বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৬:৫২ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
১৭ মে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা,গণতন্ত্রের অগ্নিবীণা ও উন্নয়ন-প্রগতির প্রত্যাবর্তনঃ তথ্যমন্ত্রী নাজিরপুর অঞ্চলের কৃষকের স্বপ্ন প্রতি বছর তলিয়ে যায় পানির নিচে কালিহাতীতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন রাজশাহী জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের ভোট স্থগিত প্রফেসর ডাক্তার উত্তম কুমার বড়ুয়াকে সংবর্ধিত করলো মিলন-পুর্নিমা ফাউন্ডেশন ঈদগাঁওর ৫ ইউনিয়নে আওয়ামী রাজনৈতিক অঙ্গনে চাঙ্গাভাব: উচ্ছাস তৃনমূলে চট্টগ্রামের হিজরা সুমন মানবিক কাজে আত্ম তৃপ্তি পান সরিষাবাড়ীতে দুই শিশু শিক্ষার্থী হারানোকে কেন্দ্র করে মাদ্রাসায় হামলা ভাঙচুর ও শিক্ষককে লাঞ্ছিত নাটোরে ধর্ষণ মামলায় যুবক গ্রেফতার মনোহরদীতে নৌকার প্রার্থীর প্রচারণায় হামলা, ভাংচুর

শিশু আবু হুরায়রা হত্যা রহস্য উন্মোচন;খরগোশের লোভ দেখিয়ে হত্যা!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তালতলা এলাকার আব্দুল বারেক এর সন্তান নিখোঁজ স্কুলছাত্র আবু হুরায়রার হত্যা রহস্য উন্মোচন এবং হত্যাকারী মোমেনকে গ্রেফতার করেছে চুয়াডাঙ্গা থানা পুলিশ ।

গতকাল রবিবার ১৩ ফেব্রুয়ারি গভীর রাতে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তালতলা এলাকার কবরস্থান থেকে শিশু আবু হুরায়রার বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়।

আটককৃত আসামী মোমেন চুয়াডাঙ্গা সদর থানার তালতলা এলাকার শহীদুল এর ছেলে। তিনি পেশায় রাজমিস্ত্রীর সহযোগী বলে জানা গেছে ।

উদ্ধার কাজে চুয়াডাংগার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আনিছুজ্জামান, অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহসীন পিপিএম(বার),পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) সুখেন্দু বসু , তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই (নিঃ) মোঃ সাইদুজ্জামান ও এসআই (নিঃ) গোপাল চন্দ্র মন্ডল উপস্থিত ছিলেন।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গত ২ বছর আগে এক ঈদের রাতে উচ্চস্বরে সাউন্ড বক্স বাজাচ্ছিলেন মোমেনসহ তার বন্ধুরা। এতে ক্ষিপ্ত হন আবু হুরায়রার বাবা আব্দুল বারেক । রাগে তিনি সেই সাউন্ড বক্সের টেবিলে লাথি মারেন। এতে সাউন্ড বক্সটির টেবিল ভেঙে যায়। অনুষ্ঠানও পণ্ড হয়ে যায়। এতে মোমেনের তিন হাজার টাকা ক্ষতি হয়। এই ঘটনায় মোমেন মনে মনে ক্ষিপ্ত হন এবং ‘প্রতিশোধ’ নিতে সুযোগ খুঁজতে থাকেন। আর এজন্য তিনি টার্গেট করেন আব্দুল বারেক এর ছেলে আবু হুরায়রাকে। গত ১৯ জানুয়ারী বিকেলে আবু হুরায়রা খেলতে বের হয়। এসময় মোমিন তাকে একা পেয়ে খরগোশের লোভ দেখায়। আবু হুরায়রাকে খরগোশ দিবে বলে তালতলা সরকারী কবরস্থানে নিয়ে যান। এরপর হাত-পা বেঁধে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন। হত্যার পর প্রথমে লাশ রেখে চলে যান। পরবর্তীতে রাত ৮ টার দিকে আবারও এসে লাশ পুঁতে রাখেন।

চুয়াডাঙ্গা থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন পিপিএম(বার) জানান, মামলার সুত্র ধরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সন্দেহভাজন মোমেনকে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি তালতলা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাসে আব্দুল বারেক এর ছেলে আবু হুরায়রাকে হত্যার কথা স্বীকার করেন সে। পরে তার দেখিয়ে দেওয়া স্থান থেকে শিশু আবু হুরায়রার লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে এবং আসামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, নিখোজ আবু হুরায়রা তালতলা গ্রামের ভুট্টা ব্যবসায়ী ও কৃষক আবদুল বারেকের ছেলে। সাত ভাই বোনের মধ্যে সকলের ছোট আবু হুরায়রা। এ বছর লটারীর মাধ্যমে চুয়াডাঙ্গা ভি জে সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে তৃতীয় শ্রেণীতে ভর্তি হয়েছে সে। গত ১৯ জানুয়ারী বেলা সাড়ে ৩টার দিকে নিজ বাড়ী থেকে বের হয়ে আবু হুরায়রা পার্শ্ববর্তী বাড়ীর রনজু হক নামের এক প্রাইভেট শিক্ষকের কাছে পড়তে যায়। ওই শিক্ষকের ঘরে বই-ব্যাগ রেখে বাইরে বের হয়। এরপর থেকে অনেক খোঁজাখুঁজি  ও এলাকায় মাইকিংও করেও তাকে পাওয়া যায়নি। পরে তারা রাতে পুলিশকে জানায়। বাড়ীর পাশে পুকুরে পড়েছে কিনা জানতে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা এসে পুকুরে দীর্ঘসময় ধরে তল্লাশি করেন। তবু সন্ধান মেলেনি। বিভিন্ন উপায়ে খোঁজাখুঁজি করেও সন্ধান না পেয়ে এক সপ্তাহ পর ২৫ জানুয়ারি রাতে সদর থানার মামলা দায়ের করেন পিতা আবদুল বারেক।

বিএস/কেসিবি/সিটিজি/২ঃ৩০পিএম

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved