বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৫:২৮ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
১৭ মে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা,গণতন্ত্রের অগ্নিবীণা ও উন্নয়ন-প্রগতির প্রত্যাবর্তনঃ তথ্যমন্ত্রী নাজিরপুর অঞ্চলের কৃষকের স্বপ্ন প্রতি বছর তলিয়ে যায় পানির নিচে কালিহাতীতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন রাজশাহী জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের ভোট স্থগিত প্রফেসর ডাক্তার উত্তম কুমার বড়ুয়াকে সংবর্ধিত করলো মিলন-পুর্নিমা ফাউন্ডেশন ঈদগাঁওর ৫ ইউনিয়নে আওয়ামী রাজনৈতিক অঙ্গনে চাঙ্গাভাব: উচ্ছাস তৃনমূলে চট্টগ্রামের হিজরা সুমন মানবিক কাজে আত্ম তৃপ্তি পান সরিষাবাড়ীতে দুই শিশু শিক্ষার্থী হারানোকে কেন্দ্র করে মাদ্রাসায় হামলা ভাঙচুর ও শিক্ষককে লাঞ্ছিত নাটোরে ধর্ষণ মামলায় যুবক গ্রেফতার মনোহরদীতে নৌকার প্রার্থীর প্রচারণায় হামলা, ভাংচুর

সেনাবাহিনী-বিজিবিতে চাকুরীর প্রলোভনে কোটি টাকা আত্মসাৎ;ভূয়া সেনা কর্মকর্তাসহ ৩ প্রতারক গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
র‌্যাব-১ এর বিশেষ অভিযানে রাজধানীর দক্ষিণখান হতে সেনাবাহিনী/বিজিবিতে চাকুরীর প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়া ভূয়া সেনা কর্মকর্তাসহ ৩ জন প্রতারক গ্রেফতার।

গতকাল ২৩ ফেব্রুয়ারি রাত ১১ঃ০০ টায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটককৃত আসামীরা হলেন, দিনাজপুর জেলার মোঃ আজিজুল হকের ছেলে মোঃ সামসুুজ্জোহা ওরফে জুয়েল (৪০) ও নাটোর জেলার মৃত আতাউল করিম তালুকদারের ছেলে মোঃ শামীম হাসান তালুকদার (৩৮) এবং নাটোর জেলার মৃত আব্দুল গোফরানের ছেলে মোঃ আলমগীর হোসেন (৪০)।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, বিগত কয়েক বছর যাবৎ ধৃত আসামী সামসুুজ্জোহা ওরফে জুয়েল দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে চাকুরী প্রত্যাশী ও তাদের পরিবারের সাথে সুকৌশলে পরিচিত হয় এবং উক্ত পরিচয়ের সূত্র ধরে ধৃত আসামী তার পরিচিত কয়েকজন উর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তার মাধ্যমে সেনাবাহিনী/বিজিবিতে চাকুরী দিতে পারবে মর্মে জানায়। ভিকটিমদের সরলতার সুযোগ নিয়ে তাদেরকে সেনাবাহিনী/বিজিবিতে বেসামরিক বিভিন্ন পদে চাকুরী দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে কৌশলে বিশ্বাস অর্জন করে এবং একপর্যায়ে সেনাবাহিনী/বিজিবিতে বেসামরিক পদে চাকুরীর জন্য ধৃত আসামী ভিকটিমদের ৫/৭ লক্ষ টাকা দিতে হবে বলে জানায়। ভিকটিম ও ভিকটিমের পরিবার তার কথায় সরল বিশ্বাসে ৫/৭ লক্ষ টাকা দিতে রাজি হয়। অতঃপর ভিকটিমদেরকে তাদের গ্রামের বাড়ি হতে মেডিকেল চেকআপ করার কথা বলে ধৃত আসামী সেনাকর্মকর্তার পিএ পরিচয় প্রদানকারী প্রতারক মোঃ আলমগীর হোসেন এর মাধ্যমে ধৃত অপর আসামী উর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তা (লেঃ কর্নেল) পরিচয়দানকারী প্রতারক মোঃ শামীম হাসান তালুকদারের সাথে সাক্ষাৎ করানোর জন্য ঢাকা সেনানিবাস সংলগ্ন বিভিন্ন এলাকায় নিয়ে যায়। পরবর্তীতে ধৃত আসামীরা ভিকটিমকে একটি ভূয়া নিয়োগপত্র প্রদান করে, যাতে সেনাবাহিনী/বিজিবি’র মনোগ্রাম সম¦লিত বেসামরিক পদে চাকুরীর নিয়োগপত্র শিরোনাম মুদ্রিত থাকে। নিয়োগপত্রে ভিকটিমের নাম-ঠিকানা, স্বাক্ষরসহ নিয়োগপত্রের পেছনে আঙ্গুলের ছাপ নেয় এবং কাউকে কিছু না বলে ভিকটিমদেরকে চুপচাপ বাড়ি চলে যেতে বলে।
র‌্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অফিসার) সহকারী পুলিশ সুপার নোমান আহমদ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকার দক্ষিণখান এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে প্রতারক চক্রের সক্রিয় ৩ সদস্যেকে আটক করা হয়। এসময় ধৃত আসামীদের নিকট হতে ১ টি ভূয়া সেনাবাহিনীর পরিচয়পত্র, ২ টি ভূয়া বিজিবি’র পরিচয়পত্র, ৩ টি ভূয়া নিয়োগপত্র, ১৬ পাতা ব্যাংক স্টেটমেন্ট, ১ টি ব্যাংক চেক ও প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ৬ টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

