রবিবার, ২৬ Jun ২০২২, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতায় মাদার তেরেসা পদক পেলেন এস এম পিন্টু পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে রামগঞ্জ থানা পুলিশের বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে বগুড়া জেলা প্রশাসকের আয়োজনে শোভাযাত্রা পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উদ্‌যাপনে, বাংলাদেশ পুলিশের্ নিরাপত্তা প্রস্তুতি সম্পন্ন অবিলম্বে দেশে ভোজ্যতেলের দাম সমন্বয়ের দাবি-ক্যাব ফুলপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত।  বাঙালি জাতির সমস্ত অর্জন এসেছে আওয়ামী লীগের হাত ধরে -তথ্যমন্ত্রী পদ্মা সেতু উদ্বোধনে মহিউদ্দিন মহারাজের নেতৃত্বে ৬টি লঞ্চে পিরোজপুরের ১৫ হাজার নেতাকর্মীরা অংশ নেবেন ময়মনসিংহ আইটি ও হাই-টেক পার্ক এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন লাকসামে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

প্রিয় সাধন সরকারকে শহীদ বুদ্ধিজীবি হিসেবে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের  স্বীকৃতি প্রদান করে অবশেষে গেজেট প্রকাশ

সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার এন্ড ডিভিশনাল চীফ ময়মনসিংহ ঃ শহীদ প্রিয় সাধন সরকারকে রাষ্ট্রিয়ভাবে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রনালয় কর্তৃক স্বীকৃতি ময়মনসিংহ বিভাগীয় মানুষের গণদাবি  শিরোনামে দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকায় প্রথম পৃষ্ঠায় পরপর দুটি অনুসন্ধানী নিইজ প্রকাশিত হওয়ার পর মুক্তি যুদ্ধ মন্রনালয় নরে চরে বসে দ্বিতীয় পর্ব তালিকা প্রকাশ করার জন্য। দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকায় সর্বশেষ প্রকাশিত হয়  গত২২/০৫/২০২২ রোজ রবিবার।  সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে গত ২৯/০৫/২০২২ ইং তারিখে  মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয় কর্তৃক তালিকা করে গেজেট প্রকাশ করে।  এই তালিকায় শহীদ বুদ্ধিজীবী হিসেবে স্থান পায় ময়মনসিংহ বিভাগীয় মানুষের নয়নের মণি,বর্তমান শিক্ষকদের শিক্ষা গুরু সকলের প্রিয় সাধন সরকার। মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রনালয় যে গেজেট প্রকাশ করে পঞ্চম তালিকায় সিরিয়াল নং৭২। প্রিয় সাধন সরকার বুদ্ধিজীবি হিসেবে রাষ্ট্রীয়ভাবে স্থান পাওয়ায় তাঁর প্রিয় জন্মস্থান ফুলপুর উপজেলার বিভিন্ন  রাজনৈতিক, সাস্কৃতি, মুক্তিযোদ্ধাগণ পৃথক পৃথকভাবে তারা তাদের অভিমত ব্যক্ত করেছেন।  ফুলপুর উপজেলা আওয়ামী সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক বলেন, আমাদের দীর্ঘদিনের অপুরনীয় দাবি পুরন করার জন্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদশ  সরকারের মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রনালয়ের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি প্রিয় সাধন সরকারকে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রনালয় গেজেট প্রকাশ করে তাঁকে শহীদ বুদ্ধি হিসেবে স্বীকৃতি দেয়াট ছিল ময়মনসিংহ বিভাগীয় মানুষের দীর্ঘ দিনের গণদাবী।  এ ব্যাপারে ফুলপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব আতাউল করিম রাসেল বলেন, প্রিয় সাধন সরকারের জন্য  আমি এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার যৌথভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে তাঁর প্রিয় কর্মস্থল পয়ারী গোকুল চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ে একটি স্মৃতি স্তম্ভ করার জন্য প্রধান শিক্ষক বরাবরৃে  একটি নির্দেশপত্র অনুরোধক্রম পাঠিয়েছি।  ফুলপুর পৌরসভার মেয়র মিঃ শশধর সেন বলেন, আমি খুবই  আনন্দিত হয়েছি  যে, সাধন স্যার জাতীয় শহীদ বুদ্ধি জীবি হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে, এর চেয়ে বড়  সুসংবাদ আমার কাছে অন্য কিছু  হতে পারে  না।  বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ফুলপুর উপজেলা শাখার সভাপতি বিশিষ্ট সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম বলেন,প্রিয় সাধন সরকার ছিলেন আমার বাবার প্রিয় শিক্ষক, এই স্বীকৃতি পাওয়ার পর আমার বাবার চোখে পানি অঝর ধারায় ঝরছে। এই কান্না ছিল আনন্দের, এই স্বীকৃতি ময়মনসিংহ বিভাগীয় মানুষের জন্য অনেক বড় পাওনা, অনেক বড় স্বকৃীত, আমাদের অনেক বড় আবদার পুরন হলো।পয়ারী গোকুল চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক সিনিয়র শিক্ষক জনাব নজরুল ইসলাম খান,এটিএম বরকত উল্লাহ  (অবসরপ্রাপ্ত) সমস্বরে বলেন,,, দীর্ঘ ৫১ বছর পর তুমি আমাদের প্রিয় সাধন সরকার (স্যার) কে নিয়ে বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকায়  ধারাবাহিকভাবে শীর্ষ পাতায় নিউজ করে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়কে গভীরভাবে জ্ঞাত করার জন্য পত্রিকার সম্পাদক ও সাংবাদিকের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি । বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন ফুলপুর উপজেলা শাখার সাধারণত সম্পাদক জনাব নূর মোহাম্মদ তারকী বাবুল বলেন, আমি  আমার  বাবা কাছ থেকে শুনছি ,উনি ছিলেন একজন কবি,সাহিত্যক উপন্যাসিক,প্রবন্ধকার,তাঁর রচিত কাব্য গ্রন্থগুলোর মধ্যে অন্যতম অস্তরাগ, রক্ত পলাশ, যুগের দাবী উপন্যাস  উল্লেখযোগ্য। আমি মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রনালয়ের প্রতি অকৃপণ ভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। সর্বশেষ সাক্ষাৎকারী  সাধন সরকারের প্রিয় ছাত্র৭১ বীর সিপাহশালা, জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান, বীর মুক্তিযোদ্ধা, ময়মনসিংহ জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার  জনাব আব্দুর রব বলেন, আমার  এখন একটাই দাবি  প্রিয় সাধন স্যারকে স্বাধীনতা পদকে ভূষিত করা হোক (মরণোত্ত)

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved