মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:২০ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
বাবাকে হত্যার পর ছেলে নিজেই থানায় গিয়ে হত্যার কথা জানালেন পুলিশকে নবীনগরে নবনির্মিত শহীদ মিনারের শুভ উদ্বোধন ও মা সমাবেশ অনুষ্ঠিত মানিকগঞ্জ সদর ও সিংগাইর উপজেলায় অভিযান চালিয়ে ১১ কেজি গাঁজাসহ আটক-৪ কোনো কাজী বাল্য বিবাহ সম্পাদন করলে লাইসেন্স বাতিল- জ্যোতি বিকাশ  ধামরাই পৌরসভার পূর্ব কায়েতপাড়া শাইলাটেকি ভদ্রাকালী মন্দির প্রাঙ্গণে নামযজ্ঞ ও অষ্টকালীন লীলাকীর্তন উৎসব উদযাপন  হজরত খানবাহাদুর আহছানউল্লাহ্ (রঃ) এর ওরছ শরীফ আগামী ৯,১০ ও ১১ ফেব্রুয়ারি ময়মনসিংহে রেজিষ্ট্রেশন বিহীন মোটরসাইকেল ও হেলমেট বিহীন চালকদের বিরুদ্ধে অভিযান  বিএলএফ চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলা কমিটির উদ্যোগে শ্রমিকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত শ্রীমঙ্গলে এমসিডা আলোয়- আলো কিশোর কিশোরী বালিকা ফুটবল টুর্নামেন্ট -২০২৩ খ্রিঃ তুরস্কে ভূমিকম্পে নিহত ১১৮, ধ্বংসস্তূপে আটকে আছেন বহু মানুষ

অটোমোবাইল খাতের বিকাশে নীতিসহযোগিতা চান উদ্যোক্তারা: এফবিসিসিআই স্ট্যান্ডিং কমিটির বৈঠক

বাংলাদেশে অটোমোবাইল শিল্পের বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু পর্যাপ্ত নীতিমালার অভাবে দেশে মোটরসাইকেল, সিএনজি ও গাড়ির নকশা ও যন্ত্রাংশ তৈরি করা যাচ্ছে না। এসব কাজের ৯৯ শতাংশই করছেন বিদেশী ভেন্ডররা। অথচ দেশীয় ভেন্ডর উন্নয়নের সরকারের পক্ষ থেকে কোন কার্যক্রম নেই। দেশে শক্তিশালী অটোমোবাইলের উন্নয়নে খাতভিত্তিক নীতিসহযোগিতা চান উদ্যোক্তারা।

অটোমোবাইল ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড অসেম্বালার্স সম্পর্কিত এফবিসিসিআই এর স্ট্যান্ডিং কমিটির প্রথম বৈঠকে এ দাবি জানান তারা।

বুধবার দুপুরে এফবিসিসিআই কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এফবসিসিআইর সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন। তিনি বলেন, একসময় বাংলাদেশ ছিলো শুধুই আমদানি নির্ভর একটি দেশ। বর্তমান বাংলাদেশের সক্ষমতা বেড়েছে কয়েক গুন। প্রয়োজনীয় অনেক পণ্য এখন তৈরী হচ্ছে দেশে, পাশাপাশি রপ্তানীও হচ্ছে। পর্যাপ্ত ব্র্যান্ডিং এর অভাবে বিশ্বের অনেক দেশ এখনও বাংলাদেশের সক্ষমতা সম্পর্কে জানেনা।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে এখন অনেক পণ্যই তৈরি হচ্ছে যেগুলো আগে ছিলো শুধুই আমদানি নির্ভর। অটোমোবাইল একটি বড় সম্ভাবনাময় খাত। মটরসাইকেল সহ এখাতের অনেক পণ্য এখন দেশে তৈরি হচ্ছে, পাশাপাশি বিদেশে রপ্তানী হচ্ছে। দেশের এ সক্ষমতা ব্র্যান্ডিং করা হলে রপ্তানি ও বিনিয়োগ বাড়বে। বিপুল কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

কমিটির ডিরেক্টর ইন-চার্জ, এফবিসিসিআই’র সহ-সভাপতি মোঃ হাবিব উল্লাহ্ ডন বলেন, নীতিমালা সংক্রান্ত সমস্যাগুলো সমাধানের পাশাপাশি পণ্যের গুনগতমান নিশ্চিত করে দেশে প্রতিযোগীতামূলক বাজার তৈরি করতে হবে। অটোমোবাইল খাতকে এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ের প্রতিনিধিগণকে নিয়ে ভবিষ্যতে প্রয়োজনীয় সভা সেমিনার আয়োজন করার কথা জানান মোঃ হাবিব উল্লাহ ডন।

অটোমোবাইল সহ খাতভিক্তিক উন্নয়নে কাজ করতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানান সভার  সভাপতি ও স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান। এজন্য খাতওয়ারী সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা প্রস্তুত করে তা এফবিসিসিআই’র মাধ্যমে সরকারেরর কাছে উপস্থাপন করার আহ্বান জানান। উন্নয়ন আরো গতিশীল হবে। তিনি আরও জানান, এফবিসিসিআই সরকারের সাথে ভেন্ডর নীতিমালা নিয়ে এরইমধ্যে কাজ শুরু করেছে।

কমিটির কো-চেয়ারম্যান, উত্তরা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মতিউর রহমান অভিযোগ করেন, ব্যবসায়ীদের সাথে আলোচনা না করেই নীতিমালা প্রণয়নের ফলে, অটোমোবাইল খাতের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। তিনি বলেন, এ খাতের উদ্যোক্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে নীতি প্রণয়ন করলে, তা দেশের অটোমোবাইল শিল্পের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করবে।


বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved