সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০২:২৩ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাতে আপনাকে স্বাগতম! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন,বিজ্ঞাপন দিন সহযোগী হোন! বাংলাদেশ সমাচার পড়ুন বেকারত্ব দূর করুন ।
শিরোনাম :
অভয়নগরে স্কুলে নিয়োগ বাণিজ্য সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন পুঠিয়ার বানেশ্বরে স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও সভাপতির মারামারিতে সভাপতি আহত জয়পুরহাটে পৃথক ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু সরিষাবাড়ীতে ব্যাপক হারে চোখ ওঠা রোগী  বেড়ে চলছে  বিদেশি মদসহ সিএনজি ড্রাইভার আটক টেকনাফে ১২টি নবনির্মিত ক্লিনিকের উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্য মন্ত্রী  সরিষাবাড়ীতে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হত্যার উদ্দেশ্যে হামলায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে  কালাম সরদার তিনজনকেই ফ্ল্যাট দিয়ে সুন্দর পরিবেশে রাখা উচিত যা বললেন ডিপজল মাধবপুরে গাছ ফেলে ডাকাতির চেষ্টা গুলি ছুড়ে ডাকাত আটক।

বেদেনী সন্তান

আমাদের সকলের প্রাণের স্পন্দন বাংলাদেশ। যে দেশের মানব সম্পদ এবং মেধা সম্পদ দিয়ে অন্যান্য দেশ আজ সুপ্রতিষ্ঠিত ও সুসজ্জিত।অথচ আমরা সারা জীবন শুধু অন্যদের প্রতিষ্ঠার গান শুনি,অনেক বেশী মনোযোগ দিয়ে শুনতে শুনতে নিজেদের উন্নতির কথাই ভুলে যায়। পরিপূর্ণ ভাবে ভুলে যায় কি করা উচিৎ ছিলো আর কি করছি! যার চূড়ান্ত কু-ফল আমাদেরকে চাক্ষুষ দেখতে হচ্ছে। বর্তমানে বাংলাদেশে বিদ্যমান সমস্যার মধ্যে শিশুর অধিকার শনির দশা পরিগ্রহ করছে। বেদেনী শিশু পূর্ণার্ঙ্গ মানুষ থেকে কিছুটা আলাদা। এটা বোঝাতে গেলে হয় বোকা সাজতে হবে নইলে অন্যকে বোঝাতে ব্যর্থ হতে হবে। শিশু অধিকার নিয়ে অনেক আইন আছে । শূন্যের কোটায় যার ফলশ্রুতিতে বেদেনী শিশুরা মানবেতর জীবন যাপন আর থাকে অস্থায়ী ও পলিথিন, বাস দিয়ে তৈরি ছোট্ট ঘরে। ‘ শিশুরাই জাতির ভবিষ্যৎ’- আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যত,শিশুদের মধ্যেই সুপ্ত থকে ভবিষ্যতের কত কবি, শিল্পী, বৈজ্ঞানিক, সাহিত্যিক, চিকিৎসক ইত্যাদি বিভিন্ন প্রতিভা। ‘পথশিশু দিবস’ ২রা অক্টোবার পালন করা হয় পালন করা হয়। শিশু বিষয়ক আরও যে সব দিবস রয়েছে তার মধ্যে উল্লেখ যোগ্য হল ১৭ ই মার্চ জাতীয় শিশু দিবস। অন্যদিকে অধিবাসী শিশু, শ্রমজীবি পরিবারের শিশু (শহর বা গ্রামের), বেদেনী শিশুরাও রোগে বা অপুষ্টিতে ভোগে। অপুষ্টিই এদের প্রধান ব্যাধি। বেদেনী শিশুরা তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অনাদরে অবহেলায় মানুষ হচ্ছে। অন্ন, বস্থ, বাসস্থান, শিক্ষা, চিকিৎসা ইত্যাদি মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত অসহায় বেদেনী শিশুরা। কুষ্টিয়া জেলায় বিভিন্ন জেলায় দেখা যায় অস্থায়ীভাবে বেদিনীরা বসবাস করে।কয়েক দশক ধরে দেখছি এদের, এবং এদের একাংশ অসহায়। একসময় এদের ‘পথকলি’-র শোভন নামে আখ্যায়িত করে স্বাভাবিক জীবনস্রোত ফিরিয়ে নেবার পরিকল্পনা তৈরি হয়। শেষ পর্যন্ত তা বেশি দূর এগোয় না। ওদের ভাগ্য বেদেনী ঘরে নির্ধারিত থাকে।বেদিনী কন্যাদের খুব অল্প বয়সেই বিয়ে হয়ে যায়। বছর না ঘুরতেই তাদের জন্ম দিতে হয় সন্তান। একটি শিশু আরেকটি শিশুর মা হয়ে যায়।জীবনের নানাবিধ সুযোগ-সুবিধা ও আনন্দ থেকে বঞ্চিত বেদেনী শিশুদের সাহায্য দুএকটি এন.জি.ও এগিয়ে এলেও শেষ পর্যন্ত অবস্থার হেরফের হয়নি। তাই স্বনামখ্যাত কার্টুনশিল্পী রফিকুন নবীর তুলিতে, কলমে এরা ‘টোকাই’ নামে পরিচিতি পেয়ে যায়। শিক্ষিত মহলের আলোচ্য বিষয় হয়ে ওঠে।সমাজের উপেক্ষিত সদস্য। শিশু বলতে কাদের বুঝায়ঃ -আন্তর্জাতিকভাবে জাতীসংঘ শিশু সনদে বর্ণিত ঘোষণা অনুযায়ী ১৮ বয়সের কম বয়সী সকলেই শিশু। সে অনুযায়ী বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার শতকরা ৪৫ ভাগই শিশু। বাংলাদেশের জাতীয় শিশু নির্ধারণে বয়স সীমায় মত পার্থক্য থাকতে পারে। তবে তা কখনোই ১৮ বছরের উর্ধ্বে নয়। বেদেনী শিশু কারাঃ যে সব শিশু পিতৃ কিংবা মাতৃহীন , মা তালাকপ্রাপ্ত কিংবা বাবা মারত্মক দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত, মাদকাসক্ত কিংবা পিতা মাতা সংসার চালাতে পারছে না সেই সব ঘরের বাহিরে চলে আসে। জীবনের জন্য যুদ্ধ শুরু হয়।আমাদের দেশের বেদিনী দারিদ্র সীমার নিচে বসবাস করে। এরা সঠিক ভাবে শিশুদেরকে গড়ে তুলতে পারে না। তাদের সংসারে অভাব অনটন লেগেই থকে। তারা ছেলে-মেয়েদেরকে ঠিকমত খাবার ও অন্যান্ন মৌলিক অধিকার/ সুযোগ-সুবিদা প্রদানে ব্যার্থ হয়। এসব শিশুরাই তখন জীবন সংগ্রামে নেমে ভিবিন্ন কাজ-কর্মে জড়িয়ে পড়ে। এসব কাজের মধ্যে রয়েছে- কুলি, হকার, রিক্সা শ্রমিক, ফুল বিক্রেতা, আবর্জনা সংগ্রাহক, হোটেল শ্রমিক, বুনন কর্মী, মাদক বাহক,বিড়ি শ্রমিক, ঝালাই কারখানার শ্রমিক ইত্যাদি। তাছাড়া ভিবিন্ন ঝুকিপূর্ণ কাজে তাদেরকে নিয়োজিত করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

বিজ্ঞপ্তি

©দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার 2022All rights reserved