তিনি জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, মোঃ সামসুজ্জোহা ওরফে জুয়েল এই চক্রের মূল হোতা। সে অস্ত্র আইন, নারী নির্যাতন, প্রতারণা ও মাদকসহ মোট ৮টি মামলায় ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী। ২০১৫ সালের দিকে চক্রের অপর দুই সদস্যের সাথে তার পরিচয় হয়। প্রতারক আলমগীর ও প্রতারক শামীম দুইজনই কম্পিউটার প্রিন্ট, ফটোকপি, অনলাইন জব এপ্লিকেশনের দোকান এর মালিক। তাদের দোকানে অনলাইনে চাকুরির জন্য আবেদন করতে আসা ব্যক্তিদের মাধ্যমেই তারা বিভিন্ন বাহিনী/সরকারি চাকুরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির তথ্য সংগ্রহ করত। সেখান থেকে প্রাপ্ত চাকুরী প্রার্থীদেরকেই তারা প্রাথমিকভাবে টার্গেট করত। এছাড়াও, প্রতারক মোঃ শামসুজ্জোহা ওরফে জুয়েল শুরু থেকেই নিজেকে বিজিবি’র সদস্য (হাবিলদার মেডিঃ এসিস্ট্যান্ট) হিসাবে ভুয়া পরিচয় প্রদান করে আসছিল। ফলে, অনেকেই তার সাথে চাকুরী পাবার আশায় যোগাযোগ করত বলে প্রাথমিকভাবে জানা যায়। মূলত এই চক্রটি দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের হতদরিদ্র পরিবারের লোকজনকে বাহিনীতে চাকুরির মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রতারণার উদ্দেশ্যে টার্গেট করত। তারা চাকুরি প্রার্থীদেরকে নিয়োগ পরীক্ষা, নিয়োগপত্র প্রদান ইত্যাদি সংক্রান্ত ভুয়া এসএমএস প্রেরণের জন্য পৃথক সিম ব্যবহার করে আসছিল।

তিনি আরও জানান, আসামী মোঃ শামীম হাসান তালুকদারকে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে যে, তারা একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক দলের সক্রিয় সদস্য। সে ভিকটিমদের নিকট সেনাবাহিনী/বিজিবিতে বেসামরিক বিভিন্ন পদে চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে নিজেকে সেনাবাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তা (লেঃ কর্নেল পদবীর অফিসার) হিসেবে পরিচয় দেয়। ধৃত অপর আসামী সামসুুজ্জোহা ওরফে জুয়েল দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে চাকুরী প্রত্যাশীদের সেনাবাহিনীর অফিস করণিক, বাবুর্চি, মেসওয়েটার, স্টোরম্যান ইত্যাদি পদে চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ধৃত আসামী মোঃ শামীম হাসান তালুকদার এর নিকট নিয়ে আসত। ধৃত আসামী মোঃ আলমগীর হোসেন শামীমকে প্রতারণার কাজে সহযোগীতা করে আসছিল। প্রতারক চক্রটি দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে চাকুরী প্রত্যাশীদের ঢাকায় এনে সেনাবাহিনী/বিজিবি’র বিভিন্ন বেসামরিক পদে চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দেখায় এবং ভ‚য়া নিয়োগপত্র প্রদান করে। পরবর্তীতে ভিকটিমরা নিয়োগপত্র নিয়ে বিভিন্ন ক্যান্টনমেন্টে যোগদান করতে গেলে ভ‚ক্তভোগীরা জানতে পারে তাদের নিয়োগপত্র ভূয়া। এভাবে তারা সেনাবাহিনী/বিজিবি’র ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করাসহ আনুমানিক প্রায় ০২ কোটির অধিক টাকা আত্মসাৎ করেছে।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন আছে বলেও জানান এই র‍্যাব কর্মকর্তা।

বিএস/কেসিবি/সিটিজি/৭ঃ৩০পিএম

 

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved