মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৪:৩৯ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
রেমিটেন্স যোদ্ধাদেরকে সম্মাননা দেবে মহানগর আওয়ামী লীগ- আ জ ম নাছির উদ্দীন যাত্রীর স্বর্ণালংকারসহ ব্যাগ চুরি;এ্যাপসের সহায়তায় সিএনজি চালক আটক রোহিঙ্গারা যাতে ভোটার তালিকায় স্থান না পায় সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবেঃ জেলা প্রশাসক চলচ্চিত্র ‍‘হুইল চেয়ার’র প্রিমিয়ার শো চট্টগ্রাম শিল্পকলায় বৃহস্পতিবার বাগেরহাট জেলার সেরা অফিসার নির্বাচিত হয়েছেন এসি ল্যান্ড মোঃ আলী হাসান খেলাধুলায় সম্পৃক্ত থাকলে আমাদের সন্তানরা বিপদগামী হবে না-মহিউদ্দীন মহারাজ ভান্ডারিয়ায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ড কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন কোভিড-১৯ এর সার্টিফিকেট নিয়ে বিদেশগামী সাধারণ যাত্রীদের সাথে প্রতারণা;চক্রের ৭ সদস্য গ্রেফতার নগরীতে র‍্যাব-৭ ও ভোক্তা অধিকার যৌথ অভিযান;১২ হাজার লিটার তৈল জব্দসহ ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা ঝুঁকিপূর্ণ সেতুটি সংস্কার করা হয়েছে 

উদ্যোক্তাকে সরানোই যেন চেয়ারম্যানের মূল উদ্দেশ্য

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার দীঘা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের মূল উদ্দেশ্যই যেন উদ্দোক্তাকে তাড়ানো। এমনটিই চিত্র দেখা গেছে ইউনিয়ন পরিষদ সরেজমিনে গিয়ে।
বিগত স্থানীয় সরকার নির্বাচনে তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মহম্মদপুরের দীঘা ইউনিয়ন পরিষদে মোঃ খোকন মিয়া নৌকা প্রতিক নিয়ে চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হন। শপথ গ্রহণের পর থেকেই পরিষদের ১৬ বছরের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন উদ্দোক্তা মোঃ আকবর হোসেন কে তাড়ানোর জন্য বিভিন্ন লোকজন দিয়ে হয়রানির ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে জানা গেছে। সম্প্রতি উদ্দোক্তা আকবর হোসেনের রুমে তালা ঝুলিয়ে দেওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। গত ১৭ই ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার দীঘা ইউনিয়নের শাহেব আলী মোল্যার ছেলে মোঃ আলী কদর ২০২০ জন্ম নিবন্ধন করার জন্য আকবর হোসেনকে ১১শত টাকা দিয়ে কাজ না হওয়ায় স্থানীয়দের মাধ্যমে উদ্দ্যোক্তার রুমে তালা ঝুলিয়ে দেন।
উদ্দোক্তা আকবর হোসেন বিষয়টি চেয়ারম্যানকে জানালেও তিনি কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি। বরং উল্টো উদ্দ্যোক্তা আকবর হোসেনকে পরিষদ থেকে চলে যেতে বলেন। ঘটনার পর থেকে আকবর হোসেন বাড়িতে অবস্থান করছেন।
এবিষয়ে চেয়ারম্যান খোকন মিয়ার সাথে কথা বললে তিনি জানান, উদ্দ্যোক্তা আকবর হোসেন সেবা গ্রহিতাদের নিকট থেকে অতিরিক্ত টাকা নিয়েছেন এমন সংবাদে তাকে তাৎক্ষণিক পরিষদে আসতে নিষেধ করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আসা অভিযোগ যাচাই করে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে। বিভিন্ন নামে আবেদন করে তাদের ডেকে স্বাক্ষর করানো হচ্ছে কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা ঠিক না। চেয়ারম্যানের নিকট থেকে তালা দেওয়ার বিষয়ে প্রশ্নের কোনও উত্তর পাওয়া যাইনি।  উদ্দোক্তার বিরুদ্ধে লেখা স্বাক্ষরবিহীন আবেদন পাওয়া গেছে চেয়ারম্যানের কাছে। পরবর্তীতে আবেদনকারীকে ডেকে স্বাক্ষর করানো হচ্ছে।
চেয়ারম্যানের নিকট থাকা স্বাক্ষরবিহীন আবদেনকারী দীঘা গ্রামের মৃত তোজাম মোল্যার ছেলে ইমরানের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্বাক্ষর করতে মনে ছিল না।
উদ্দোক্তা আকবর হোসেন বলেন দীর্ঘ ১৬ বছর পরিষদে মানুষের সেবা করে গেছি। কারও নিকট থেকে অতিরিক্ত টাকা নিয়েছি এমনটা হয়নি। তিন সন্তান, মা আর স্ত্রীকে নিয়ে কোনও মতে টিকে আছি। জমানো অর্থ বলতে কিছুই নেই। আজ আমাকে ষড়যন্ত্র করে সরিয়ে দিয়ে অন্য একজনকে কাজ করানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। কেন এমনটা হচ্ছে?  এমন প্রশ্নে তিনি বলেন! হয়তো কর্তা ব্যক্তির প্রীয় হতে পারিনি।
আকবরের স্ত্রী সালমা ইয়াসমিন বলেন, আমাদের তিনটি সন্তান, অসুস্থ শাশুড়ি নিয়ে খুব কষ্টের সংসার। ঘুষ নিলে হয়তো আমাদের সংসার এর থেকে ভাল চলতো। কিন্তু ওদের বাবা কয়দিন পরিষদে না যাওয়ায় হাড়িতে চাল নেই। ছোট ছেলেটার বয়স তিন বছর। বড় দুইটা তেমন বিরক্ত করেনা। ছোট ছেলেটার জন্য ওর চাচা তিন প্যাকেট চিপস্ কিনে দিয়েছে। একথা বলে তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।
ইউনিয়নের স্থানীয় হাটবাড়িয়া গ্রামের রাজ্জাক মোল্যা (৬০), মঞ্জুরুল ইসলাম (৪৫), ফলোশিয়া গ্রামের সালাম মুন্সী (৬৫), তৌহিদুল (৪৮), আরিফ (৩৫), ভাটরা গ্রামের সালমা খাতুন (৫০), পাচুড়িয়া গ্রামের গোলাম নবী (৬৮) সহ অনেকে বলেন দীর্ঘদিন ধরে আকবর হোসেন আমাদেরকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। কখনও অতিরিক্ত টাকা নিতে দেখিনি। নতুন চেয়ারম্যান ষড়যন্ত্র করে তাকে তাড়ানোর চেষ্টা করছেন বলে ধারণা হচ্ছে।
স্থানীয় বাসিন্দা হাসান উদ্দিন (৬০), মোসলেম মোল্যা (৫৮), সিদ্দিক মোল্যা (৬২) সহ অনেকে বলেন, নিজ চোখে দেখেনি তবে শুনেছি আকতার নামে একটি ছেলের নিকট থেকে চেয়ারম্যান ৫লক্ষ টাকা গ্রহণ করে তাকে উদ্দ্যোক্তা হিসেবে কাজে যোগ দেওয়াবে।
মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার রামানন্দ পাল বলেন, এবিষয়ে অবগত হয়েছি। উক্ত ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানকে অভিযোগের বিষয়ে লিখিত ভাবে উপস্থাপন করতে বলা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved