রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:৫৬ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
জমি নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ২ জন নিহত পূজাকে ঘিরে মাটির তৈরি খেলনা রাঙাতে ব্যস্ত যশোরের মৃৎশিল্পীরা দিনাজপুরে কৃষি জমির ধান কেটে ফসল নষ্ট করার প্রতিবাদে জাবেদ কে কুপিয়ে গুরুতর জখম রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ১৮ লক্ষ টাকা মূল্যের ইয়াবা উদ্ধার মুন্সীগঞ্জে কোস্ট গার্ডের অভিযানে ২২ হাজার লিটার চোরাই ডিজেলসহ আটক-০২ মুন্সীগঞ্জ‌ে পুলিশ পাহারায় যুবদলকর্মী শাওনের দাফন নোয়াখালীতে ক্রাইম পেট্রোল দেখে শিখে অদিতাকে খুন,   ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে বালিশ চাপায় শ্বাসরোধ; মৃত্যু নিশ্চিত করতে জবাই মেসির জোড়া গোলে আর্জেন্টিনার দুর্দান্ত জয় এইচএসসি ব্যাচ-২২ এর উদ্যোগে ও আয়োজনে ব্যতিক্রমী শিক্ষা সমাপনী “Flashmob” অনুষ্ঠিত ধোবাউড়া কলসিন্দুরে ফুটবল কন‍্যাদের পরিবারের পাশে জেলা প্রশাসন

বদলে গেছে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগার

লেখাপড়া, বইপড়া, খেলা-ধুলা আর বিনোদনের ব্যবস্থা রয়েছে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে। হস্তশিল্পের কাজ করে রোগজারের সুযোগ পাচ্ছেন কয়েদিরা। দৃষ্টি কাড়ছে নবনির্মিত বঙ্গবন্ধু কর্নার। কারা লাইব্রেরির ঝুলি পূর্ণ হয়েছে ১০ হাজার বইয়ে। খাবার ও আবাসনসহ চিকিৎসায় ফিরেছে স্বচ্ছতা। কারা ক্যান্টিনের গলাকাটা ব্যবসাও বন্ধ হয়েছে। হাজতির চাপও কমেছে। ধারণ ক্ষমতার অর্ধেকে নেমেছে হাজতির সংখ্যা। বসত বাড়ির রূপ ফিরে পেয়েছে কারাগারটি। এর সুফল পাচ্ছেন কারা সংশ্লিষ্ট সবাই। জামিনে ছাড়া পাওয়া বেশ কয়েকজন এ তথ্য জানিয়েছেন।
সূত্র জানিয়েছে, যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ দীর্ঘদিনের। কথিত আছে, যশোর জেলখানায় টাকা ফেললে মেলে ‘বাঘের চোখ’। ঘাটে ঘাটে ঘুষ দিয়ে পাওয়া যায় নানা অনৈতিক সুবিধা। মাদক থেকে শুরু করে পোলাও, বিরিয়ানি মাংস ভাত। মুঠোফোনে স্ত্রী থেকে শুরু করে প্রেয়সী, এমনকি গডফাদার’র সঙ্গেও ঘণ্টার পর ঘণ্টা কথা বলার সুযোগ ছিল এখানে!
কিন্তু গত কয়েক বছরে বদলে গেছে সেই চিত্র। সদ্য জামিনে ছাড়া পাওয়া নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জানান, মাদক মামলায় তিনি জেলে ছিলেন। ৩ মাসের কারাজীবনে বদলে গেছে তার নেতিবাচক ধারণা। তার ভাষ্যমতে, এখন মেডিকেলে থাকতে আগের মতো মাসে দুই-তিন হাজার টাকা ঘুষ দিতে হয় না। ঘুষ দিয়ে কারা অভ্যন্তরে রাজকীয় জীবন যাপনের সুযোগ নেই। মাদক সিন্ডিকেট ভেঙে গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। ক্যান্টিনে ২৫ টাকা প্যাকেটের বিড়ি এখন দেড়শ’ টাকায় কিনতে হয় না। বডি
বেনাপোলের তুরিন আফরোজ নামের এক নারী হাজতি বলেন, ফেনসিডিলের মামলায় জেলে ছিলাম। প্রায় ৬ মাস পর জামিনে তিনি কারামুক্ত হয়েছেন। তিনি জানান, আগেও জেলে গিয়েছি কিন্তু তখন যশোর জেলখানায় ভীতিকর পরিবেশ ছিল। নারীদের নানাভাবে হয়রানী করা হতো। এবার দেখলাম সবকিছু পাল্টে গেছে। মানবিক আচরণ করেন কারা কর্তৃপক্ষ।
যশোর শহরের শংকরপুর মুরগী ফার্ম এলাকার রেশমা বেগম । তিনি গেল মাসে জামিনে ছাড়া পেয়েছেন। গাঁজা বিক্রির দায়ে তাকে কারাগারে যেতে হয়েছিল। তিনি বলেন, এখন জেলখানা আর বাড়ির মধ্যে কোনো তফাৎ নেই। কয়েদিরা হস্তশিল্পের কাজ করে বাড়িতে টাকা পাঠান। জেলে থেকেও যে রোজগার করা যায়। মুড়া, সিংহাসন চেয়ার ও শাড়ি-লুঙ্গি বানিয়ে অনেক কয়েদি বাড়িতে টাকা পাঠান। এদের সবাই সাজাপ্রাপ্ত আসামি।
যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার তুহিন কান্তি খান বলেন, আমাদের ভিশন হলো রাখিব নিরাপদ। মিশন হলো, বন্দিদের নিরাপদ আটক নিশ্চিত ও মানবিক আচরণ করা কারাকর্তৃপক্ষের দায়িত্ব ও কর্তব্য

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved