বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
ছাতকের পরিস্থিতি ভয়াবহ,সারা‌দে‌শে সঙ্গে সড়ক যোগা‌যোগ বন্ধ পিরোজপুরে বাস চাপায় কলেজ ছাত্র নিহত ১৭ মে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা,গণতন্ত্রের অগ্নিবীণা ও উন্নয়ন-প্রগতির প্রত্যাবর্তনঃ তথ্যমন্ত্রী নাজিরপুর অঞ্চলের কৃষকের স্বপ্ন প্রতি বছর তলিয়ে যায় পানির নিচে কালিহাতীতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন রাজশাহী জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের ভোট স্থগিত প্রফেসর ডাক্তার উত্তম কুমার বড়ুয়াকে সংবর্ধিত করলো মিলন-পুর্নিমা ফাউন্ডেশন ঈদগাঁওর ৫ ইউনিয়নে আওয়ামী রাজনৈতিক অঙ্গনে চাঙ্গাভাব: উচ্ছাস তৃনমূলে চট্টগ্রামের হিজরা সুমন মানবিক কাজে আত্ম তৃপ্তি পান সরিষাবাড়ীতে দুই শিশু শিক্ষার্থী হারানোকে কেন্দ্র করে মাদ্রাসায় হামলা ভাঙচুর ও শিক্ষককে লাঞ্ছিত

পান দোকানদার সেজে ১৯ মামলা্র আসামি শাহ জামালকে ধরল পুলিশ!

কমল চক্রবর্তীঃ
চট্টগ্রামের বৃহত্তর পাইকারিবাজার খাতুনগঞ্জের বিভিন্ন ব্যবসায়ীর ৫০ কোটি টাকা আত্মসাৎকারী ১৯ মামলায় আসামি মেসার্স শাহ জামাল ট্রেডার্সের সত্ত্বাধিকারী শাহ জামালকে ভাসমান পান দোকানদার সেজে গ্রেফতার করেছে কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

গতকাল মঙ্গলবার (১ ফেব্রুয়ারি) রাতে চকবাজার থানার চন্দনপুরা সাফরান ভিলার দ্বিতীয় তলার বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার কৃত আসামী শাহ জামাল (৫৫) চট্টগ্রামের বৃহত্তর পাইকারিবাজার খাতুনগঞ্জের ২২৮ নং শেখ মার্কেটের মেসার্স শাহ জামাল ট্রেডার্সের সত্ত্বাধিকারী।

আজ বুধবার (২ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন ঢাকা পোস্টকে বলেন, শাহ জামাল খাতুনগঞ্জের বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে ৫০ কোটি টাকার উপরে আত্মসাৎ করেছেন বলে স্বীকার করেছেন।

তিনি বলেন, শাহ জামালকে ২০২০ সালে ১৬টি সিআর গ্রেফতারি পরোয়ানা মূলে গ্রেফতার করা হয়েছিল। কিন্তু জামিনে বের হয়ে এসে তিনি পুনরায় বিভিন্ন ব্যবসায়ীর কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করেন।

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নেজাম উদ্দিন জানান, শাহ জামাল আত্মগোপন করার জন্য দেশে থেকেই বিদেশ চলে গেছেন বলে বিভিন্ন ব্যবসায়ীর নিকট প্রচার করে আসছিল। তার এক ছেলে অস্ট্রেলিয়া ও এক ছেলে কানাডায় থাকে। যে কারণে অনেকে তার বিদেশ যাওয়ার বিষয়টি বিশ্বাস করে। কিন্তু শাহ জামাল বিদেশে না গিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে আত্মগোপন করে থাকতেন।

তিনি জানান, শাহ জামালকে গ্রেফতারের জন্য কোতোয়ালী থানার এএসআই সাইফুল আলম ও এএসআই রণেশ বড়ুয়া বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ছদ্মবেশ ধারণ করে খুঁজতে থাকেন। তারা কখনো পান দোকানদার, কখনো চা দোকানদার, কখনো মার্কেটিং কোম্পানির সেলসম্যান পরিচয়ে খাতুনগঞ্জ, আসাদগঞ্জ, চকবাজার, চন্দনপুরা ও আন্দরকিল্লা এলাকায় খুঁজতে থাকেন। একপর্যায়ে গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারেন, আসামি শাহ জামাল তার বাসায় অবস্থান করছেন। এ্মন তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাতে পুলিশ সদস্যরা আসামির বাসার সামনে ভাসমান পান দোকানদার সেজে অবস্থান করেন। পরে তার বাসায় অভিযান চালিয়ে বাসার ভেতরে থাকা একটি সানসেট বক্সের ভেতর থেকে জামালকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, আসামি একজন প্রতারক। তার বিরুদ্ধে ৪টি সিআর সাজা ও ৩টি সিআর গ্রেফতারি পরোয়ানাসহ কোতোয়ালী ও চকবাজার থানায় মোট ১৯টি গ্রেফতারি পরোয়ানা আছে।

বিএস/কেসিবি/সিটিজি/৩ঃ১৪পিএম

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved