মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৬:২২ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
রেমিটেন্স যোদ্ধাদেরকে সম্মাননা দেবে মহানগর আওয়ামী লীগ- আ জ ম নাছির উদ্দীন যাত্রীর স্বর্ণালংকারসহ ব্যাগ চুরি;এ্যাপসের সহায়তায় সিএনজি চালক আটক রোহিঙ্গারা যাতে ভোটার তালিকায় স্থান না পায় সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবেঃ জেলা প্রশাসক চলচ্চিত্র ‍‘হুইল চেয়ার’র প্রিমিয়ার শো চট্টগ্রাম শিল্পকলায় বৃহস্পতিবার বাগেরহাট জেলার সেরা অফিসার নির্বাচিত হয়েছেন এসি ল্যান্ড মোঃ আলী হাসান খেলাধুলায় সম্পৃক্ত থাকলে আমাদের সন্তানরা বিপদগামী হবে না-মহিউদ্দীন মহারাজ ভান্ডারিয়ায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ড কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন কোভিড-১৯ এর সার্টিফিকেট নিয়ে বিদেশগামী সাধারণ যাত্রীদের সাথে প্রতারণা;চক্রের ৭ সদস্য গ্রেফতার নগরীতে র‍্যাব-৭ ও ভোক্তা অধিকার যৌথ অভিযান;১২ হাজার লিটার তৈল জব্দসহ ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা ঝুঁকিপূর্ণ সেতুটি সংস্কার করা হয়েছে 

যশোরে ১,৩৯১ মে. টন বেশি পেঁয়াজ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা

যশোরের কৃষকরা ব্যস্ত সময় পার করছেন শীতকালীন পেঁয়াজ চাষে। চলতি রবি মৌসুমে যশোর জেলার ৮ উপজেলায় ১ হাজার ৯১০ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। আর উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ২১ হাজার ৮৩১ মেট্রিক টন। গত মৌসুমে যশোরে পেঁয়াজ উৎপাদন হয়েছিলো ২০ হাজার ৪৪০ মেট্রিক টন।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর যশোর আঞ্চলিক অফিস সূত্রে জানা গেছে, জেলার মণিরামপুর উপজেলায় ৩৩০ হেক্টর, সদর উপজেলায় ১৫০ হেক্টর, শার্শা উপজেলায় ২১০ হেক্টর, ঝিকরগাছায় ৫৪০ হেক্টর, চৌগাছায় ৪৬০ হেক্টর, অভয়নগরে ৩০ হেক্টর, বাঘারপাড়ায় ৭০ হেক্টর ও কেশবপুর উপজেলায় ১২০ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

গত মৌসুমের (২০২০-২০২১) চেয়ে চলতি মৌসুমে (২০২১-২০২২) ২০০ হেক্টর বেশি জমিতে পেঁয়াজ চাষ হবে। গত মৌসুমে পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ১ হাজার ৭০০ হেক্টর জমিতে।
সাধারণত নভেম্বর মাসের শুরুতে পেঁয়াজ চাষ শুরু হলেও, অসময়ে বৃষ্টি হওয়ায় এ মৌসুমে ডিসেম্বরে শুরু হয়েছে পেঁয়াজ চাষ। চারা তৈরি করে ও বীজ থেকে সাধারণত এই ২ ভাবে পেঁয়াজ চাষ করা হয় বলে জানান কৃষকরা।

রাজগঞ্জের এনায়েতপুর গ্রামের কৃষক সোহরাব হোসেন  বলেন, ‘শীতকালীন পেঁয়াজ চাষের জন্যে জমি প্রস্তুত করেছি। রাজগঞ্জ হাটে এসেছি পেঁয়াজের চারা কিনতে। এখান থেকে চারা কিনে খেতে রোপণ করব।’
কেশবপুর উপজেলার মঙ্গলকোট গ্রামের মাহাবুবুর রহমান বলেন, ‘শীতকালীন পেঁয়াজের চারা রোপণ করেছি। আশা করছি ফলন ভালো হবে।’
কৃষি কর্মকর্তা মারুফুল হক  বলেন, ‘আমরা মাঠে মাঠে গিয়ে পেঁয়াজ চাষে কৃষকের সার্বিক সহযোগিতাসহ পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছি। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে চলতি মৌসুমে সব ধরনের আবাদ ভালো হবে। এজন্যে কৃষি বিভাগ সবসময় কৃষকের পাশে আছে।’

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আঞ্চলিক কৃষি অফিসের উপপরিচালক বাদল চন্দ্র বিশ্বাস জানান ‘চলতি মৌসুমে ১ হাজার ৯১০ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। বৃষ্টির কারণে দেরিতে চাষ শুরু হলেও ১ হাজার ৭৩ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজের আবাদ সম্পন্ন হয়েছে।’

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved