বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৬:০৩ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
১৭ মে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা,গণতন্ত্রের অগ্নিবীণা ও উন্নয়ন-প্রগতির প্রত্যাবর্তনঃ তথ্যমন্ত্রী নাজিরপুর অঞ্চলের কৃষকের স্বপ্ন প্রতি বছর তলিয়ে যায় পানির নিচে কালিহাতীতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন রাজশাহী জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের ভোট স্থগিত প্রফেসর ডাক্তার উত্তম কুমার বড়ুয়াকে সংবর্ধিত করলো মিলন-পুর্নিমা ফাউন্ডেশন ঈদগাঁওর ৫ ইউনিয়নে আওয়ামী রাজনৈতিক অঙ্গনে চাঙ্গাভাব: উচ্ছাস তৃনমূলে চট্টগ্রামের হিজরা সুমন মানবিক কাজে আত্ম তৃপ্তি পান সরিষাবাড়ীতে দুই শিশু শিক্ষার্থী হারানোকে কেন্দ্র করে মাদ্রাসায় হামলা ভাঙচুর ও শিক্ষককে লাঞ্ছিত নাটোরে ধর্ষণ মামলায় যুবক গ্রেফতার মনোহরদীতে নৌকার প্রার্থীর প্রচারণায় হামলা, ভাংচুর

জন্মদিন পালন নিয়ে দুটি কথাঃদেবদাস ভট্টাচার্য

দেবদাস ভট্টাচার্যঃ
জন্মদিন পালন নিয়ে দুটি কথাঃ
স্বামী রঙ্গনাথানন্দের ‘ভগবদ্ গীতা ও বিশ্বজনীন বার্তা’ পড়ছি। দিনাজপুর থেকে জয়ন্ত তিন খন্ডের বইটি দিয়েছিল। চমৎকার ব্যাখ্যা দিয়ে প্রতিটি শ্লোককে তিনি বিশ্লেষন করেছেন। সেখানে জন্মদিন পালন নিয়ে কিছু কথা লিখেছেন, যা আমাকে আকৃষ্ট করেছে।
জন্মদিন পালন আমাদের আমদানি করা সংস্কৃতি। মোমবাতি নিভানো এবং কেক কাটা হচ্ছে মূল অনুষ্ঠান।
মোমবাতি নিভানো নিয়েই আপত্তি।
যারা এ সংস্কৃতি চালু করেছেন, তাদের কাছে আলো নিভিয়ে ফেলার কোন তাৎপর্য নিশ্চয়ই আছে। কিন্তু বৈদিক সংস্কৃতিতো আলোকিত করার সংস্কৃতি। আমাদের সকল অনুষ্ঠানে প্রদীপ জ্বালানো অপরিহার্য।
ঈশ্বরের কাছে আমাদের চিরকালীন প্রার্থনা,
‘তমসো মা জ্যোতির্গময়’!!!
কি অসাধারণ আকুতি!!
সেখানে আমরা জন্মদিনের মত এক মাঙ্গলিক অনুষ্ঠানে আলো নিভিয়ে অন্ধকারের পথে যাত্রা করি!!
অন্ধ অনুকরনের ফল হচ্ছে, না বুঝে অন্ধকার যাত্রা।
যারা আমার এ অনুভূতির সাথে একমত, তাদেরকে অনুরোধ করছি, আসুন, জন্মদিনে আলো নিভানোর সংস্কৃতির পরিবর্তে আলো জ্বালিয়ে আমরা শুভেচ্ছা জানানোর সংস্কৃতি চালু করি ।
আমাদের প্রার্থনা হোক, ‘ হে ঈশ্বর, আমাদের নিরন্তর যাত্রা হোক আলোর পথে! তুমিই সকল জ্যোতির জ্যোতি। ক্ষুদ্র দীপালোক থেকে আমাদের দৃশ্যপথের সবর্বৃহৎ আলোর উৎস সূর্য, সবই তোমার প্রকাশ! আমরা যার জন্মদিনের শুভক্ষণকে স্মরন করছি, তুমি তার জীবন থেকে সকল অন্ধকার দূর কর। তোমার দ্যুতিতে তার জীবন দ্যুতিময় হোক। মঙ্গলের পথে, কল্যাণের পথে, আলোর পথে, সর্বোপরি তোমার পথে তার নিরন্তর যাত্রা হোক।
অসত্য থেকে সত্যে, অন্ধকার থেকে আলোতে, মৃত্যু থেকে অমরত্বে, তোমারই উদ্দেশে আমাদের নিরন্তর যাত্রা হোক!
জগতের কল্যাণ হোক!!! ‘
করোনার এই তৃতীয় ঢেউয়ে ভাল থাকুন, সাবধানে থাকুন।

শুভ কামনা নিরন্তর।

লেখকঃ দেবদাস ভট্টাচার্য ডেপুটি ইনস্পেক্টর জেনারেল,বাংলাদেশ পুলিশ।

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved