মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
রেমিটেন্স যোদ্ধাদেরকে সম্মাননা দেবে মহানগর আওয়ামী লীগ- আ জ ম নাছির উদ্দীন যাত্রীর স্বর্ণালংকারসহ ব্যাগ চুরি;এ্যাপসের সহায়তায় সিএনজি চালক আটক রোহিঙ্গারা যাতে ভোটার তালিকায় স্থান না পায় সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবেঃ জেলা প্রশাসক চলচ্চিত্র ‍‘হুইল চেয়ার’র প্রিমিয়ার শো চট্টগ্রাম শিল্পকলায় বৃহস্পতিবার বাগেরহাট জেলার সেরা অফিসার নির্বাচিত হয়েছেন এসি ল্যান্ড মোঃ আলী হাসান খেলাধুলায় সম্পৃক্ত থাকলে আমাদের সন্তানরা বিপদগামী হবে না-মহিউদ্দীন মহারাজ ভান্ডারিয়ায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ড কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন কোভিড-১৯ এর সার্টিফিকেট নিয়ে বিদেশগামী সাধারণ যাত্রীদের সাথে প্রতারণা;চক্রের ৭ সদস্য গ্রেফতার নগরীতে র‍্যাব-৭ ও ভোক্তা অধিকার যৌথ অভিযান;১২ হাজার লিটার তৈল জব্দসহ ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা ঝুঁকিপূর্ণ সেতুটি সংস্কার করা হয়েছে 

জমি ভাগাভাগি নিয়ে বিরোধের জেরে মামাকে নৃশংসভাবে হত্যা;আসামী শাহজাহান আটক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
সৎ ভাগিনা কর্তৃক জমি ভাগাভাগি নিয়ে বিরোধের জেরে মামাকে নৃশংসভাবে হত্যার ১০দিন পর হত্যাকারী আসামী মোঃ শাহজাহান (৫২) কে কুতুবদিয়া থেকে আটক করেছে র‌্যাব-৭।

গতকাল শনিবার ৩০ এপ্রিল বিকাল ৫ঃ০৫ মিনিটের সময় কক্সবাজার জেলার কুতুবদিয়া থানাধীন ধুরুং এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত আসামী মোঃ শাহজাহান চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী থানাধীন বুলবুলি পাড়া এ্লাকার মৃত ফুল মিয়া প্রঃ আব্দুল মালেক এর ছেলে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, নিহত ভিকটিম মুছা মিয়া পেশায় একজন সিএনজি চালক ছিলেন। মুছা মিয়া এবং তার সৎ ভাগিনা ধৃত আসামী শাহজাহানের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক ও জমি সংক্রান্ত ব্যাপারে বিরোধ চলছিলো। এ সংক্রান্ত ব্যাপারে মুছা মিয়ার সৎ ভাগিনা একটি মামলা করলে উক্ত মামলায় মুছা মিয়া ৬ মাসের হাজতবাস করেন। নিহত ভিকটিম মুছা মিয়া গত ৮ মার্চ ৬ মাসের হাজতবাস শেষে জামিনে মুক্তি পান। মুছা মিয়া জামিনে মুক্তি পেয়ে বাড়ি ফিরে আসার পর থেকে তার সৎ ভাগিনা শাহজাহান ও তার ভাইয়েরা মুছা মিয়াকে মেরে ফেলার হুমকি দিতে থাকে। পরবর্তীতে ১৯ এপ্রিল রাতে মুছা মিয়া সারাদিন সিএনজি চালিয়ে বাড়ী ফেরার উদ্দেশ্যে তার সৎ ভাগিনা শাহজাহানের বসত ঘরের পাশে চলাচলের রাস্তার উপর পৌঁছামাত্র আসামী শাহজাহানসহ তার অপরাপর সহযোগী মিলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পরিকল্পিতভাবে দেশীও ধারালো অস্ত্র দা ও কিরিচ দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে রক্তাক্ত করে মারাত্বকভাবে জখম করতঃ মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় নিহত ভিকটিমের স্ত্রী বাদী হয়ে চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী থানায়৬ জন নামীয় এবং ২/৩ জন অজ্ঞাত নামা করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

র‍্যাব-৭ এর সিনিঃ সহকারী পরিচালক মিডিয়া মোঃ নুরুল আবছার জানান, এই জঘন্য হত্যার ঘটনাটি চাঞ্চল্যকর ও লোহমর্ষক হওয়ায় এর সাথে জড়িত আসামীদের গ্রেফতারের জন্য র‌্যাব-৭ চ্যালেঞ্জ হিসাবে গ্রহন করে ব্যাপক গোয়েন্দা নজরদারী এবং ছায়াতদন্ত অব্যাহত রাখে। এরই প্রেক্ষিতে কক্সবাজার জেলার কুতুবদিয়া থানাধীন ধুরুং (প্রত্যান্ত দ্বীপ অঞ্চল) সাগরপাড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে মোঃ শাহজাহান কে আটক করা হয়। পরে সে হত্যা কান্ডের সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত ও অনত্যম পরিকল্পণাকারী ছিলো বলে অকপটে স্বীকার করে।

তিনি আরও জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীকে প্রাথমকি জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায়, নিহত ভিকটিম মুছা মিয়া ধৃত আসামী মোঃ শাহজাহানের সর্ম্পকে মামা হয়। মামার জায়গা জমি ভাগাভাগি নিয়ে বিরোধ এর কারনে পরিকল্পিতভাবে শাহজাহান ও তার ভাইদের নিয়ে ধারালো দা ও কিরিচ দিয়ে কুপিয়ে নির্মম ও নৃশংসভাবে তাদের মামাকে হত্যা করেছে। গ্রেফতারকৃত আসামীকে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিএস/কেসিবি/সিটিজি/৯ঃ১০পিএম

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved