বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৪:৫০ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
ছাতকের পরিস্থিতি ভয়াবহ,সারা‌দে‌শে সঙ্গে সড়ক যোগা‌যোগ বন্ধ পিরোজপুরে বাস চাপায় কলেজ ছাত্র নিহত ১৭ মে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা,গণতন্ত্রের অগ্নিবীণা ও উন্নয়ন-প্রগতির প্রত্যাবর্তনঃ তথ্যমন্ত্রী নাজিরপুর অঞ্চলের কৃষকের স্বপ্ন প্রতি বছর তলিয়ে যায় পানির নিচে কালিহাতীতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন রাজশাহী জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের ভোট স্থগিত প্রফেসর ডাক্তার উত্তম কুমার বড়ুয়াকে সংবর্ধিত করলো মিলন-পুর্নিমা ফাউন্ডেশন ঈদগাঁওর ৫ ইউনিয়নে আওয়ামী রাজনৈতিক অঙ্গনে চাঙ্গাভাব: উচ্ছাস তৃনমূলে চট্টগ্রামের হিজরা সুমন মানবিক কাজে আত্ম তৃপ্তি পান সরিষাবাড়ীতে দুই শিশু শিক্ষার্থী হারানোকে কেন্দ্র করে মাদ্রাসায় হামলা ভাঙচুর ও শিক্ষককে লাঞ্ছিত

কখনো গার্মেন্টস-এনজিওর মালিক,কখনো ডাকাত; বহুরুপী এক প্রতারক নারী আটক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
কখনো গার্মেন্টস মালিক, কখনো এনজিওর মালিক, আবার কখনো ডাকাতি করেন, অভিনব পন্থায় প্রতারণাকারী পারভীন আক্তার (৫১) নামে এক নারীকে গ্রেফতার করল কোতোয়ালী থানা পুলিশ।
গতকাল মঙ্গলবার ১ জানুয়ারি দুপুর ২.৩০মিনিটের সময় কোতোয়ালী থানাধীন জুবিলী রোড, তিন পুলের মাথায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়।

আটককৃত পারভীন আক্তার নগরীর পাহাড়তলী থানাধীন দক্ষিণ কাট্টলী পুরান হরিদাশ রোডস্থ নেভী ভিলার বাসিন্দা মোঃ জহিরুল ইসলাম প্রকাশ জহিরুল সাঈদের স্ত্রী। বর্তমানে হালিশহর থানাধীন আর্টিলারী রোড, চুনা ফ্যাক্টরী মোড়, হল সেভেন কমিউনিটি সেন্টারের বিপরীতে বসবাস করেন।

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন জানান, কোতোয়ালী থানাধীন জুবিলী রোডস্থ তিন পুলের মাথা গোলাম রসুল মার্কেটের সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে পাহাড়তলী থানায় অর্থঋণ আদালত কর্তৃক ইস্যুকৃত ১টি গ্রেফতারি পরোয়ানা ও বিজ্ঞ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত কর্তৃক ইস্যুকৃত পাঁচলাইশ থানা এলাকার ডাকাতি মামলার ১টি গ্রেফতার পরোয়ানা সহ ২টি গ্রেফতারি পরোয়ানা আছে।

তিনি আরও জানান, আসামীর বিরুদ্ধে খোঁজখবর নিয়ে জানা যায়, আসামী একজন প্রতারক। সে এনজিওর মালিক পরিচয় দিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে হালিশহর থানা এলাকার অসংখ্য মানুষের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে আত্মসাৎ করেছে। আত্মসাৎকৃত টাকা না দেওয়ার জন্য একের পর এক বাসা পরিবর্তন করে নিজেকে আত্মগোপন করতে থাকে। সে দীর্ঘদিন যাবৎ প্রতারণার মাধ্যমে অসংখ্য লোকজনের নিকট হইতে গার্মেন্টসের পার্টনারশীপ বানিয়ে টাকা ধার নেয়। টাকা ধার নিয়ে কিছুদিন যোগাযোগ করে পরবর্তীতে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। আসামী ইতিপূর্বেও র‌্যাব-৭ কর্তৃক প্রতারনার মামলায় গ্রেফতার হয়।

বিএস/কেসিবি/সিটিজি/৭ঃ৪৭পিএম

 

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved