বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০২:১৯ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
ছাতকের পরিস্থিতি ভয়াবহ,সারা‌দে‌শে সঙ্গে সড়ক যোগা‌যোগ বন্ধ পিরোজপুরে বাস চাপায় কলেজ ছাত্র নিহত ১৭ মে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা,গণতন্ত্রের অগ্নিবীণা ও উন্নয়ন-প্রগতির প্রত্যাবর্তনঃ তথ্যমন্ত্রী নাজিরপুর অঞ্চলের কৃষকের স্বপ্ন প্রতি বছর তলিয়ে যায় পানির নিচে কালিহাতীতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন রাজশাহী জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের ভোট স্থগিত প্রফেসর ডাক্তার উত্তম কুমার বড়ুয়াকে সংবর্ধিত করলো মিলন-পুর্নিমা ফাউন্ডেশন ঈদগাঁওর ৫ ইউনিয়নে আওয়ামী রাজনৈতিক অঙ্গনে চাঙ্গাভাব: উচ্ছাস তৃনমূলে চট্টগ্রামের হিজরা সুমন মানবিক কাজে আত্ম তৃপ্তি পান সরিষাবাড়ীতে দুই শিশু শিক্ষার্থী হারানোকে কেন্দ্র করে মাদ্রাসায় হামলা ভাঙচুর ও শিক্ষককে লাঞ্ছিত

করোনার তৃতীয় ঢেউ মোকাবিলায় যশোরে প্রস্তুত ৯শ’ বেড

করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের এই সময়ে যশোরে আক্রান্ত একশ’ পার হয়েছে। আক্রান্তের এই উর্ধ্বমুখী কোথায় গিয়ে থামবে সেটা অনিশ্চিত হলেও চিকিৎসা সেবা নিশ্চিতে সব রকমের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে যশোরের স্বাস্থ্য বিভাগ। যশোরের সিভিল সার্জন এবং যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে প্রতিনিয়ত আলোচনা ও কার্যক্রম এগিয়ে রাখছেন। পিছিয়ে নেই জেলা প্রশাসনও। সচেতনতা বৃদ্ধিতে প্রচারণা চালানোসহ স্বাস্থ্যবিধি অমান্যকারীদের করছেন জরিমানা।
সূত্র জানিয়েছে, ২০২০ সালের এপ্রিলে যশোরে প্রথম করোনা রোগী সনাক্ত হয়। সেই থেকে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে সারা বিশ্বের মতো যুদ্ধ করছে এ জেলার মানুষও। পাশের দেশ ভারত থেকে করোনার নতুন ধরন ‘ডেল্টা ভেরিয়েন্ট’ও ছড়ায় সীমান্তবর্তী এ জেলায়। এখন দেখা দিয়েছে অতি দ্রুত সংক্রমণ ঘটানো করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন। এই অবস্থায় নড়েচড়ে বসেছে যশোর স্বাস্থ্য বিভাগ। অতীতের অভিজ্ঞতার আলোকে করোনার তৃতীয় ঢেউ রুখতে সব রকমের প্রস্তুতি নিয়েছেন তারা।
এবারের তৃতীয় ঢেউ মোকাবিলায় যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে রেডজোনে একশ’ ৪৬ ও ইয়োলোজোনে ২২ টি শয্যা প্রস্তুত করা হয়েছে। এছাড়াও করোনা রোগীর উন্নত চিকিৎসার জন্য আইসিইউতে তিনটি বেড রাখা হয়েছে। হাসপাতালে বর্তমানে অক্সিজেনের কোনো সংকট নেই বলে জানিয়েছেন তত্ত্বাবধায়ক ডা. আখতারুজ্জামান।
যশোরের সিভিল সার্জন ডা. বিপ্লব কান্তি বিশ্বাস বলেন, যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে দুইশত ও জেলার সাতটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিটিতে একশ করে সাতশ মোট নয়শত জন করোনা রোগীর চিকিৎসা দেয়ার জন্য প্রস্তুতি রয়েছে। যদি সংক্রমণ বৃদ্ধি পায় তাহলে জেনারেল হাসপাতালের পৃথক ওয়ার্ডে ১০টি বিশেষ কেবিন ও বক্ষব্যাধি হাসপাতালে ৪০ শয্যার পাশাপাশি বেসরকারি হাসপাতাল ভাড়া নিয়ে রোগীর সেবা দেয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved