের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন এখানকার পোস্ট অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারীগন।

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved